ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

ট্যানারি মালিকপক্ষের দাবি পনের দিনে ক্ষতি ২৬০০ কোটি টাকা

| প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০১৭, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : ট্যানারির গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানি সংযোগ বিছিন্ন করে দেওয়ায় গত ১৫ দিন বন্ধ রয়েছে হাজারীবাগের ট্যানারি কারখানাগুলো। বন্ধ থাকায় এ খাতে ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৬০০ কোটি টাকা। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেছেন ট্যানারি শিল্প মালিকরা। চামড়া শিল্প রক্ষা ঐক্য পরিষদের ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও ঐক্য পরিষদের কো-চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠ করতে গিয়ে পরিষদের কো-চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ৮ এপ্রিল হাজারীবাগে ট্যানারি শিল্পকারখানা বন্ধ করে দেওয়ার পর এ পর্যন্ত এ খাতে দেড় হাজার কোটি টাকার রফতানি আদেশ বাতিল হয়েছে। উচ্চ আদালত সাভারের চামড়া শিল্প নগরে ১৫ দিনের মধ্যে গ্যাস ও বিদ্যুৎ-সংযোগ দেওয়ার আদেশ দিলেও এখনও তা বাস্তবায়ন হয়নি। ১৪০টি কারখানা গ্যাস-সংযোগের জন্য আবেদন করা হলেও পাওয়া গেছে মাত্র নয়টি।
সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, গত ১৫ দিনে দুই হাজার ৬৮৬ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে ট্যানারি শিল্প প্রতিষ্ঠানে ক্ষতি এক হাজার ২৩৭ কোটি টাকা। রফতানিতে ক্ষতির পরিমাণ এক হাজার ১১ কোটি টাকা। এছাড়াও চামড়া শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৩৭ কোটি টাকা। এদিকে, গত ৯ এপ্রিল এক নির্দেশে আদালত পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে সাভারের ট্যানারি শিল্প এলাকার সব কারখানার গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ দেওয়ার নির্দেশনা দিলেও তা বাস্তবায়ন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। গত বুধবার ছিল আদালতের বেঁধে দেওয়া সময়ের শেষ দিন। কিন্তু এখন পর্যন্ত মাত্র গ্যাস সংযোগ দেওয়া হয়েছে নয়টি কারখানায়।
এক প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) সভাপতি শাহীন আহমেদ বলেন, সাভারের চামড়া শিল্পনগরীতে অবিলম্বে সব কারখানায় গ্যাস-বিদ্যুতের সংযোগসহ নয় দফা দাবি আদায়ে আমরা রাজপথে আছি। প্রয়োজনে আদালতে যাবো। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিটিএর সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, ট্যানারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সভাপতি আবুল কালাম আজাদসহ প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন