সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫ আশ্বিন ১৪২৮, ১২ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সিরাজগঞ্জ-বগুড়া রেলপথের কাজ এ বছরই : রেলমন্ত্রী

রেললাইন সংস্কারে ১২০ কোটি টাকা

| প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : উত্তরাঞ্চলের যোগাযোগ উন্নয়নে সরকার বদ্ধপরিকর। সিরাজগঞ্জ-বগুড়ার রেলপথ ভারতীয় টাকায় এ বছরে নির্মাণ শুরু করা হবে। দেশে মোট ৪৫৯টি রেল স্টেশন আছে। তবে জনবল সঙ্কটের কারণে ১৩৮টি স্টেশনের কার্যক্রম আংশিক বা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো: মুজিবুল হক।
গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদে মহিলা আসন-২৩ এমপি বেগম পিনু খানের লিখিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। রেলমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে সহকারী স্টেশন মাস্টার পদে ২৬৭ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১৩৯ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে বিভিন্ন  স্টেশনে পদায়ন করা হয়েছে। বাকি ১২৮ জনের প্রশিক্ষণ এপ্রিলে শেষ হবে।
বগুড়া-১ আসনের সরকারি দলের এমপি আব্দুল মান্নানের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী বলেন, সিরাজগঞ্জ-বগুড়ার রেলপথ ভারতীয় টাকায় নির্মাণকাজ এ বছরে শুরু করা হবে। এ জন্য সকল প্রকার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। ভারতীয় অর্থ পাওয়া গেলে এর কাজ দ্রুত করা হবে।
রেলমন্ত্রী মো: মুজিবুল হক বলেন, বাংলাদেশে রেলওয়েতে মোট ৪৫৯টি স্টেশন আছে। বাংলাদেশ রেলওয়েতে জনবল স্বল্পতা বিরাজ করছে। জনবল স্বল্পতার কারণে বর্তমানে রেলওয়ের  ১৩৮টি স্টেশনের কার্যক্রম আংশিক বা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে।
ময়মনসিংহ-২ সংসদ সদস্য শরীফ আহমেদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের রেললাইন সংস্কার বাবদ এ বছর প্রায় ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। বাংলদেশ ওয়ে অ্যান্ড ওয়ার্কার্স ম্যানুয়েল এবং রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং কোড মোতাবেক রেললাইন সংস্কারকাজ করা হয়ে থাকে।
পঞ্চগড়-২ আসনের এমপি মো: নুরুল ইসলাম সুজনের এক  প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দিনাজপুর-পঞ্চগড় সেকশনের রেলপথ দীর্ঘ দিন যাবৎ সংস্কার না করার কারণে জরাজীর্ণ ও দ্রুতগামী ট্রেন চলাচলের অনুপযোগী ছিল। বর্তমান সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে রেলওয়ের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তার অংশ হিসেবে দিনাজপুর-পঞ্চগড় সেকশনের ১০২ কি:মি: রেলপথ সংস্কার ও নবায়নপূর্বক সম্পূর্ণরূপে পরিবর্তন করে মিটারগেজ রেলপথ ডুয়েলগেজ রেললাইন নির্মাণ হয়েছে। পঞ্চগড় থেকে ঢাকা পর্যন্ত সরাসরি ট্রেন সার্ভিস চালু করার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক লোকোমোটিভ, কোচ এবং উক্ত সেকশনের জন্য আবশ্যকীয় অপারেটিং জনবল নিয়োগ সম্পন্ন হলে ঢাকা-পঞ্চগড় সরাসরি ট্রেন চলাচলের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। কুড়িগ্রাম-৩ আসনের এমপি এ কে এম মাঈদুল ইসলামের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে রেলওয়েতে যাত্রীবাহী কোচের স্বল্পতা রয়েছে। যাত্রী চাহিদা থাকা সত্ত্বেও বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী ট্রেনগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক বগি সংযোজন করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে এ মুহূর্তে রমনাজার চিলমারী-পার্বতীপুর রুটে কমিউটার ট্রেন চালু করা সম্ভব হচ্ছে না।
ঢাকা-১১ আসনের এমপি কামাল আহমেদের এক প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত কমলাপুর থেকে টঙ্গী-জয়দেবপুর পর্যন্ত রেললাইনের নিচে সাবওয়ে নির্মাণের জন্য সম্ভাব্যতা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য একটি প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে।
জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খানের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, রেলপুলিশের জন্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে ভূমি নির্বাচনের বিষয়টি  বিবেচনাধীন রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন