ঢাকা, শুক্রবার , ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

হংকংয়ে বহিঃসমর্পণ বিল প্রত্যাহার সরানো হতে পারে ক্যারি লামকে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

মূলভূখন্ড চীনে বহিঃসমর্পণের সুযোগ রেখে করা প্রস্তাবিত বিলটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যাহার করে নিয়েছে হংকংয়ের আইনসভা। বুধবার হংকংয়ের পার্লামেন্টের এ পদক্ষেপে গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীদের পাঁচ দফা দাবির একটি পূরণ হল, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। তবে এরপরও শহরটিতে প্রায় পাঁচ মাস ধরে চলা অস্থিরতার অবসান হবে না বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের। আন্দোলনকারীদের দাবির মধ্যে আরও আছে- এতদিন ধরে চলে আসা প্রতিবাদ কর্মস‚চিকে ‘দাঙ্গা’ হিসেবে অভিহিত না করা, গ্রেপ্তারদের নিঃশর্ত মুক্তি ও ক্ষমা, বিক্ষোভে পুলিশি বর্বরতার নিরপেক্ষ তদন্ত এবং সার্বজনীন ভোটাধিকার নিশ্চিত করা। চার মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এ আন্দোলনে প্রতিবাদকারীরা চীন-শাসিত নগরীটির অসংখ্য সরকারি ভবন ভাংচুর করেছে ও পুলিশের দিকে পেট্রল বোমা ছুঁড়েছে। অপর এক খবরে বলা হয়, চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নিতে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। অঞ্চলটিতে টানা বিক্ষোভের জেরে এমন সিদ্ধান্তের পথে পা বাড়াচ্ছে বেইজিং। যদিও এর আগে চলতি বছরের জুলাইয়ের দিকে লাম নিজ থেকে সরে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেসময় ‘সবুজ সংকেত’ না মেলায় তার ইচ্ছে অপ‚র্ণ থেকে যায়। বুধবার ফিনান্সিয়াল টাইমসের বরাতে এ তথ্য জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো। খবরে বলা হয়, ক্যারি লামকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে চীন। তার পরিবর্তে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী হিসেবে অন্য কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। হংকংয়ে টানা আন্দোলন-সহিংসতার পর তাকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনার বিষয়টি সামনে এলো। এর মাধ্যমে চীন হংকংয়ের ওপর আরও বেশি কতৃত্ব জোরদার করতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিবিসি বলছে, বিতর্কিত যে বিলটিকে ঘিরে এ আন্দোলন শুরু হয়েছিল, তাতে চীনের ম‚লভ‚খন্ড, ম্যাকাউ কিংবা তাইওয়ানে কোনো মামলায় অভিযুক্ত হংকংয়ের বাসিন্দাদের সেখানে বহিঃসমর্পণের সুযোগ রাখার প্রস্তাব করা হয়েছিল। বিলটি আইনে পরিণত হলে, হংকংয়ের বাসিন্দারা চীনের ‘নির্বিচার আটক ও অন্যায় বিচারব্যবস্থার’ জালে আটকা পড়ত বলে শঙ্কা ছিল সমালোচকদের। তুমুল আন্দোলনের মুখে শহরটির প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম বিলটি স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েও বিক্ষোভকারীদের শান্ত করতে পারেননি। ‘পাঁচ দাবি, একটিও কম নয়’ শ্লোগানে বিক্ষোভকারীরা তাদের আকাক্সক্ষার কথা বারবারই জানিয়ে এসেছে। ১৯৯৭ সালে চীন ব্রিটিশদের কাছ থেকে হংকংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকে শহরটিতে এ ধরনের সহিংসতা ও বিক্ষোভ আর দেখা যায়নি। রয়টার্স, ফিনান্সিসিয়াল টাইমস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন