ঢাকা, শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জার্মানির কারাগারে আটক সিরীয় জঙ্গির আত্মহনন

প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : জার্মানির কারাগারে আটক সিরীয় সন্দেহভাজন জেহাদি আত্মহত্যা করেছে। ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে জড়িত থাকা ও বার্লিন বিমানবন্দরে বোমা হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে জার্মানির লিপজিগ থেকে গত সোমবার জাবের আল-বকর নামের ২২ বছর বয়সী ওই সিরীয় শরণার্থীকে আটক করা হয়। গত বুধবার কারাগারের কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয় বলে স্যাক্সনি রাজ্যের বিচারমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে বিবিসি। আল-আল-বকর কীভাবে আত্মহত্যা করেছেন তা স্পষ্ট না হলেও জার্মান পত্রিকা স্পিগেল জানিয়েছে, আটকের পর সন্দেহভাজন ওই জেহাদি কারাগারের ভেতর অনশন শুরু করেন। তাকে সার্বক্ষণিক নজরদারিতেও রাখা হয়েছিল। বকরের লাশ উদ্ধারের ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর জার্মানিতে প্রবেশ করার পর সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের একজন শরণার্থী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন আল-বকর। এরপর অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে জার্মানির গোয়েন্দা সংস্থা বকরের হামলা পরিকল্পনার বিষয়ে নিশ্চিত হয়। কীভাবে বোমা ও বিস্ফোরক বানাতে হয় আল-বকর ইন্টারনেটে সেই খোঁজ নিচ্ছেন জানতে পেরে গত বৃহস্পতিবার তাকে আটক করার সিদ্ধান্ত নেয় স্যাক্সনির পুলিশ। এরপর গত শনিবার শেমনিৎজ শহরে বকরের অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে দেড় কেজি টিএটিপি (ট্রাইএসিটন ট্রাইপারঅক্সাইড) উদ্ধার করা হয়। ঘরে বানানো এধরনের বিস্ফোরক দিয়েই গত বছর প্যারিস এবং গত মার্চে বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয় বলে জার্মান পুলিশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
স্পিগেলের খবরে আরো বলা হয়, অভিযানের সময় আল-বকর পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে লিপজিগে চলে যান। পরে তিন সিরীয়র কাছ থেকে খবর পেয়ে সোমবার ওই শহরের একটি বাসা থেকে আল-বকরকে আটক করা হয়। লিপজিগ রেলস্টেশনে আল-বকর ওই তিন স্বদেশীর সঙ্গে রাত কাটানোর সুযোগ চেয়েছিল। পরে ফেইসবুকের মাধ্যমে তারা জানতে পারেন, তাদের বাসায় আশ্রয় নেয়া সিরীয় শরণার্থীর নাম আল-আল-বকর এবং পুলিশ তাকে খুঁজছে। এরপর তারা আল-বকরকে বেঁধে ফেলে পুলিশে খবর দেয়। বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন