বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯, ০৯ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

মহানগর

স্বেচ্ছাসেবায় দেশকে রোল মডেল হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০২২, ১০:২৭ পিএম

দুর্যোগ মোকাবেলায় অংশ নেওয়ার মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবায় বাংলাদেশকে রোল মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

তিনি আজ রাজধানীর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস উপলক্ষ্যে ইউএন ভলান্টিয়ার বাংলাদেশ, ইউএনএফপিএ ও ওয়াটার এইডের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘স্বেচ্ছাসেবী কর্মের মাধ্যমে উন্নয়নের জন্য সংহতি জোরদার’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান।

দেশের বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবেলা করতে স্বেচ্ছাসেবায় জনসাধারণের অংশ গ্রহণ ও স্বেচ্ছাসেবার চর্চা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করে তাজুল ইসলাম বলেন, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত যে কোন ঝড়-জলোচ্ছ্বাস, মহামারী, সামাজিক বা অন্য যে কোন বিপর্যয় থেকে দেশকে রক্ষা করে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব।

তিনি বলেন, জনগণের অংশ গ্রহণ দেশের মানুষের মধ্যে জলবায়ু পরিবর্তন, মহামারী, সামাজিকসহ যে কোন ধরনের সংকট মোকাবেলায় সক্ষমতা বাড়াতে ভূমিকা রাখবে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গঠনের মিশন ও ভিশন এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা(এসডিজি) অর্জনে পথ নকশা ঠিক করেছেন। অষ্টম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা, রূপকল্প ২০৪১, বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০’র লক্ষ্যসমূহ অর্জনে স্বেচ্ছাসেবা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, এই সকল কর্মপরিকল্পনায় দেশের সব স্তরের মানুষকে যুক্ত করা না গেলে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছা অনেক কঠিন হবে। আর যার যার ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করলেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

করোনাভাইরাসের মহামারী পরবর্তী সহায়তা ও স্বেচ্ছাসেবী কাজের মাধ্যমে সংহতি জোরদারে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করায় ২০ সেরা স্বেচ্ছাসেবককে ‘আন্তর্জাতিক ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড বাংলাদেশ ২০২২’ পুরস্কার প্রদান করেন তিনি।

এছাড়াও বাংলাদেশে জাতিসংঘের কর্মরত ২০জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইব্রাহিম, ইউএনডিপির ডেপুটি রেসিডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ ভ্যান গুয়েন।

এছাড়াও অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী সেখ মোহাম্মদ মহসিন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শিখা সরকার ও ইউএনভি বাংলাদেশের কান্ট্রি কো-অরডিনেটর মোহাম্মদ আকতার উদ্দিন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন