মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

গাজীপুরে অভিনব কায়দায় মোটরসাইকেল চুরি : চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২৩, ৭:৫৪ পিএম

গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানা পুলিশ এক অভিযান চালিয়ে মোটরসাইকেল চোর চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা অভিনব কায়দায় বিভিন্ন জায়গা থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে বডি কিট, রং পরিবর্তন করে ক্রয়-বিক্রয় করত। গ্রেফতারকৃতদের হেফাজত থেকে পুলিশ বডি কিট,কাটা লক, নাম্বার প্লেটসহ মোটর সাইকেল খোলার সরঞ্জাম উদ্ধার করছে। মঙ্গলবার গাজীপুর মহানগর পুলিশের প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা থানার পনিআউট গ্রামের সাইদ মিয়ার ছেলে মোঃ মুসা মিয়া (২৮), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর থানার গোপীনাথপুর গ্রামের মো: হারুন মিয়ার ছেলে মো: শাহ আলম (৩৮) ও একই গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে মো: আরিফ (১৮)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ্য করা হয় যে,গত ১৩ই ফেব্রুয়ারি সকালে বাসন থানাধীন চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার শাপলা ম্যানশনের সামনে থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। ওই চুরির ঘটনায় বাসন থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। পরে বাসন থানার একটি টিম তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায়
গত রবিবার কিশোরগঞ্জ জেলার নিকলী থানার টেংগুরিয়া গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে নুরু মিয়া (৩৬) কে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামিকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদকালে জানা যায় সে ৩ বছর যাবৎ মোটর সাইকেল চুরির সাথে জড়িত রয়েছ।

জিজ্ঞাসাবাদে সে আরো জানায়‌ যে, গাজীপুর শহিদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল এর সামনে থেকে একটি, পূবাইল থেকে একটি, টাঙ্গাইল থেকে একটি, উত্তরা থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি করে। চুরির পর চোরাই মোটর সাইকেল ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার কসবা থানার মুসার কাছে বিক্রয় করে।

গ্রেফতারকৃত আসামি নুরু মিয়ার তথ্যের ভিত্তিতে সকালে ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার কসবা থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মুসার বাসা থেকে ৫ টি চোরাই মোটরসাইকেলের ডিজিটাল নাম্বার প্লেট,৮ টি ভাঙ্গা লক, মোটর সাইকেল এর সামনে অংশের কিট, বিভিন্ন মোটর সাইকেলের যন্ত্রাংশ, মোটরসাইকেল খোলার বিভিন্ন যন্ত্রপাতি উদ্ধার করিয়া মুসা মিয়া সহ তার আরও দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়।
চক্রটি দীর্ঘ দিন যাবৎ বিভিন্ন এলাকা হতে চোরাই মোটরসাইকেল ৩০ হাজার টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকায় ক্রয় করে বডি কিট রং পরিবর্তন করে নাম্বার প্লেট ছাড়াই বিক্রয় করে আসছিল। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে এ বিষয়ে আরও তথ্য পাওয়া যাবে বলে পুলিশ আশা করছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন