ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বাশার সরকারের বিরুদ্ধে শান্তি আলোচনা ভ-ুলের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়া সরকার নতুন দফা শান্তি আলোচনা ভ-ুল করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স। সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লেম গত শনিবার বলেছেন, তার সরকার এ সপ্তাহে জেনেভার শান্তি আলোচনায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে আলাপ করবে না কিংবা প্রেসিডেন্সির প্রশ্নে আলোচনা করতে ইচ্ছুক কোনও দলের সঙ্গেও বৈঠক করবে না। ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ-মাহ কেহু ব্রিটিশ, জার্মান, ইতালি যুক্তরাষ্ট্র ও ইইউ দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে সিরিয়ার এ বক্তব্যকে উস্কানি আখ্যা দিয়ে বলেছেন, এটি একটি অশুভ লক্ষণ। যুদ্ধবিরতির উদ্যোগের সঙ্গে এটি বেমানান। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যকে স্পষ্টতই শান্তি প্রক্রিয়া বানচাল করার চেষ্টা বলে বর্ণনা করেছেন। যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের বেশির ভাগ ঘটনার জন্য সিরিয়া সরকারকে দায়ী করে তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ কিভাবে তৎপর রয়েছেন সেদিকে নজর দেওয়া উচিত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের।
এ সময় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেন, আসাদের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে এবং তার সমর্থনে সিরিয়ায় বিমান হামলা শুরু করে যুদ্ধের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া প্রেসিডেন্ট পুতিনের এখন কিছুটা হলেও এ ব্যাপারে উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত যে, প্রেসিডেন্ট আসাদ তার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে শান্তি আলোচনা ভ-ুল করতে পাঠিয়েছেন। অথচ এই শান্তি প্রক্রিয়া চালিয়ে যেতে পুতিন এমনকি ইরানও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছিল। এটি কঠিন বাস্তবতার সময়। আমাদের সবারই দায়িত্বশীল হওয়ার সময় এটি।
গত কয়েক মাসে কয়েকটি আন্তর্জাতিক এবং আঞ্চলিক শক্তির সমন্বিত ইন্টারন্যাশনাল সিরিয়ান সাপোর্ট গ্রুপের মধ্যে শান্তি আলোচনা নিয়ে একটি চুক্তি হয়েছে। শান্তির রোডম্যাপের পথে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে চুক্তিটি করা হয়। সিরিয়া সরকার এ চুক্তি অনুযায়ী কাজ করছে সেটি দেখানোর দায়িত্ব রাশিয়া এবং ইরানেরই, বলছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স।
উল্লেখ্য, সিরিয়ায় বিরাজমান যুদ্ধবিরতির মধ্যেই গত রোববার দেশটির বিদ্রোহীদের ছোড়া গুলিতে সরকারি বাহিনীর একটি জঙ্গি বিমান ভূপাতিত হয়। এ সময় বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অস্ত্রবিরতি চুক্তি লংঘনের অভিযোগ উঠে এবং জেনেভা শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠানের এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে আশংকা তৈরি হয়। বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন