ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

জাপানকে পাত্তাই দিলো না ভারত

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

হিরো এশিয়া কাপ হকি টুর্নামেন্টে জাপানকে পাত্তাই দিলো না শক্তিশালী ভারত। টুর্নামেন্টের দশম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে ভারতীয়রা বড় জয় তুলে নিয়েছে। গতকাল বিকালে মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে ‘এ’ গ্রæপের প্রথম ম্যাচে ভারত ৫-১ গোলে হারায় জাপানকে। বিজয়ীরা ম্যাচের প্রথমার্ধে ২-১ গোলে এগিয়ে থাকলেও ভারত বাকি দু’কোয়ার্টারে গোলসংখ্যা বাড়িয়ে নেয়। তৃতীয় কোয়ার্টারে দু’টি ও শেষ কোয়ার্টারে আরও এক গোল করে এশিয়া কাপের দু’বারের চ্যাম্পিয়নরা বাড়ায়।
ভারতের পাঁচটির মধ্যে পেনাল্টি কর্নার (পিসি) থেকে শেষ কোয়ার্টারে দুটি গোল করেন স্টপার হারমানপ্রিত সিং। সমরপ্রিত সুনিল, উপাধ্যায় ললিত ও রামানদ্বীপ সিং করেন একটি করে গোল। জাপানের হয়ে একমাত্র গোলটি শোধ দেন কিতাজাতু কেনজি। এর আগে মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তাফা কামাল। এসময় উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়, বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি ও বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার, এশিয়া হকি ফেডারেশনের (এএইচএফ) সিইও এবং আইওসির সদস্য তৈয়ব ইকরাম ও টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান শফিউল্লাহ আল মুনির।
খেলার শুরু থেকেই আক্রমণাতœক হকি খেলে ভারত। ফলে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। এসময় ভারত সমরপ্রিত সুনিল গোল করে দলকে এগিয়ে নেন (১-০)। পরের মিনিটে গোল করে ম্যাচ ফিরে প্রতিদ্বন্ধীতার আভাস দিয়েছিল জাপান। কিতাজাতো কেনজি জাপানের পক্ষে সমতাসূচক গোলটি করেন (১-১)। তবে সমতায় ফিরলেও ভারতের আক্রমণের ধারে আস্তে আস্তে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে জাপান। ফলে শেষ পর্যন্ত বড় ব্যবধানের হারই মেনে নিতে হয় তাদের। ৬ মিনিটে ললিতের গোলে ফের এগিয়ে যায় ভারত (২-১)। ম্যাচের শেষ দু’কোয়ার্টারেও ভারত এক চেটিয়া প্রাধান্য বিস্তার করে খেলে তিনটি গোল আদায় করে নেয়। ৩১ মিনিটে রামানদ্বীপ সিং (৩-১) গোল করার পর ৩৫ মিনিটে হারমানপ্রিত ভারতের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন (৪-১)। আর ম্যাচের ৪৮ মিনিটে এই হারমানপ্রিতই পঞ্চম গোল করলে বড় হার নিশ্চিত হয় জাপানের (৫-১)। আগামীকাল ‘এ’ পুলে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচের স্বাগতিক বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ভারত। অন্যদিকে জাপান খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে।
ম্যাচ শেষে ভারতীয় কোচ জয়ার্ড মারিজন বলেন, ‘ভারতের কোচ হিসেবে আমার প্রথম ম্যাচ থাকলেও দলের জয়ের দিকেই ছিল মনোযোগ। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ জিততে পেরে আমি সন্তুষ্ট। জাপান প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে হেরেছিল। আমরা প্রস্তুতি ম্যাচের ফলাফল গুরুত্ব দিয়ে দেখিনি। নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটাই খেলার চেষ্টা করেছি। তৃতীয় কোয়ার্টারে ৪-১ হয়ে যাওয়ার পর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ আমাদের কাছে চলে আসে। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ। তাই প্রথম কোয়ার্টারে খেলোয়াড়রা একটু উদ্বিগ্ন ছিল। সময়ের গড়িয়ে গেলে খেলোয়াড়রা নিজেদের মানিয়ে নেয়।’ তিনি যোগ করেন,‘পেনাল্টি কর্নারগুলো আমরা সদ্ব্যবহার করতে পেরেছি। পেনাল্টি কর্নারে আমাদের কম্বিনেশন যথেষ্ট ভালো হয়েছে। গোল ও জয় আতœবিশ্বাস বাড়ায়। দু’টোই পেয়েছি আমরা। এ ধারাবাহিকতা পরের ম্যাচেগুলোতেও থাকবে। বাংলাদেশের বিপক্ষেও এমন ফলাফল হবে আশা করি।’
জাপানী কোচ সিগফ্রেড ইকম্যান বলেন, ‘ম্যাচে আমাদের শুরুটা ভালোই ছিল। প্রথম কোয়ার্টারে ফলাফল ১-১ ছিল। খেলা যতই গড়িয়েছে ম্যাচে ভারতের নিয়ন্ত্রণ তত বেড়েছে। ২-১ ও ৩-১ হওয়ার পরেও আমরা ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছি। তৃতীয় কোয়ার্টার থেকে ব্যবধান বেড়ে যাওয়ায় আর ম্যাচে ফেরা হয়নি।’ তিনি আরও বলেন,‘ভারত কাউন্টার অ্যাটাকে খুবই ভালো দল। আমরা পরের ম্যাচে ভালো করার চেষ্টা করবো।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন