রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

লাইফস্টাইল

নিয়মিত ঢেঁড়শ খান

| প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

অনেকেই ‘ঢেঁড়শ’ নামক সবজিটি খেতে অপছন্দ করেন। বিশেষ করে বাচ্চাদের কাছে ঢেঁড়শ একটি অপ্রিয় খাবার। জোর করে না খাওয়ালে বাচ্চাদের ঢেঁড়শ খাওয়ানো যায় না। বড়রাও অনেকে ঢেঁড়শ একেবারেই পছন্দ করেন না। কিন্তু আমরা অনেকে জানি না, ঢেঁড়শ আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ! নিয়মিত ঢেঁড়শ খাওয়ার অভ্যাস আপনাকে নানাবিধ শারীরিক সমস্যা থেকে মুক্ত রাখতে পারে। জেনে নিন ঢেঁড়শের কিছু গুনের কথা-

* ঢেঁড়শ দেহে লোহিত রক্ত কণিকা উৎপাদনে সহায়তা করে। এতে অ্যানিমিয়া অর্থাৎ রক্তস্বল্পতা দূর হয়। তাই অ্যানিমিয়া প্রতিরোধে নিয়মিত ঢেঁড়শ খাওয়া উচিত।

* ঢেঁড়শের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট কোষের মিউটেশন প্রতিরোধ করে এবং ক্ষতিকর ফ্রি র‌্যাডিক্যাল দূর করে। এতে করে দেহে ক্যানসারের কোষ জন্মাতে পারে না। নিয়মিত ঢেঁড়শ খাওয়ার অভ্যাস ক্যানসার থেকে রক্ষা করে।
* ঢেঁড়শের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফোলায়েট যা হাড়ের গঠন মজবুত করে এবং হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধে সহায়তা করে।

* ঢেঁড়শে ভিটামিন-সি ও এ অ্যাজমার প্রকোপ কমায় এবং অ্যাজমাজনিত সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।
* ঢেঁড়শে রয়েছে সল্যুবল ফাইবার যা দেহের খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে বিশেষভাবে কার্যকরী। এতে করে কার্ডিওভাস্কুলার সমস্যা ও হৃৎপিন্ডের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

* ঢেঁড়শের ফাইবার কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। তাই এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে খাদ্যতালিকায় রাখুন ঢেঁড়শ।

* ঢেঁড়শে ইনসুলিনের মতো উপাদান রয়েছে যা রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। এতে করে ডায়াবেটিসের সমস্যা দূরে থাকে।

* ঢেঁড়শের ভিটামিন এ এবং সি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, এতে করে নানা ধরনের ছোটোখাটো ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ দূর করা সম্ভব হয়।

* গর্ভধারণের নানা সমস্যা ও গর্ভকালীন সময়ে ফিটাসের নিউরাল টিউব ডিফেক্ট দূর করতে ঢেঁড়শ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

* ঢেঁড়শে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, লুটেইন ও বিটা ক্যারোটিন যা আমাদের দৃষ্টি সংক্রান্ত সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

আফতাব চৌধুরী
সাংবাদিক-কলামিস্ট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
M A Zinnah ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৮:৫৪ পিএম says : 0
সাংবাদিক সাহেব! এটি আপনার কাজ নয়….আগ্রহ নিয়ে পড়ার পর দেখলাম সাংবাদিক লিখেছে…..!!!
Total Reply(1)
rassel ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:২৩ পিএম says : 0
right comments
dalower hossain ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৪:০২ পিএম says : 0
সাংবাদিক সাহেব সুন্দর ও বাস্তবতার সংমিশ্রণ ঘটিয়েছেন।এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চিকিৎসক এর কাছে গেলে প্রথমে আমাকে বা আপনাকে তিন অথবা চার হাজার টাকার বিভিন্ন ধরনের টেষ্ট করার উপদেশ দান করবেন।
Total Reply(0)
মো:+শফিউর+রহমান ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:৫৯ এএম says : 0
এটা খুবই ভাল লহ্মন । সাংবাদিক হইছে তাতে কি হইছে । আরে ভাই বাংলাদেশে রুগির চেয়ে ডাক্তারের পরিমান অনেক বেশী । তবুও কেনযে আমরা দাদাদের দেশে গিয়ে আমাদের কষ্টের টাকাটা দিয়ে আসি এবং তাদের স্বরনাপন্ন হই কেন বুজতে পারিনা ।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন