ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

শর্ত পূরণের পরও এমপিওভূক্ত হয়নি তুষখালী কলেজ

| প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

আবদুল হালিম দুলাল, মঠবাড়িয়া থেকে : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার তুষখালী কলেজটি সকল শর্ত পূরণের পরও এমপিওভূক্ত না হওয়ায় শিক্ষক-কর্মচারীরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত কলেজটি অবকাঠমো, শিক্ষার্থী সংখ্যা ও ফলাফলসহ সকল শর্ত পূরণের পরও এমপিওভূক্ত না হওয়ায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে।
মঠবাড়িয়া-পিরোজপুর সড়কের পাশে (তুষখালী বাজারের নিকটে) কোলাহল মুক্ত মনোরম পরিবেশে আধুনিক প্রযুক্তি সম্মৃদ্ধ প্রায় সাড়ে তিন একর জমিতে প্রতিষ্ঠিত তুষখালী কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলে মন প্রফুল হয়ে যায়। বিশিষ্ট ব্যবসায়ি ও সমাজ সেবক মো. মিরাজুল ইসলামের নিজ অর্থে সুদৃশ্য ভবন, খোলা মাঠ, ফুল ও ফলের বাগান সজ্জিত তুষখালী কলেজ দেখলে মনে হয় যেন শিল্পির তুলিতে আঁকা একটি ছবি। সুবিন্যস্ত কলেজ ক্যাম্পাসে রয়েছে ১টি সেমি পাকা ও ২টি টিন শেড ভবন, মনমুগ্ধকর ফুলের বাগান, মাল্টা ও বিভিন্ন প্রজাতির আমসহ ফলদ বাগান এবং সামনে বিশাল খেলার মাঠ।
কলেজে বর্তমান শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ শতাধিক, অধ্যক্ষসহ শিক্ষক ১৮ জন এবং কর্মচারী ৭ জন। নিজস্ব ওয়াইফাই নেটওয়ার্কভূক্ত কলেজে রয়েছে মাল্টি মিডিয়া শ্রেণি কক্ষ, ১০টি কম্পিউটার দিয়ে রয়েছে একটি কম্পিউটার ল্যাব এবং গোটা কলেজ ক্যাম্পাস সিসি ক্যামেরায় মনিটর করা হয়।
নবীন এ কলেজটির ফলাফলও সন্তোষ জনক। ২০১৫ সালে প্রথম পাবলিক পরীক্ষায় কলেজের ৮৯ শতাংশ পরীক্ষার্থী কৃতকার্য হয়। ২০১৬ সালের পরীক্ষায় ২টি জিপিএ-৫সহ উপজেলার ৭টি কলেজের মধ্যে ফলাফলে (৯০ শতাংশ) ২য় স্থান লাভ করে।
এছাড়া ২০১৫ সালে আন্তঃজেলা কলেজ বিতর্ক প্রতিযোগীতায় তুষখালী কলেজ পিরোজপুর জেলায় প্রথম স্থান লাভ করে।
কলেজটি এমপিওভূক্ত না হওয়ায় শিক্ষক-কর্মচারীরা বিনা বেতনে নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। বেতন-ভাতা না পাওয়ায় কলেজ প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক কর্মচারীদের নিয়মিত সম্মানী প্রদান করেন বলে কর্তৃপক্ষ জানান।
কলেজের অধ্যক্ষ মো. আনোয়ার হোসেন জানান, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা একজন শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তি। তার উৎসাহ এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের নিরলস প্রচেষ্টায় কলেজটি আদর্শ কলেজে রুপ নিয়েছে। তিনি মানবিক কারণে কলেজটি এমপিওভূক্ত করার জন্য কর্র্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন