ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ট্রাম্পের সাবেক স্ত্রী মার্লার সঙ্গে দেহরক্ষীর যৌন সম্পর্ক ফাঁস

প্রকাশের সময় : ৪ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ৯:১৪ এএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮

ইনকিলাব ডেস্ক : সুদর্শন যুবক। মার্শাল আর্টে পারদর্শী। তার ওপর আবার কথাবর্তায় পটু। এমন ব্যক্তির ওপর আকর্ষণ যে থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই আকর্ষণ যদি হয় ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রীর তাহলে সমস্যা বৈকি। আর এমন এক সমস্যাতেই ক্যারিয়ার ডুবেছিল স্পেনসার ওয়াগনারের। ডোনাল্ড ট্রাম্পের বডিগার্ডের দায়িত্ব সামলানোর সময় তারই সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন বলে জানিয়েছিলেন স্পেনসার। সম্প্রতি স্পেনসারের স্ত্রী মেরি মিলারের একটি সাক্ষাৎকারে এসব অজানা ঘটনার রহস্য প্রকাশ পায়। ১৯৯৩ সালে তৎকালীন অভিনেত্রী সুন্দরী মার্লা ম্যাপলসকে বিয়ে করেন বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। তখন ট্রাম্পের দেহরক্ষীর কাজে নিযুক্ত ছিলেন স্পেনসার ওয়াগনার। বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই স্পেনসারের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন মার্লা। পার্টি করতে ভীষণ ভালোবাসতেন তিনি। আর মনিবের স্ত্রী যাতে কোন সমস্যায় না পড়েন তা দেখতে হতো স্পেনসারকেই। অনেক রাত পর্যন্ত পার্টি করার পর অধিকাংশ দিনই স্পেনসারই মার্লাকে সুরক্ষিতভাবে বাড়ি পৌঁছে দিতেন। এরমধ্যেই স্পেনসারের প্রতি আকর্ষণ বাড়ছিল মার্লার। ১৯৯৬ সালের ১৬ এপ্রিল ফ্লোরিডার পাম বিচে দু’জনকে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে টহলরত কিছু পুলিশ।
প্রথমে থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে আসল পরিচয় জানার পর ফাইন নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় তাদের। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। দাবানলের মতো খবর ছড়িয়ে পড়ে লোকের মুখে মুখে। সঙ্গে সুযোগ-সন্ধানী সাংবাদিকরাও পেছনে পড়ে থাকেন ট্রাম্পের পরিবার এবং স্পেনসারের পেছনে। কিন্তু দু’জনেই তখন নিজেদের সম্পর্ক অস্বীকার করেন। ঘটনার ৪ মাস বাদে চাকরি যায় স্পেনসারের। এবং এক বছর বাদে আলাদা হয়ে যান মার্লা এবং ট্রাম্প। বছর তিনেক বাদে ডিভোর্স হয় তাদের। প্রভাবশালী ট্রাম্পের কাছ থেকে চাকরি যাওয়ার পর আর কেউই স্পেনসারকে চাকরি দিতে রাজি ছিলেন না। ফলে বেকার হয়ে পড়েন তিনি। তেমনই এক সময় মুখ ফস্কে নিজেদের সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন স্পেনসার। তিনি জানিয়েছিলেন, মার্লা রীতিমতো তার প্রতি আসক্ত ছিলেন। বহুবার তাদের মধ্যে যৌন সম্পর্ক হয়েছে। যদিও স্পেনসারের স্ত্রী মেরি এর সত্যতা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। ডেইলি মেইল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন