রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ওবামাকে স্বাগত জানাতে অধীর কিউবা

দীর্ঘকালের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ঘোষণা দিতে পারেন ওবামা

প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ওবামার কিউবা সফর নিয়ে কমিউনিস্ট দেশটিতে সাজ সাজ রব পড়ে গেছে রাস্তাঘাটে শোভা পাচ্ছে ওবামা ও রাউলের ছবি সংবলিত ব্যানার ও ফেস্টুন। রোববার রাতে তার হাভানায় পৌঁছার কথা। সমাজতান্ত্রিক কিউবার সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করাই হবে ওবামার সফরের প্রধান লক্ষ্য। ১৯২৮ সালের পর এই প্রথম কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট কিউবা সফর করছেন।
নয় দশকের বৈরিতা, একটি ¯œায়ুযুদ্ধ- এসব ভুলে গিয়ে ওবামার সফর ঘিরে হাভানার পরিবেশ এখন অনেকটাই উৎসবমুখর। ১৯৫৯ সালে মার্কিন মদদপুষ্ট ফুলজেনসিও বাতিস্তা সরকারকে উৎখাত করে ফিদেল ক্যাস্ট্রো কমিউনিস্ট কিউবা প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশ দু’টির সম্পর্ক ছিলো শুধুই বৈরিতার। কিন্তু ওবামা তার পররাষ্ট্র নীতিতে বেশকিছু পরিবর্তন আনায় ওয়াশিংটন-কিউবা সম্পর্কের উন্নতির লক্ষণ দেখা দিয়েছে। রোববার তার কিউবা সফর হবে শান্তির দূত হিসেবে। মঙ্গলবার পর্যন্ত তিন দিনের এই সফরে দু’ দেশের মধ্যে সম্পর্কের অনেক নতুন দুয়ার খুলে যেতে পারে।
নিউইয়র্ক হেরাল্ড ট্রিবিউন শনিবার রিপোর্ট করেছে, ওবামাকে স্বাগত জানাতে কিউবাবাসী অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে, রাস্তাঘাটে অভাবনীয় দৃশ্যের অবতারণা ঘটেছে। সাংবাদিক বেভারলি স্মিথ লেখেন, ওবামা পৌঁছেছেন এবং তার মোটর শোভাযাত্রার দু’ পাশে কিউবানরা উড়ন্ত চুমু ও ফুল ছুড়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাচ্ছেন।
২০১৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর দুই দেশের প্রেসিডেন্টের এক যৌথ ঘোষণায় উষ্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলার অঙ্গীকার করা হয়। দুই দেশের মধ্যে সরাসরি চিঠি যোগাযোগ গড়ে তোলার সিদ্ধান্তও নেয়া হয়। ৮৮ বছর আগে ১৯২৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ক্যালভিন কুলিজ প্রথমবারের মতো কিউবা সফর করেন। এই সফরে ওবামা কিউবার প্রেসিডেন্ট রাউল ক্যাস্ট্রোর সঙ্গে বৈঠক করবেন। তবে তিনি কিউবার কিংবদন্তী নেতা ফিদেল কাস্ট্রোর সঙ্গে বৈঠক করবেন না। এছাড়া তিনি বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তিনি কিউবার মানবাধিকার পরিস্থিতি উন্নয়নের ব্যাপারে গুরুত্ব দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে। দুই দেশের গণমাধ্যমে এই সফর ব্যাপক গুরুত্ব পাচ্ছে। দুই দেশের জনগণই চায় তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে। যুক্তরাষ্ট্র ধীরে ধীরে কিউবার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে পারে। এরকম ঘোষণা প্রেসিডেন্ট ওবামার বক্তব্যেও আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে কিউবার ওপর থেকে কিছু নিষেধাজ্ঞা তুলেও নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সফরে প্রেসিডেন্ট ওবামার সঙ্গে স্ত্রী মিশেল ওবামা, মেয়ে শাসা এবং মালিয়াও রয়েছেন। ডন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps