ঢাকা, শনিবার ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

রুবেলের ৫ উইকেট, উজ্জ্বল মুস্তাফিজও

| প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : দ্বিশতকের কাছে গিয়েও শেষ পর্যন্ত পারলেন না জুনায়েদ সিদ্দিকী। আগের দিনের সাথে মাত্র ৯ রান যোগ করে উত্তরাঞ্চলের টপঅর্ডার ফেরেন ১৮১ রানে। তবে তার দল ঠিকই পেয়েছে পাঁচ শতাধিক রানের বিশাল সংগ্রহ। তরুণ ব্যাটসম্যান সাইফ হাসানের ব্যাটে তাদের জবাব দিচ্ছে মধ্যাঞ্চল।
চট্টগ্রামে যখন ব্যাটসম্যানরা ছড়ি ঘোরাচ্ছেন, সিলেটে তখন বোলারদের রাজত্ব। দ্বিতীয় দিনে সেখানে পতন হয়েছে ১৯টি উইকেট। প্রথম ইনিংসে পশ্চিমাঞ্চলের পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন ভারত সফরে উপেক্ষিত থাকা রুবেল হোসেন। দুই উইকেট নিয়ে তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন মোস্তাফিজুর রহমানও। পশ্চিমাঞ্চলও পড়েছে ইনিংস হারের শঙ্কায়।
প্রথমে ব্যাট করা দক্ষিণাঞ্চলের ইনিংসে সেঞ্চুরি নেই একটাও। তিনটি করে অর্ধশতক ও ত্রিশোর্ধ রানের ইনিংসে তারা দাঁড় করায় ৪০৩ রানের বড় সংগ্রহ। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান জিয়াউর রহমান (৫৫*) ও সোহাগ গাজি (৪২*) ফেরেন যথাক্রমে ৭২ ও ৪৬ রানে। তিন উইকেট নেন এবাদত হোসেন, দু’টি করে খালেদ আহমেদ ও আবুল হাসান।
জবাবে প্রথম বলেই ইরফান শুক্কুরকে ফিরিয়ে উইকেটে উদযাপনের শুরুটা করেন মুস্তাফিজ। পরে সেই ধারা অব্যহত রাখেন রুবেল। জাতীয় দলের দুই বোলিং নক্ষত্রে পুড়ছে পশ্চিমাঞ্চল। প্রথম ইনিংসে তারা গুটিয়ে যায় ১৪৪ রানে। সর্বোচ্চ ৪৮ রান আসে আবুল হাসানের ব্যাট থেকে। ১০ ওভার বল করে মাত্র ২২ রানের খরচায় পাঁচ উইকেট নেন রুবেল, ৯ ওভারে ৩২ রানে দুই উইকেট নেন মুস্তাফিজ, ৩৯ রানে দুই উইকেট নেন সোহাগ গাজীও। ফলোঅনে পড়ে আবারো ব্যাটে নামা পশ্চিমাঞ্চলের শুরুটা নড়বড়ে করে দেন সেই রুবেলই, দলীয় আট রানে মেহেদী মারুফকে ফিরিয়ে। পরে সোহাগ গাজী ও আব্দুর রাজ্জাকের ঘূর্ণীতে ৭৪ রান তুলতেই পাঁচ উইকেট হারায় অলক কাপালির দল। ইনিংস হার এড়াতে এখনো তাদের করতে হবে ১৮৫ রান। ১০ রানে ব্যাটে আছেন কাপালি, শূন্য রানে শাহানুর রহমান।
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে জুনায়েদ ফেরার পরের ওভারেই একই পথ ধরেন আগের দিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান ধীমান ঘোষ (৬১)। তবে আরিফুল হক (৫০), শুভাগত হোম (৪৬) ও ফরহাদ রেজাদের নৈপুণ্যে ৫০২ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় উত্তরাঞ্চল। তিনটি করে উইকেট নেন শহিদুল ইসলাম ও তইবুর রহমান। জবাবে ২০ রানে দুই উইকেট হারালেও সাইফের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়িয়েছে মধ্যাঞ্চল। দিন শেষে তাদের সংগ্রহ তিন উইকেটে ১২০। ৫২ রানে ব্যাটে আছেন সাইফ।
দক্ষিণাঞ্চল প্রথম ইনিংস : ৯৬.৫ ওভারে ৪০৩ (এনামুল ৮৯, তুষার ৬২, মিঠুন ৪৭, মোসাদ্দেক ৩৯, জিয়াউর ৭২, সোহাগ ৪৬; এবাদত ৩/৮৫, খালেদ ২/৮৬, হাসান ২/৮৪, সাকলাইন ১/৭৬, শাহানুর ১/৪৮, তাসামুল ১/১৩)।
পূর্বাঞ্চল প্রথম ইনিংস : ৪৩ ওভারে ১৪৪ (জাকির ১৯, ইয়াসির ৪২, হাসান ৪৮; মুস্তাফিজ ২/৩২, রুবেল ৫/২২, রাজ্জাক ১/৪৩, সোহাগ ২/৩৯)।
পূর্বাঞ্চল দ্বিতীয় ইনিংস : ৩৭ ওভারে ৭৪/৫ (ইরফান ২৭, মারুফ ০, জাকির ১২, তাসামুল ৪, ইয়াসির ১৬, কাপালী ১০*, শাহানুর ০*; মুস্তাফিজ ০/১৭, রুবেল ১/২৩, সোহাগ ১/২৪, রাজ্জাক ২/৮)।
উত্তরাঞ্চল প্রথম ইনিংস : ১৪১.১ ওভারে ৫০২ (জহুরুল ৩৯, জুনায়েদ ১৮১, নাসির ৫৫, ধীমান ৬১, আরিফুল ৫০, শুভ ৪৬, রেজা ৩৪, সানজামুল ১০, আরাফাত ৮*; শহিদুল ৩/১১৪, সাব্বির ১/৪৩, শাহাদাত ২/১১২, শুভাগত ১/৯১, মজিদ ০/১৯, তাইবুর ৩/৩৩, তানবীর ০/৭৪, শামসুর ০/৫, সাইফ ০/২)।
মধ্যাঞ্চল প্রথম ইনিংস : ৩৫ ওভারে ১২০/৩ (শামসুর ১১, মজিদ ৯, সাইফ ৫২*, মার্শাল ২৭, তাইবুর ১৬*; রেজা ০/১৫, আরাফাত ২/৩৩, আরিফুল ০/১৮, সানজামুল ১/৩১, শুভ ০/২১)।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন