ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারত থেকে ফিরে এলো ১১ বাংলাদেশী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ১২:০৬ এএম


গতকাল ভারত থেকে পৃথক ঘটনায় এগারোজন বাংলাদেশী দেশে ফিরে এসেছে । এদের মধ্যে বাংলাবান্ধায় সীমান্ত ৬ কিশোরী ও বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ৪ কিশোর ও এক কিশোরী ফিরে এসেছে। আমাদের সংবাদাতাদের পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন:

তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) জানায় : গতকাল রোববার দুপুরে বিজিবি বিএসএফের সহযোগিতায় ৬ কিশোরীকে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে এনজিও প্রতিষ্ঠান ব্র্যাকের মাধ্যমে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। ওই কিশোরীদের কেউ এক বছর, কেউ ৪ বছর আবার কেউ থেকে ৭ বছর আগে পাচার হয়েছিল। গতকাল রোববার দুপুরে বাংলাবান্ধা সীমান্তের জিরো পয়েন্টে ওই কিশোরীদের বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ সময় বিজিবি ও পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশনে আইনগত প্রয়োজনীয় কাজ শেষে তেঁতুলিয়া থানা পুলিশ ওই কিশোরীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানায় পুলিশ।

জানা যায়, চাকুরিসহ বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীদের ভারতে পাচার করা হয়। পরে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের শিলংয়ের ইমপাল্স এনজিও নেটওয়ার্ক নামের একটি এনজিও প্রতিষ্ঠান এক বছর আগে ওই ৬ কিশোরীকে উদ্ধার করে চেন্নাইয়ের একটি সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে হস্তান্তর করে। পরে ওই এনজিও প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশের এনজিও প্রতিষ্ঠান ব্র্যাক এর সহযোগিতায় ওই কিশোরীদের নাম পরিচয় ও ঠিকানা নিশ্চিত করা হয়। দীর্ঘদিন পরে সন্তানদের ফিরে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন তাদের অভিভাবকরা।

বেনাপোল অফিস : ভারতে এক বছর কারাভোগের পর ৫ বাংলাদেশী কিশোর কিশোরীকে গত শনিবার রাতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশে হস্থান্তর করেছে বিএসএফ। ফেরত আসাদের মধ্যে ৪ কিশোর ও ১ কিশোরী রয়েছে। এরা স্বদেশ প্রত্যাবর্তন এর মাধ্যমে দেশে ফেরত এসছে।

ভারতের পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্প কমান্ডার এসআই কাপুর ডাং তাদেরকে বেনাপোল আইসিপি বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আতিয়ার রহমানের হাতে তুলে দেয়। ফেরত আসা বাংলাদেশি কিশোররা হচ্ছে সাতক্ষীরার আবু রায়হান(১৬),যশোরের শার্শার আপন (১৪), চাপাই নবাবগঞ্জের সেলিম (১৫), নড়াইলের রাব্বী (১৪) ও কিশোরী ঝিনাইদহের শাহানা খাতুন (১৫)।

আইসিপি ক্যাম্পের সুবেদার বাকিবিল্লাহ জানান, ভালো কাজের আশায় দেড় বছর আগে এসব বাংলাদেশি কিশোর-কিশোরী দালালের খপ্পরে পড়ে সীমান্ত পথে ভারতে যায়। এ সময় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতীয় পুলিশ তাদের কলকাতা শহর থেকে আটক করে। পরে তাদের ১ বছর সাজা হয়ে যায়। সাজার মেয়াদ শেষে কলকাতার বারসাত কিশোরালায়ে নামে একটি শেল্টার হোমে তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। পরে দু’দেশের মন্ত্রনালয়ের হস্তক্ষেপে তাদেরকে দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়। বিজিবি ক্যাম্পের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন