ঢাকা সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১০ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জনমনে আস্থা ফিরিয়ে আনাই সরকারের এখন বড় চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশ মুসলিম লীগ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০২০, ১২:০১ এএম

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর (অব) সিনহা পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার ঘটনায় বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড ইস্যুতে গোটা পুলিশ প্রশাসন তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে। করোনা মহামারী মোকাবেলায় পুলিশ প্রশাসনের মৃত্যুভয়কে পরোয়া না করে, সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে দায়িত্ব পালনের অসাধারণ ভূমিকাকেও যা ম্লান করে দিয়েছে। সত্যিকার অর্থে গুম, খুন, বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড, সীমাহীন দুর্নীতি, একদলীয় গণতন্ত্র, বিরোধী দলকে বিকল করে রাখা, ভোটার বিহীন নির্বাচন, রাতের আধারে ভোট হয়ে যাওয়া, মত প্রকাশে স্বাধীনতার অভাব ইত্যাদি কারণে সাধারণ জনগণের মনে রাজনীতি ও সমাজ ব্যবস্থার প্রতি এক ধরণের নিঃস্পৃহতা ও বিরাগ তৈরি হয়েছে। জনমনে আস্থা ফিরিয়ে আনাই সরকারের জন্য এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

গতকাল শনিবার দুপুরে বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ৪৫তম পুর্নঃগঠন দিবসে পদার্পণ উপলক্ষে পল্টনস্থ প্রধান কার্যালয়ে দলীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে আয়োজিত এ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন দলীয় মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, স্থায়ী কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন আবুড়ী, অতিঃ মহাসচিব আকবর হোসেন পাঠান, কাজী এ.এ কাফী, খান আসাদ, নজরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার ওসমান গনী, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান, মো. নূর আলম, আব্দুল আলিম ও আব্দুর রহমান।
নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা মহামারী ও বন্যা জনিত কারণে সৃষ্ট চলমান অর্থনৈতিক সঙ্কট, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা, চাকরিচ্যুতি, বেকারত্বের কারণে জনমনে তীব্র হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। সরকারের উচিত তৎপরতার সাথে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে জনমনে আস্থা ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করা।
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, রাজনৈতিক, সামাজিক ও প্রাকৃতিক বহুমুখী সঙ্কটের মোকাবেলায় নিরবিচ্ছিণ্ণ জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন। বিভিন্ন মহল থেকে বারংবার সর্বদলীয় ও বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি জাতীয় উপদেষ্টা পরিষদ গঠনের প্রস্তাবকে সরকার অজানা কারণে গ্রাহ্য করছে না। এ বিষয়ে সরকারকে অবিলম্বে একটি সর্বদলীয় সংলাপ আহবানের জোর দাবি জানান নেতৃবৃন্দ। সভায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে সুবিচারের দাবি জানানো হয়।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন