সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ১৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সারা বাংলার খবর

মঠবাড়িয়ায় স্কুলছাত্রী তন্বী হত্যা মামলায় আটক ৩ আসামী আদালতে সোপর্দ

মঠবাড়িয়া(পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩, ১০:২৮ এএম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় স্কুল ছাত্রী মারিয়া আকতার তন্বী (১৬) হত্যা মামলার গ্রেপ্তারকৃত ৩ আসামী মঙ্গলবার বিকালে আদালতে সোপর্দ করেছে থানা পুলিশ। আসামীরা হলেন, নিহতের শ^শুর মুজিবুর রহমান, শাশুড়ী শিরিন বেগম, ননদ মাকসুদা আক্তার।

প্রেম ও বাল্য বিয়ের ৩ মাস পর দশম শ্রেণির ছাত্রী তন্বীর লাশ সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে থানা পুলিশ উদ্ধার করে। নিহত স্কুলছাত্রী উপজেলার ঘোষের টিকিকাটা গ্রামের দুবাই প্রবাসি হাবিবুর রহমানের মেয়ে। সে স্থানীয় কে.এম লতীফ ইনিষ্টিটিউশনে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। এঘটনায় তন্বীর ভাই মেহেদেী মুন্না ৪ জনকে আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। আসামীরা হলেন, নিহত তন্বী আক্তারের স্বামী পৌর শহরের ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মিনহাজুল রহমান রাব্বি, শ^শুর অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মুজিবুর রহমান, শাশুড়ী শিরিন বেগম, ননদ মাকসুদা আক্তার। স্বামী রাব্বী পলাতক রয়েছেন।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, মারিয়া আকতার তন্নীর মোবাইল ফোনে শহরের তিন নম্বর ওয়ার্ডের মজিবর রহামন এর ছেলে মিনহাজুর রহমান রাব্বির সাথে পরিচয় ঘটে। গত ৩ মাস আগে তারা পালিয়ে ঢাকা চলে যায়। এক পর্যায় তারা বাড়িতে ফিরে আসে। পরে তাদের বাল্যবিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর স্কুলছাত্রী তন্বী শহরের দক্ষিণ মিঠাখালী তিন নম্বর ওয়ার্ডে স্বামী রাব্বীর পিত্রালয়ে বসবাস শুরু করে। ঘটনার দিন সোমবার সকালে স্কুলছাত্রী তন্বী তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। পরে ওই দিন বিকালে অসুস্থ অবস্থায় তন্বীকে শ^শুর বাড়ির লোক জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তন্নীর ভাই মেহেদেী মুন্না অভিযোগ করেন, তার বোন বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে। ঘটনার দিন সকালে তার বোন মোবাইলে কল দিয়ে তাকে যেতে বলে। যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে নিতে শোনে বোনকে হাসপাতালে ভার্তি করা হয়েছে। শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে নির্যাতনের পর শ্বাসরোধে হত্যা করেছে বলে সে দাবী করেছে।
ঘটনায় তন্নীর শ্বশুর মো. মজিবর রহমান দাবি করেন, ছেলের স্ত্রী অভিমান করে নিজের হাত নিজে কেটে পরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, হাসপাতাল হতে ওই স্কুলছাত্রী গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে মঙ্গলবার ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ হতে হত্যা মামলা দায়ের করলে ৩ জনকে আটক করা মঙ্গলবার বিকালে আদারতে সোপর্দ করা হযেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন