বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

মহানগর

১১ সাংবাদিক পেলেন মীনা অ্যাওয়ার্ড-২০২২

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ৮:১১ পিএম

বাংলাদেশে শিশু অধিকার নিয়ে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মরত ১১ জন সাংবাদিক। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলের গ্ল্যান্ড বলরুমে এই পুরস্কার অর্জনকারীদের নাম ঘোষণা করে ইউনিসেফ বাংলাদেশ।

এই বছরে মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীরা হলেন—ঢাকা পোস্টের তানভীরুল ইসলাম, কালের কণ্ঠের এমরান হাসান সোহেল, বিডিনিউজ২৪.কমের হিমু চন্দ্র শীল, নিউজবাংলা২৪ এর জেসমিন আক্তার পাপড়ি, প্রথম আলোর মো. সাজিদ হোসেন, জাহিদুল করিম, ঢাকা ট্রিবিউনের নওয়াজ ফারহিন অন্তরা, নাগরিক টিভির শাহনাজ শারমিন, জাগোনিউজ২৪ এর মোহাম্মদ মোশাররফ হোসাইন, এটিএন বাংলার খালিদুল ইসলাম তানভির এবং হ্যালো বিডি নিউজের ধী অরণী পাল।

শিশুদের বিভিন্ন বিষয় গণমাধ্যমে তুলে ধরার ক্ষেত্রে সাংবাদিকতার উৎকর্ষতাকে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে ইউনিসেফ মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড। শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে নীতিনির্ধারক এবং বৃহত্তর জনসাধারণের কাছ থেকে শিশুদের জন্য সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে এ অ্যাওয়ার্ড দিয়ে আসছে ইউনিসেফ।

বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কর্মরত প্রিন্ট, ফটো ও ভিডিও সাংবাদিকদের জমা দেওয়া প্রায় ৩০০ প্রতিবেদন থেকে বিচারকদের একটি স্বাধীন দল প্রতিবেদনগুলো নির্বাচন করে। বিজয়ী ও মনোনীত প্রতিবেদনগুলোতে উঠে এসেছে সেসব শিশুদের কথা—যাদের জোরপূর্বক বিয়ে ও কঠোর পরিশ্রমে বাধ্য করা হয়; সেসব মেয়েদের কথা যাদের বিশুদ্ধ পানির অভাবে ঋতুস্রাব সংক্রার স্বাস্থ্যবিধি ব্যবস্থাপনার জন্য সংগ্রাম করতে হয়; সেসব শিশুদের কথা যাদের জীবন, জলবায়ু, অভিঘাত ও কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বিপর্যস্ত।

বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি শেলডন ইয়েট বলেন, আমরা গুরুত্বপূর্ণ যেসব প্রতিবেদনকে সম্মান জানাচ্ছি। সেগুলো শিশু অধিকারের কথা সবার সামনে তুলে ধরতে এবং ক্ষমতায় থাকা ব্যক্তিদের জবাবদিহির আওতায় আনতে সাংবাদিকরা যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন তারই প্রতিফলন। ১৮ বছরের কম বয়সী প্রতিভাবান শিশু সাংবাদিকদেরও পুরস্কৃত করা হয়। তাদের প্রতিবেদনগুলো শিশুদের উদ্বেগের বিষয়ে তাদের নিজস্ব মতামত, ধারণা ও চিন্তাভাবনা প্রকাশে সক্ষম করে তুলতে উপকরণ ও প্ল্যাটফর্ম প্রদানের গুরুত্ব তুলে ধরে।

রয়টার্স বাংলাদেশের চিফ কারেসপন্ডেন্ট এবং এ বছরের এই অ্যাওয়ার্ডের একজন বিচারক রুমা পাল বলেন, আমরা এই বছর অসংখ্য শক্তিশালী প্রতিবেদন দেখেছি। যেখান থেকে ১০ জনকে নির্বাচন করা সত্যিই কঠিন ছিল। যারা মনোনয়ন পেয়েছেন, তাদের প্রতিবেদনগুলোও কোনো অংশে কম নয়। আয়োজনে অতিথিদের মধ্যে ছিলেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান ও উপন্যাসিক ও বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেনসহ অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন