সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১০ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

বিয়ের আগে শারীরিক সম্পর্ক করা বিয়ে প্রসঙ্গে।

আতিফ
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৯:০৭ পিএম

প্রশ্নের বিবরণ : আমি বিয়ের আগে যে মেয়ের সাথে শারীরিক সম্পর্ক করেছি, তাকেই বিয়ে করেছি। আমার জিনা হয়েছে কি? বিয়ের পর আমি তওবা করেছি। এখন দ্বিধায় ভুগছি, কেননা আমার স্ত্রী পতিতা ছিল কিন্ত আমি জানতাম না। বিয়ের পরও আমার স্ত্রী টাকার বিনিময়ে শারীরিক সম্পর্ক করেছে অনেকবার, ধরা খাওয়ার পর এখন সে তওবা করেছে, এই পরিস্থিতিতে আমার কি করা উচিত?

উত্তর : বিবাহ পূর্ব মিলন অবশ্যই জিনা হয়েছে। এরপর বিবাহ শরীয়ত অনুযায়ী হয়ে থাকলে, এ বিবাহ শুদ্ধ হয়েছে। আপনাদের পূর্বকার গুনাহ, আল্লাহ ইচ্ছা করলে ক্ষমা করবেন। এজন্য আপনাদের সবসময় অনুতাপ, তওবা ও ইস্তেগফার প্রয়োজন। বর্তমানে আপনি জানতে পেরেছেন যে, আপনার স্ত্রী আগেই খারাপ ছিল, এমন খারাপ তো আপনিও ছিলেন। না হলে বিবাহের আগে আপনারা মিলিত হলে কী করে? তবে, এখনও আপনার স্ত্রী খারাপ রয়েছেন এ কথাটির ভিত্তি কি? আপনার সন্দেহ বা দাবী এর জন্য যথেষ্ট নয়। শরীয়ত এ ধরণের খারাপ কাজের জন্য যেরকম চাক্ষুস এবং যে পরিমাণ সাক্ষীর প্রয়োজন মনে করে, তেমন পাওয়া যাওয়া প্রায় অসম্ভব। সুতরাং আপনার স্ত্রীকে এভাবে অভিযুক্ত করা সঠিক কাজ নয়। আর কোনো নারী বাস্তবেই খারাপ করে থাকলে, তার বিবাহ ভেঙ্গে যায় না। আপনি যদি তার বিরুদ্ধে শরীয়তের চাহিদা পরিমাণ প্রমাণ দিতে না পারেন, তাহলে একজন নারীকে অপবাদ দেওয়ার জন্য শরীয়ত আপনাকে শাস্তি দিতে পারে। আর তিনি প্রকৃতই তওবা করে থাকলে তাকে আর কিছু বলা বা কৃত কাজের জন্য খোঁটা দেওয়া ঠিক হবে না। আল্লাহ তওবা কবুলকারী। উভয়ে মিলে এই তওবা ধরে রাখার এবং স্বাভাবিক জীবন চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে থাকুন।

উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন