শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সোনালি আসর

গল্প : ঘন কুয়াশায় শীত

| প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ম নি রু জ্জা মা ন   রা ফি : শীত বাংলা সনের পঞ্চম ঋতু। বাংলা মাসের পৌষ ও মাঘ এই দুই মাস মিলে শীতকাল। একে একে গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎ ও হেমন্তকে বিদায় দিয়ে ঘন কুয়াশার চাদরে মুড়ে নিস্তেজ প্রকৃতিতে শীতের অনুপ্রবেশ ঘটেছে, প্রকৃতির এমন নিষ্প্রাণ আবহাওয়া তারই প্রমাণ দেয়। এই শীতে প্রকৃতিকে কুয়াশার চাদরে মুড়ে মুখ গুমরো করে আছে পুরো আঞ্চল। প্রকৃতির এমন আবহাওয়ায় ঘর থেকে বেরুতে একেবারেই মন চায় না। তারপরও সব কিছু উপেক্ষা করে ঘর থেকে বেরুতে হয় কাজের উদ্দেশ্যে।
এখন সময় হয়েছে খেজুর গাছে হাঁড়ি বেঁধে খেজুর রস সংগ্রহ করার, গাছিরা এখন ব্যস্ত খেজুর গাছে হাঁড়ি বাঁধতে, এমন দৃশ্য আগের মতো আর সচরাচর চোখে পড়ে না। তবে বাংলাদেশের বেশ কিছু অঞ্চলে এখনো গাছিরা খেজুর গাছে হাঁড়ি বাঁধে এবং খেজুরের রস বিক্রি করেই চলে তাদের ছোট্ট সংসার।
আর শীত মানেই পিঠাপুলি খাওয়ার উপযুক্ত সময়, রাস্তার দুই পাশে তাকালেই দেখা মেলে ধোয়া ওঠা শীতের সেরা চিতই পিঠা ও ভাপা পিঠা। এসব পিঠা দেখে কার না খেতে ইচ্ছে করে। এ ছাড়াও বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে ঘরেই এখন চলছে পিঠাপুলির উৎসব। এসব পিঠাপুলির মধ্যে রয়েছে দুধপুলি, পাটিসাপটা, দুধচিতই আরও নাম না জানা হরেক রকমের পিঠা।
তারই সাথে শীত এসে ঝেঁকে বসেছে দারিদ্র্যসীমার নিচে থাকা লোকদের গায়ে। যাদের শীতের কাপড় কেনার সামান্য সামর্থ্যটুকুও নেই, তারাই উপলব্ধি করে, শীতের কষ্টদায়ক মুহূর্তগুলো। শীতের এই উষ্ণতা দরিদ্র শ্রেণির লোকেরা বেশি টের পায়।
মাঝে মাঝে রাস্তায় বেরুলেই চোখে পড়ে রাস্তায় ধারে গুটিসুটি মেরে একটি ছেড়া কাঁথা গায়ে জড়িয়ে শুয়ে আছে কিছু সাধারণ মানুষ। তাদের দেখলেই বেশি কষ্ট হয়, কিন্তু তাদের কষ্টে এগিয়ে আসে এমন লোকজন খুব কমই দেখা যায়, তবে এখনো কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী এগিয়ে আসছে, তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় অতি নগণ্য।
আর শীত বাড়ার সাথে সাথেই দোকানে শীতের কাপড় বেচাকেনার ধুম পড়ে গেছে, দোকানে কোথাও আর পা ফেলার জায়গাটুকুও বাকি নেই।
শীতে কিছুক্ষণ খালি গায়ে থাকলেই শীতের উষ্ণতা সম্পর্কে সঠিক ধারণা পাওয়া যায়। তবে উচ্চবিত্তদের মাঝে শীত নিয়ে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায় না।
শীত শুধু মানুষকে কষ্ট দিতেই আসে তা কিন্তু নয়, শীত আসে নানান ধরনের টাটকা শাকসবজি নিয়ে। এ সময় শাক-সবজিতে বাজার ভরপুর থাকে। শীতকালে কুয়াশা পড়ে শাকসবজি যেন আরও সতেজ হয়ে ওঠে। এসবের মাঝে রয়েছে শিম, মুলা, গাজর, সরিষা, শসা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, পালং শাকসহ আরও অনেক ধরনের সবজি। এভাবেই প্রতিটি শীত আমাদের মাঝে আসে নানান রূপে, আর এভাবেই আমরা শীতকে সাথে নিয়ে বেঁচে আছি একসাথে, আর এভাবেই থাকতে চাই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন