ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে কড়া নিরাপত্তা

আজ শুরু হচ্ছে হিন্দুধর্মের বৃহত্তম উৎসব

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে রাজধানীসহ সারা দেশে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পুলিশ বলছে, কোনো হুমকি না থাকলেও কড়া নজরদারিতে আজ মঙ্গলবার ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে সারাদেশের ৩০ হাজার ৭৭টি মÐপে শুরু হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব। রাজধানীর ২৩১টি পূজামÐপে নেয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সব কয়টি মÐপে স্থাপন করা হয়েছে ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা, আর্চওয়ে দিয়ে দর্শনার্থীদের ভেতরে প্রবেশ করতে হবে।
প্রতিটি পূজামÐপের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ, আনসার, বিজিবি, র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। পুলিশ ও র‌্যাবের পাশাপাশি প্রতিটি মÐপে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী দায়িত্ব পালন করবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, গত বছরের মতো এবারও সারাদেশে শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। কোনো ধরনের নাশকতার আশঙ্কা নেই, তারপরও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে যেন এ উৎসব পালিত হয় এ জন্য প্রতি বছরের মতো এবারও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।
ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া পূজার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বলেছেন, পূজায় জঙ্গি হামলাসহ কোনো প্রকার নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই। তারপরও আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রেক্ষাপটে নাশকতার বিষয়টি মাথায় রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হয়েছে। গোয়েন্দা পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। প্রতিটি পূজামÐপে সিসিটিভি স্থাপন করা হয়েছে।
তিনি বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর ঢাকায় ৭টি পূজামÐপ বেড়েছে। ‘ক’, ‘খ’ ও ‘গ’ শ্রেণিতে রাজধানীর মোট ২৩১টি মÐপে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। ‘ক’ ক্যাটাগরিতে এবার রয়েছে ঢাকেশ্বরী মন্দির, রামকৃষ্ণ মিশন মন্দির, ধানমন্ডি পূজামÐপ ও গুলশানের সার্বজনীন পূজামÐপ।
পুলিশ কমিশনার আরো বলেন, গুরুত্বপূর্ণ ও বড় পূজামÐপে আর্চওয়ে বসানো হয়েছে। মÐপগুলোতে পুলিশ, র‌্যাব ও আনসারের পাশাপাশি নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীও দায়িত্ব পালন করবে। মন্দিরে ব্যাগ, ছুরি, কাঁচি ও কোনো ধরনের থলে আনা যাবে না।
দুর্গোৎসবে কোনো নিরাপত্তা হুমকি নেই বলে মন্তব্য করেন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলামও। তিনি বলেন, এবার পূজায় সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি নেই। তবে জাতীয় ও বৈশ্বিক কিছু প্রেক্ষাপট মাথায় রেখে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।
তিনি বলেন, উৎসবটা যাতে কোনোমতেই বিষাদে পরিণত না হতে পারে সে জন্য আমরা সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিচ্ছি। মÐপগুলোতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা গ্রহণ করা হবে, সতর্কতার কারণে মÐপের আশপাশে মেলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত সেন দীপু বলেন, জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে এবারের পূজা উদযাপন হবে বলে আশা করছি। তবে পূজার আনন্দের মধ্যেও রোহিঙ্গাদের সমস্যা নিয়ে আমরা একটু বিচলিত। ৪ লাখের বেশি মানুষ আমাদের দেশে আশ্রয় নিয়েছে। তারা যদি না খেয়ে থাকে, তাহলে এটি আমাদের জন্য আনন্দদায়ক হবে না। আমরা রোহিঙ্গাদের সাহায্যের জন্য কিছু উদ্যোগ নিয়েছি। এছাড়া ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনেকেই আমাদের কাছে রোহিঙ্গাদের জন্য আর্থিক সাহায্য পাঠাচ্ছেন।
দুর্গাপূজার সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি বলেন, এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপি, ডিএমপি কমিশনারদের সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয়েছে। পূজায় নিরাপত্তার ব্যাপারে তারা বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছেন। নিরাপত্তার ব্যাপারে আমাদের কোনো প্রশ্ন নেই। যতটুকু নিরাপত্তা দেয়া দরকার, সরকার তাই দিচ্ছে।
বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাপস কুমার পাল জানান, সারাদেশে এবার পূজা মÐপের সংখ্যা ৩০ হাজার ৭৭টি। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ২৯ হাজার ৩৯৫টি। গতবারের চেয়েও বেশি ৬৮২টি মÐপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রাজধানী ঢাকায় এবার পূজা হচ্ছে ২৩১টি, গত বছর এই সংখ্যা ছিল ২২৯। এ বছর দু’টি বেড়েছে। সবচেয়ে বেশি পূজামÐপ হচ্ছে চট্টগ্রামে ১ হাজার ৭৬৭টি। এরপর দিনাজপুরে ১ হাজার ২৪২। গোপালগঞ্জে পূজামÐপ হচ্ছে ১ হাজার ১৭৫টি।
আজ সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে কল্পারম্ভ এবং বিকাল ৪টায় বোধন আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসবের প্রথম দিন ষষ্ঠী পূজা সম্পন্ন হবে। এদিন সকাল থেকে চন্ডিপাঠে মুখরিত থাকবে প্রতিটি মন্ডপ। ২৭ সেপ্টেম্বর মহাসপ্তমী, ২৮ সেপ্টেম্বর মহাঅষ্টমী ও কুমারী পূজা, ২৯ সেপ্টেম্বর মহানবমী বিহিত পূজা এবং ৩০ সেপ্টেম্বর বিজয়া দশমী ও দর্পণ বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই উৎসব।
ঢাকেশ্বরী মন্দির মেলাঙ্গনে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন