মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ২৬ চৈত্র ১৪৩০, ২৯ রমজান ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বগুড়ায় শিশু হত্যার দায়ে দুজনের ফাঁসি ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৪:২৭ পিএম

রায় ঘোষণার পর পুলিশ হেফাজতে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আব্দুর রাজ্জাক।


পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে বগুড়ার শাজাহানপুরে ৫ বছরের শিশু রোমানকে হত্যার পর গুম করার ঘটনায় দুই জনের মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।

ফাঁসির আসামীদের ৫০ হাজার টাকা ও যাবজ্জীবন প্রাপ্তকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত ।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত -৩ এর বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াসমিন এই রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া দুই আসামীদ্বয় হলো- শাজাহানপুরের ক্ষুদ্র কুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুল খালেক ও চুপি নগর দক্ষিণ পাড়ার আব্দুল মাজেদ। রায়ের সময় এই দুইজন আসামী পলাতক ছিলো।


এ ছাড়া যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়েছে ক্ষুদ্র কুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাককে। রায় ঘোষণার সমশ তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
মামলার নথি সুত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ২৩ আগস্ট শাজাহানপুরের চুপি নগর এলাকার মাহবুর রহমানের ৫ বছরের ছেলে রোমানকে হত্যা পর গুম করে আসামিরা। পরে ওই বছরের ২৮ আগস্ট একই এলাকার খলিল নামে একজনের বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে রোমানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই দিন নিহতের বাবা মাহবুবুর রহমান সাহজাহান পুর থানার তাদের তিনজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জহুরুল ইসলাম জানান, রোমানের দাদার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আসামী খালেক ও মাজেদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল। এ ছাড়া নিহতের পরিবারের সঙ্গে তাদের জমি সংক্রান্ত বিরোধও ছিল।
এসবের প্রতিশোধ নিতে আব্দুল খালেক ও আব্দুল মাজেদ শিশু রোমানকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। আব্দুর রাজ্জাকের মাধ্যমে রোমানকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ঘাতকদের নিয়ে আসাহয়। এ কাজের জন্য আব্দুর রাজ্জাককে ৮ হাজার টাকা দেন খালেক ও মাজেদ।
খালেক ও মাজেদ দুজন মিলে রোমানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে ওই শিশুকে এলাকার এক প্রতিবেশির বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভিতর গুম করে রাখেন।

রোমান নিখোঁজের পর খালেকের আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনা স্বীকার করেন। এ সময় তিনি মাজেদ ও রাজ্জাকের সম্পৃক্ততার কথাও জানান। পরে তাদের দেয়া তথ্যে রোমানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আইনজীবী জহুরুল ইসলাম বলেন, আসামীরা হত্যার দায় স্বীকার করে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দিও দিয়েছেন।সোমবার বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াসমিন আব্দুল খালেক ও ও আব্দুল মাজেদকে মৃত্যুদণ্ড দেন। আর আব্দুর রাজ্জাককে যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়।
চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি এ মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি হয়। এরপর থেকেই জামিনে থাকা আসামি আব্দুল খালেক ও আব্দুল মাজেদ পলাতক হয়েযায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন