বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৭ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

চট্টগ্রামে র‌্যাবের জালে টেকনাফের আঃলীগ নেতা ইয়াবাসহ আটক

টেকনাফ(কক্সবাজার) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৬:২৭ পিএম

চট্টগ্রাম মহানগরীর কর্ণফুলী এলাকায় ৫ হাজার ১৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ উল্লাহ(৬৩)নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা।

চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ ও সিনিঃ সহকারী পরিচালক মো. নুরুল আবছার গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান,রবিবার (১৯ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় র‌্যাব-৭,চট্টগ্রাম গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বাসযোগে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীর দিকে আসছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহানগরীর কর্ণফুলী থানাধীন কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাকা রাস্তার উপর একটি অস্থায়ী চেকপোষ্ট স্থাপন করে গাড়ী তল্লাশী শুরু করে। এসময় র‌্যাব সদস্যরা একটি বাস তল্লাশীকালে ১জন ব্যক্তি গাড়ি হতে নেমে সু-কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ডেইল পাড়া মৃত তমিম গোলালের ছেলে মোঃ হাফেজ উল্লাহ (৬৩) কে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীর স্বীকারোক্তি ও দেখানো মতে উক্ত বাসের মালামাল রাখার সাইডবক্সের ভিতরে রক্ষিত তার ট্রলি ব্যাগের ভেতর হতে আসামীর নিজ হাতে বের করে দেয়া মতে শপিং ব্যাগ দ্বারা মোড়ানো অবস্থায় মোট ৫ হাজার ১৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ তাকে আটক করা হয়। আটককৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে নেশা জাতীয় অবৈধ মাদকদ্রব্য কথিত ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন জায়গায় মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১৬ লক্ষ টাকা।

তিনি আরো জানান,আটককৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,র‌্যাবের জালে ইয়াবাসহ আটক হাফেজ উল্লাহ ২০১৪সাল থেকে ২০২২ সালের অক্টোবর পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। অবশেষে ইয়াবাসহ র‌্যাবের আভিযানিক দলের কাছে ধৃত হন। এই মাদক ব্যবসায় তার পুরো পরিবার জড়িত রয়েছে বলে এলাকায় জনশ্রুতি রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন