ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

তাইজুল জাদুতে মোহামেডানের অবিশ্বাস্য জয়

| প্রকাশের সময় : ৩ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : ১৩৫ রানে আটকে যাওয়ার পর জয়ের কথা কি মনের ভুলেও ভেবেছিল মোহামেডান? একজন হয়তো ভেবেছিলেন- তাইজুল ইসলাম। এই রানই লিজেন্ডস অব রুপজঞ্জের কাছে এভারেস্টসম করে তুললেন তাইজুল। বাঁহাতি স্পিনার একাই শীর্ষ ছয় উইকেট তুলে রুপগঞ্জকে গুটিয়ে দিলেন ৮৪ রানে। মোহামেডানও পেলো ৫১ রানের দুর্দান্ত এক জয়।
ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে গতকাল বাকি দুই ম্যাচও ছিল লো স্কোরিং। সাভারের আরেক মাঠে কলাবাগান ক্রিড়া চক্রের ১৫৬ রান আবাহনী লিমিটেড পাড়ি দেয় ৬ উইকেট আর ১১৮ বল হাতে রেখে। ফতুল্লায় ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর।
মোহামেডানের সাত ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কে পৌঁছালেও কেউই পঁচিশোর্ধো ইনিংস খেলতে পারেননি। সর্বোচ্চ ২৪ রান আসে অধিনায়ক রাকিবুল হাসানের ব্যাট থেকে। রুপগঞ্জের আসিফ হাসান নেন ৪ উইকেট। ৩৯.৪ ওভারে মোহামেডানের ইনিংস শেষ হয় ১৩৫ রানে। জবাবে নিজের প্রথম ওভারেই দুই ওপেনারকে সরাসরি বোল্ড করে ফেরান টেস্ট স্পেশালিস্ট হিসেবে পরিচিত তাইজুল। এরপর একে একে তুলে নেন শীর্ষ আরো চার ব্যাটসম্যানকে। রুপগঞ্জও মাত্র ৩২.৪ ওভারে গুটিয়ে যায় ৮৪ রানে। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এটি তাইজুলের দ্বিতীয় ছয় উইকেট শিকার। এটি তার দ্বিতীয় সেরা বোলিং ফিগারও।
পাশেই সাভারের তিন নম্বর মাঠে শুভাগত হোমের ঘুর্ণী বলের ধন্দে পড়ে কলাবাগান। সাথে দুটি করে উইকেট নিয়ে ৪৫.৫ ওভারে তুষার ইমরানের দলকে ১৫৬ রানে বেধে ফেলেন মুন্না শর্মা ও মোহাম্মাদ সাইফুদ্দিন। সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন তুষার। জবাবে ৩০.২ ওভারে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় আবাহনী। ৬২ বলে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন সাইফ হাসান।
দিনের বাকি ম্যাচও পায়নি দুইশোর্ধো রানের দেখা। ৪৯.৫ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করলেও ফরহাদ রেজা ও দেলোয়ার হোসেনের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ১৮০ রানে আটকা পড়ে টসজয়ী প্রাইম ব্যাংক। দুজনই নেন তিনটি করে উইকেট। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে তৃতীয় ফিফটির দেখা পান জাকির হাসান। ১০৩ বলে দুই চার ও এক ছক্কায় দলের সংগ্রহ বাড়াতে জোর প্রচেষ্টা চালান এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। কিন্তু বাকিদের ব্যর্থতায় বড় পুজি পায়নি প্রাইম ব্যাংক। দায়ীত্বশীল ব্যাটিংয়ে দোলেশ্বরের ৭ উইকেটের জয় নিশ্চিত করেন ৭৮ রানে অপরাজিত থাকা জাতীয় দলের সাবেক ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফিস। এছাড়া মার্শাল আযুবের ব্যাট থেকে আসে ৬২ রান। ৮ ওভারে ১ মেডেনসহ ২৬ রানে ২ উইকেট নেন আল-আমিন হোসেন।

স ং ক্ষি প্ত স্কো র
মোহামেডান-লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ
মোহামেডান : ৩৯.৪ ওভারে ১৩৫ (অভিষেক ১০, রনি ১৭, শামসুর ২৩, আসালঙ্কা ১, রকিবুল ২৪, জাবিদ ১৯, নাজমুল ২০, তাইজুল ২, রাব্বি ১৫, সাজেদুল ৩*, এনাম জুনিয়র ১; শরীফ ২/১৫, রাসেল ১/২৫, মোশাররফ ১/৪১, সাক্সেনা ২/৩৫, আসিফ ৪/১৯)
লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ : ৩২.৪ ওভারে ৮৪ (সায়েম ১, হাসানুজ্জামান ৬, ইয়াসির ১৪, নাঈম ১৫, সাক্সেনা ০, হামিদুল ৪, মোশাররফ ২২, মাহমুদুল ৪, শরীফ ৫*, আসিফ ৪, রাসেল ৪; শামসুর ০/১৯, তাইজুল ৬/২৪, এনাম জুনিয়র ০/২, আসালঙ্কা ১/১০, রাব্বি ১/২৬, সাজেদুল ২/৩)
ফল : মোহামেডান ৫১ রানে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : তাইজুল ইসলাম (মোহামেডান)
কলাবাগান-আবাহনী
কলাবাগান ক্রীড়া চক্র : ৪৫.৫ ওভারে ১৫৬ (মেহরাব জুনিয়র ৯, তাসামুল ৪, জসিম ১৩, মাসাকাদজা ৩১, তুষার ৩৬, আশরাফুল ৭, মোসাব্বেক ২, মুক্তার ২২, হাসান ১৩, সঞ্জিত ২*. নাবিল ১; সাইফউদ্দিন ২/২৬, অনিক ১/২২, শুভাগত ৪/১৯, সাকলাইন ১/২১, আফিফ ০/২৩, মানান ২/৩০, নাজমুল ০/৬)।
আবাহনী : ৩০.২ ওভারে ১৬১/৪ (লিটন ২০, সাদমান ২০, সাইফ ৬১, নাজমুল ২৪, মিঠুন ৩০*, আফিফ ২; নাবিল ১/৩৪, মোসাব্বক ০/২০, সঞ্জিত ০/১৯, হাসান ২/২০, মুক্তার ০/১৪, মেহরাব জুনিয়র ০/১৯, আশরাফুল ১/১৬, তুষার ০/১৯)।
ফল : আবাহনী ৬ উইকেটে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : শুভাগত হোম (আবাহনী)।
প্রাইম ব্যাংক-প্রাইম দোলেশ্বর
প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব: ৪৯.৫ ওভারে ১৮০ (মারুফ ১০, নাহিদ ১১, রাফাতুল্লাহ ৬, জাকির ৫২, আল আমিন জুনিয়র ৭, আসিফ ৩৩, তাইবুর ১, সালমান ১৫, আরিফুল ৩০, নাজমুল ৬, আল আমিন ২*; রেজা ৩/৩০, সানি ১/৩৮, দেলোয়ার ৩/১৭, ডি সিলভা ১/৩৮, শরিফউল্লাহ ১/৪২, হাবিবুর ০/১৪)।
প্রাইম দোলেশ্বর : ৪৫.২ ওভারে ১৮১/৩ (ইমতিয়াজ ১১. মজিদ ০, শাহরিয়ার ৭৮*, মার্শাল ৬২, জাকের ১৭*; আল আমিন ২/২৬, আরিফুল ০/৩১, নাহিদ ০/১৮, নাজমুল ০/২৮, আল আমিন জুনিয়র ০/১৭, রাফাতুল্লাহ ০/১৮, সালমান ১/১৭, তাইবুর ০/১৭, আসিফ ০/৪)।
ফল : প্রাইম দোলেশ্বর ৭ উইকেটে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : দেলোয়ার হোসেন (দোলেশ্বর)।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন