ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

‘বাপ-দাদার ভূমি ছাড়ব না যতই মূল্য দিতে হোক’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

কয়েক প্রজন্ম ধরে জর্ডান উপত্যকায় বসবাস করছেন ফিলিস্তিনি চাষিরা। সুফলা এই ভ‚মিতে চাষাবাদ করেই জীবিকা নির্বাহ হচ্ছে তাদের। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এবার সেই ভ‚খÐকে অবৈধ রাষ্ট্রটিতে অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। কিন্তু ফিলিস্তিনি চাষিরা বলছেন, তারা কখনই এই উপত্যকাকে ছাড়বেন না। জিফটলিক গ্রামের ৫৫ বছর বয়সী কৃষক হাসসান আল আবেদিও সেই দাবি করেন। তিনি বলেন, আমরা নেতানিয়াহু ও তার ভক্তদের বলছি- তোমরা কখনই আমাদের ইচ্ছাশক্তিকে ভাঙতে পারবে না, কখনও না, কখনই না। ‘এটি আমাদের বাপ-দাদাদের ভ‚মি। যতই ম‚ল্য দিতে হোক না কেন, কখনই তা ছাড়ব না।’ মঙ্গলবার কট্টরপন্থী নেতানিয়াহু ঘোষণা করেন, আগামী ১৭ সেপ্টেম্বরের পুনর্র্নিবাচনের কঠিন প্রতিদ্ব›িদ্বতায় বিজয়ী হতে পারলে জর্ডান উপত্যকা ও তার নিকটবর্তী মৃতসাগরের উত্তরাঞ্চলে ইসরাইলি সার্বভৌমত্ব আরোপের পরিকল্পনা নিয়েছেন তিনি। আরব বিশ্ব ও ফিলিস্তিনি নেতারা তার এই পরিকল্পনার নিন্দা জানিয়েছেন। অধিকৃত পশ্চিমতীর ও অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা নিয়ে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চান তারা। নেতানিয়াহুর ওই পরিকল্পনায় আন্তর্জাতিক আইনের মারাত্মক লঙ্ঘন ঘটবে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। ফিলিস্তিনি নেতৃবৃন্দ বলছেন, নব্বইয়ের দশক থেকে নিরাপত্তা সহযোগিতাসহ দুপক্ষের মধ্যে বিভিন্ন শান্তিচুক্তি ও তার বাধ্যবাধকতা এতে অকার্যকর হয়ে যাবে। প‚র্বে জর্ডানের বিচ্ছিন্ন পর্বতমালার পটভ‚মিতে ফিলিস্তিনি চাষিরা তাদের ফসল আবাদ করেন। তারা এখন নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। আরিহা শহর ও জর্ডান নদী বাইবেলে বর্ণিত অতীতের কথা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে। যে কারণে তাদের আতঙ্ক এখন চরমে। রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
সৌদির যুবরাজ হল দুনিয়ার প্রথম দজজাল,এই ইহুদি মুসলমানের শত্রু কাফের
Total Reply(0)
Bashir Chowdhury ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৫ এএম says : 0
Allah will bless u
Total Reply(0)
Md Shohag Mulla ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৬ এএম says : 0
আল্লাহ মহান আল্লাহ সর্বশক্তিমান
Total Reply(0)
মানুষ আমি বিবেকবান ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৬ এএম says : 0
আল্লাহ আপনাদের সহায় আছে
Total Reply(0)
Moinuddin Mozumder ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৬ এএম says : 0
Jodi monobol thake otutt soto protibondhokotar majheooo alor sondhan khuje pawa jabee.
Total Reply(0)
Fatima Zannat Kochi ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
হায়াত রেখেছেন যিনি, রিজিকের ব্যাবস্থা ও করে দেন তিনিই। সকল মজলুমানের সহায় তিনি!!
Total Reply(0)
শরতের কাশফুল ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
মুসলমানদের কেউ কখনো দামাতে পারে নাই আর পারবে ও না কখনো ,
Total Reply(0)
Asaduzzaman Rana ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
সৌদিআরব তো নেতানিয়াহু কে সমর্থন দেয়।আমরা কি করব?
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন