ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৪ রজব ১৪৪২ হিজরী

রাজনীতি

স্থানীয় সরকার নির্বাচনেও প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে সরকার: বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০২০, ৭:৫৩ পিএম

বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশন (ইসি) নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়ে জনগণের স্বাধীন ভোটাধিকারের মাধ্যমে জনপ্রতিনিধি নির্বাচনের পত সঙ্কুচিত করে দিয়েছে বলে মনে করে বিএনপি। তারপরও গণতন্ত্রের বৃহত্তর স্বার্থে এবং যতটুকু সুযোগ পাওয়া যায় তা যথাসম্ভব কাজে লাগানোর জন্যই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে দলটি। এর মধ্যমে জনগণের কাছে দলের বক্তব্য নিয়ে উপস্থিত হওয়া এবং সরকার ও নির্বাচন কমিশনের কারসাজির ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার মাধ্যমে নিজেদের প্রতিনিধি নির্বাচনে উদ্বুদ্ধ করছে।

সোমবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন দলটির দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স।

নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনী প্রচারণা ও রাজনীতির সীমিত সুযোগেও সরকার প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আগামী ১০ ডিসেম্বর দেশের ১০টি উপজেলা, ৫টি পৌরসভা ও ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মেয়র পদে সাধারণ নির্বাচন/উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এছাড়াও আগামী ২৮ ডিসেম্বর ২৫ টি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এসব নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারে চাপ প্রয়োগ, নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা, নেতাকর্মীদের ভয়-ভীতি প্রদর্শন, বাড়িতে তল্লাশি, হামলা-মামলা-হয়রানি করা হচ্ছে।

প্রিন্স বলেন, এইসব নির্বাচনে নির্বাচনের কোন সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। নেই কোন লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড। ক্ষমতার দাপটে প্রশাসনকে ব্যবহার করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এবং তাদের নেতাকর্মীরা বেপরোয়াভাবে নির্বাচনী কর্মকা-ের নামে বিএনপি প্রার্থী ও তাদের কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে প্রশাসনকে দিয়ে অন্যায়ভাবে বিএনপি’র নির্বাচনী কর্মকা- পরিচালনায় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করা হচ্ছে। অথচ আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা নির্বাচনী আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে ক্রমাগত লংঘন করে চলছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, বিএনপি প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণায় বাধা দিচ্ছে। পোস্টার ছিঁড়ে ফেলছে। এমনকি কর্মীদের হাত থেকে প্রচার পত্র কেড়ে নেয়া হয়েছে। বিএনপি প্রার্থীদেরকে পথসভা করতে দেয়া হচ্ছে না। সাধারণ ভোটারদেরকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে, ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য। নির্বাচনী এলাকার বিএনপি প্রার্থীর সম্ভাব্য এজেন্টদেরকে হুমকী দেয়া শুরু হয়েছে, তারা যেন পোলিং এজেন্ট না হয়। তাদের পরিবার পরিজনকেও হুমকি দেয়া হচ্ছে। ক্ষমতাসীন দলের এহেন কর্মকা-ের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী কর্মকর্তার কাছে লিখিত ও মৌখিক অভিযোগ করা হলেও তারা এ বিষয়ে কোন ব্যবস্থাই নিচ্ছে না।

নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা বিএনপি’র পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলোতে নির্বাচনের সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি করতে আবারও আহবান জানাচ্ছি। নির্বাচন, নির্বিঘেœ সকল প্রার্থীকে প্রচার-প্রচারণাসহ নির্বাচনী কর্মকা- পরিচালনার সমান সুযোগ, নির্ভয়ে সাধারণ ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে গিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে নিজ বিবেচনায় ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করার অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। জনগণের মধ্যে বিরাজমান ভোট আতঙ্ক নয়, ভোট উৎসব সৃষ্টি করতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অনুরোধ করছি। নির্বাচন কমিশনকে সরকার ও আওয়ামী লীগের অনুগত ও আজ্ঞাবহ না হয়ে সমতল মাঠে যোগ্য রেফারির ভূমিকা পালন করতে অনুরোধ করছি। অন্যথায়, বর্তমান ব্যার্থ, অযোগ্য সরকারের মত তাদেরকেও ইতিহাসের আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন