ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পবিত্র কুরআনে হস্তক্ষেপ করতে যাচ্ছে চীন!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৪:৪৪ পিএম

মুসলিমদের পবিত্র ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআন শরীফসহ সব ধর্মীয় গ্রন্থ নতুন করে লেখার পরিকল্পনা করছে চীন। দেশটির ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির সমাজতান্ত্রিক মতাদর্শের আদলে ধর্মগ্রন্থগুলো পুনর্লিখনের বিষয়ে গত নভেম্বরে দলটির জাতিতত্ত্ব বিষয়ক কমিটির এক সভায় এ পরিকল্পনা করা হয়।

গত বুধবার তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, কোরআন ও বাইবেলের উল্লেখ সরাসরি না করলেও চীনের ওই কমিটি সব ধর্মগ্রন্থের পুনর্লিখনের জন্য বিস্তৃত পর্যালোচনার পরিকল্পনা করছে।

বর্তমানের সঙ্গে ধর্মগ্রন্থের যেসব উপাদান সমাজতান্ত্রিক মতাদর্শের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়, সেসবে পরিবর্তন আনা হবে। এতে সমাজতন্ত্রের সঙ্গে কোনো সাংঘর্ষিক তথ্য থাকবে না। দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের শাসনামলের সঙ্গে এসব ধর্মগ্রন্থকে সামঞ্জস্যপূর্ণ করা দরকার বলে জানিয়েছে ওই কমিটি। পুনর্লিখিত সংস্করণে সমাজতন্ত্রের ভাবাদর্শের সঙ্গে সাংঘর্ষিক কোনো ধরনের উপাদান থাকলে সেসব সেন্সর বোর্ড সংশোধন করবে। নতুন সংস্করণে রাখা হবে না এমন কোনো বিষয়বস্তু, যা ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির বিশ্বাসের বিরুদ্ধে যায়।

চীনের সরকারি সংবাদসংস্থা সিনহুয়া’র প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মাসে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ১৬ জন বিশেষজ্ঞ ও বিভিন্ন ধর্মের প্রতিনিধিদের একটি দল এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছিল। সম্মেলনটির তত্ত্বাবধানে চীন সরকারের পলিটিক্যাল কনস্যুলেটিভ কনফারেন্সের চেয়ারম্যান ওয়াং ইয়াং। ওই বৈঠকে বিশেষজ্ঞ এবং কমিটির প্রতিনিধিদের বলা হয়েছে, সমাজতন্ত্রের মৌলিক মূল্যবোধের সঙ্গে মিল রেখে তাদের বিশ্বাসকে ব্যাখ্যা করার জন্য ধর্মগ্রন্থের পুনর্লিখিত সংস্করণে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আদেশ অনুসরণ করতে হবে।

এ বিষয়ে ওয়াং জোর দিয়ে বলেছেন যে, ধর্মীয় কর্তৃপক্ষকে বাধ্যতামূলকভাবে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে এবং ‘সমাজতন্ত্রের মূল্যবোধ’ এবং ‘যুগের প্রয়োজনীয়তা’ অনুসারে ধর্মীয় আদর্শের ব্যাখ্যা করতে হবে। এছাড়াও তিনি ‘চীনা বৈশিষ্ট্যযুক্ত একটি ধর্মীয় ব্যবস্থা’ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

চীনের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের বন্দি শিবিরে আটকে রেখে যখন মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং নিপীড়নের অভিযোগে বিশ্বের বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও দেশ সমালোচনা করছে, তখন ধর্মীয় সব গ্রন্থ পুনর্লিখনের এই পরিকল্পনার তথ্য এলো।

জাতিসংঘের দেয়া তথ্যমতে, জিনজিয়াং প্রদেশে চীন ১০ লাখের বেশি উইঘুর মুসলিমকে আটকে রেখেছে। তবে দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার বলছে, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় উইঘুর মুসলিমদের কারিগরি প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। সূত্র: ডেইলি মেইল।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (45)
FoyZul Islam ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:০৪ পিএম says : 2
চীন ধংস হয়ে যাবে আব্রাহামের মত।
Total Reply(0)
মোহাম্মদ আরিফুল হাসান কক্সবাজার ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪৮ পিএম says : 1
চিন্তার কোন কার নেই? কারন আল্লাহতালা কোরআন হেফাজতের দায়িত্ব কোন মুমিনকে দেন নাই, তিনি নিজেই রেখেছেন। নিশ্চয় তিনি সব দেখেন সব শুনেন
Total Reply(0)
Farhan Ahmed ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪৯ পিএম says : 1
It's sure they are going to be ended very soon. Because we saw with my own eyes there were so many nations they finished forever.
Total Reply(0)
jack ali ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:২৩ পিএম says : 2
O'Allah [SWT] these Chinese ibless is going the chnage your Qur'an.... O' Allah destroy them.. O' Allah destroy them.. O'Allah destroy them...... Ameen
Total Reply(1)
Md. Yeakub Ali ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৫৯ এএম says : 4
AMIN
Shamim ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪১ পিএম says : 2
ইনশাআল্লাহ অবশ্য চীন বংশ হবে۔۔যে ধ্বংসের ক্ষতি দাঁড়াবে অনেক ভয়াবহ ۔এর মাধ্যমে বুঝা যায় যায় যে পৃথিবী ধ্বংসের মুখে ۔۔আল্লাহ কোরআন কে আপনি হেফাজত করুন ۔আমিন
Total Reply(0)
Md.Shahanshah ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:৫০ পিএম says : 1
হে কাবা রক্ষা করার আল্লাহ আপনি আপনার আলকোরান রক্ষা করুন।
Total Reply(0)
FoyZul Islam ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:০৩ পিএম says : 2
চীন ধংস হয়ে যাবে।
Total Reply(0)
আমিনুল ইসলাম ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৭:০৫ পিএম says : 1
নাউযুবিল্লাহ,
Total Reply(0)
আমিনুল ইসলাম ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৭:০৫ পিএম says : 1
নাউযুবিল্লাহ,
Total Reply(0)
Shamim ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪১ পিএম says : 2
ইনশাআল্লাহ অবশ্য চীন বংশ হবে۔۔যে ধ্বংসের ক্ষতি দাঁড়াবে অনেক ভয়াবহ ۔এর মাধ্যমে বুঝা যায় যায় যে পৃথিবী ধ্বংসের মুখে ۔۔আল্লাহ কোরআন কে আপনি হেফাজত করুন ۔আমিন
Total Reply(0)
Farhan Ahmed ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৪৯ পিএম says : 1
It's sure they are going to be ended very soon. Because we saw with my own eyes there were so many nations they finished forever.
Total Reply(0)
মোঃ জহিরুল ইসলাম ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৮:৫১ পিএম says : 2
চীন আগুন নিয়ে খেলা শুরু করেছে,যে আগুনে পুড়ে একদম নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। সুতরাং সাবধান হয়ে যান।
Total Reply(0)
MD Rashed ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:১২ পিএম says : 1
কুরআন যারা ভুল ধরতে গেলো ইতিহাস বলে সবাই মুসলমান হয়ে গেছে । আমরা চাই চায়না সব লোক মুসলমান হয়ে যাক ।
Total Reply(1)
Md. Yeakub Ali ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ পিএম says : 4
YEAS
HOSSAIN ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:২১ পিএম says : 1
All Non-Muslims are together in One Bracket(), and against Muslims. Non-Muslims have different agendas in the different Countries, but Targets are Same, the Muslims. MAY ALMIGHTY ALLAH (SWT) SAVES THE HOLY QURAN-UL-KARIM from jalims, INSHA-ALLAH.
Total Reply(0)
HOSSAIN ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:২১ পিএম says : 1
All Non-Muslims are together in One Bracket(), and against Muslims. Non-Muslims have different agendas in the different Countries, but Targets are Same, the Muslims. MAY ALMIGHTY ALLAH (SWT) SAVES THE HOLY QURAN-UL-KARIM from jalims, INSHA-ALLAH.
Total Reply(0)
HOSSAIN ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:২১ পিএম says : 1
All Non-Muslims are together in One Bracket(), and against Muslims. Non-Muslims have different agendas in the different Countries, but Targets are Same, the Muslims. MAY ALMIGHTY ALLAH (SWT) SAVES THE HOLY QURAN-UL-KARIM from jalims, INSHA-ALLAH.
Total Reply(0)
হাফেজ মুহম্মাদ আঃকারিম ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১২ পিএম says : 1
নারে তাগবীর
Total Reply(0)
হাফেজ মুহম্মাদ আঃকারিম ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১২ পিএম says : 1
নারে তাগবীর
Total Reply(0)
হাফেজ মুহম্মাদ আঃকারিম ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১২ পিএম says : 1
নারে তাগবীর
Total Reply(0)
হাফেজ মুহম্মাদ আঃকারিম ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:১২ পিএম says : 1
নারে তাগবীর
Total Reply(0)
সাইদুর রাহমান সাঈদ ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:০৮ পিএম says : 1
In Sha Allah , Chin will be ruined to dust, so don`t ever dare to think to change anything from Quran. this will be suicide attempt for chin. Look at the Sky He is so powerful. Omnipotent. He has power over everything. certainly Allah (SWT)will protect Quran, even unbeliever does not like.
Total Reply(0)
Anonymous ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:২০ এএম says : 1
China nijer motp Quran banalo ki banalo na tate ki eshe jai. Ota k follow kortese
Total Reply(0)
আব্দুল বাছিত ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:৩১ পিএম says : 1
চিন্তার কোন কার নেই? কারন আল্লাহতালা কোরআন হেফাজতের দায়িত্ব কোন মুমিনকে দেন নাই, তিনি নিজেই রেখেছেন। নিশ্চয় তিনি সব দেখেন সব শুনেন
Total Reply(0)
Md Abul Kalam ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:২০ পিএম says : 1
ইয়া আল্লাহ তুমি তোমার পবিত্রগ্রন্থ আল কোরআন কে হেফাজত কর। তোমার ওয়াদা তুমি পুরণ করবে এইটাই আমার ও আমাদের দৃঢ় বিশ্বা। চীনের এই শাসক কে তুমি ধবংস কর, যেই ভাবেই করেছ হাতিওয়ালাদের কে। আমিন।
Total Reply(0)
AbdulGaffarHossain ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০৯ পিএম says : 1
আল্লাহ গজব নেমে আসবে ইনশাআল্লাহ লিখতে তো পারবি না শুধু ধংশের লিলা খেলা শুরু হবে
Total Reply(0)
ইলিয়াস ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৪:০০ পিএম says : 0
হাতী ঘোড়া গেল তল - পিঁপড়া বলে কত জল! আগুন নিয়ে খেলা শুরু করেছে নাস্তিক চায়নার দল , যেই আগুনে কম্যুনিস্টদের লেংগুট পুড়ে যাবে।
Total Reply(0)
milon ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:৫৬ এএম says : 1
allah er kothin sasthi diben in sha allah.
Total Reply(0)
সাব্বির আহমেদ ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৩ এএম says : 1
মুসলিম বিশ্বের অবশ্যই চীনের বিরুদ্ধে জোরালো প্রতিবাদ করতে হবে
Total Reply(0)
মোঃ আশরাফ-উল-আলম ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৭:২৭ এএম says : 0
এখনই প্রতিবাদের সময়।চীন এটা করতে সাহস পাচ্ছে মুসলমানদের চুপ থাকার কারনে।জাগো মুসলিম জাগো।
Total Reply(0)
Sohrab hosain valuka ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৭:৪৭ পিএম says : 0
মহান আল্লাহতালা একমাত্র রক্ষার মালিক
Total Reply(0)
Miah Muhammad Adel ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:৩৮ পিএম says : 0
"পিপীলিকার পক্ষ উঠে মরিবার তরে।"
Total Reply(0)
Bari ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৩৩ এএম says : 0
চীন ধংস হয়ে যাবে ইনশাল্লাহ, আল কোরআন এ হাত দিলে । আমেরিকার আগেই ধবংস হবে । আসলে চীন এখন সবচেয়ে বেশি ইসলাম বিরোধী দেশ পৃথিবীতে। চীনের শাসকদের ত্যাগ করা উচিত মুসলিমদের।
Total Reply(0)
আব্দুর রব ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৪:২৮ পিএম says : 0
চিন মুসলমানদের উপর যে দমন-পীড়ন শুরু করেছে তারি ধ্বংসের পরিণতি হবে কোরআনের উপরে হাত দিয়ে।
Total Reply(0)
শাহ আংগুর ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:৩৭ পিএম says : 0
বর্তমান দুনিয়ায় চারটি দেশ বা রাষ্ট্র প্রধান ইসলাম ,কুরআন,মসজিদ,মুসলমা,ধ্বংসে তাদের সর্বস্ব নিয়োগ করতেছে,১; ইসরাইল,২;ভারত(নরেন্দ্র মুদী)৩;চীন৪;(————)অন্য দিকে বেশ কয়েকটি রাষ্ট্র মুসলমান মুসলমানের মধ্যে বেদাবেদ শৃষ্ট্রির কাজে অর্থবিনিয়োগ সহ সর্বদিক এ ব্যস্হ আছে।আল্লাহ পাক মুসলমানদের হেফাজত করুন,আমিন।
Total Reply(0)
MD. SHAFIUR RAHMAN ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০৬ পিএম says : 0
পবিত্র কোরানুল মজিদের উপর হাত দিলে ওরা দ্বংশ হয়ে যাবে । এটা মানুষের তৈরী না মানুষ মহান আল্লাহর সৃষ্টি আল্লাহ যেকোন মূহুত্বে সব কিছু ধ্বংশ করে দিতে পারে । ইনশাআল্লাহ ওরাও দ্বংশ হবে ।
Total Reply(0)
kausar alam ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১৯ পিএম says : 0
সব গ্রন্থ পারলেও কোরআন পারবে না ইনশাআল্লাহ। কারন কোরআনের হেফাজতকারী আল্লাহ নিজেই।
Total Reply(0)
shaik ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৪:৫৯ এএম says : 0
Ai ........... DHONGSHO hok. Hobay e kono sondheo nai. Mohan Allah Bolen QURAN ami Nazil koray si, ami e Rokkha korbo. Ai .............. Dhongsho hok..ameen
Total Reply(0)
ABUL HOSSAIN ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:১৪ এএম says : 0
INSHA ALLAH NOBODY CAN DO THIS. FAILURE AND DESTROY COMING SOON. FOR THEM.THEY HAVE VERY LIMIITED KNOWLEDGE ABOUT AL QURAN. I SAID BECAREFUL.
Total Reply(0)
md Shohidul Islam ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৯ পিএম says : 0
এই মাথা মোটা ইয়াজুজ মাজুজের দল কোরআন পরিবর্তন তো করতেই পারবেনা বরং তাদের মধ্যে অনেকেই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করবে ইনশাআল্লাহ।
Total Reply(0)
mohammad Altaf Hossain ১ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:৩০ এএম says : 0
সব গ্রন্থ পারলেও কোরআন পারবে না ইনশাআল্লাহ। কারন কোরআনের হেফাজতকারী আল্লাহ নিজেই।
Total Reply(0)
Saiful Islam ১ জানুয়ারি, ২০২০, ৫:০৩ পিএম says : 0
সব গ্রন্থ পারলেও কোরআন পারবে না ইনশাআল্লাহ। কারন কোরআনের হেফাজতকারী আল্লাহ নিজেই।
Total Reply(0)
Md nasir ২৩ মার্চ, ২০২০, ৯:৩৯ পিএম says : 0
আল্লাহর কোরয়ানে হাত দেওয়ার যে দুসাহাস করেছিল চীন,তারি পরিনাম আজ ভোগ করছে বিশ্ব,করোনা নামে।
Total Reply(0)
Samrat Hossain Sohan ৮ মে, ২০২০, ৮:৩৮ পিএম says : 0
ইতিমধ্যে আমরা প্রমাণ পেয়েছি চীনেই প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় আজ সারাবিশ্ব এই ভাইরাসের দায় চীনের দিকেই দিচ্ছে প্রথমে তারাই আক্রান্ত হয়েছে
Total Reply(0)
রাজা ১৫ জুলাই, ২০২০, ২:১৩ এএম says : 0
চীনের মরার সময় খুবই কাছে এসছে, তাই এত ধরপর করতেছে।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন