সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ৩০ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আফগানিস্তানে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে পারে তুরস্ক: তালেবান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ৮:২১ পিএম

তুরস্ক তার সম্পদের সাহায্যে বিনিয়োগ, কিছু প্রকল্প বাস্তবায়নের পাশাপাশি আফগানিস্তানে সংস্কার ও পুনরুদ্ধারে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে পারে। শনিবার আনাদোলু এজেন্সিকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেন আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি।

আফগানিস্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে দ্বিপাক্ষিক বিষয় এবং সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করতে মুত্তাকি বৃহস্পতিবার তুরস্কে সরকারি সফরে তালেবান প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগ্লু এবং মুত্তাকি একটি বৈঠক করেছিলেন যেখানে তারা তালেবানদের সরকারী স্বীকৃতি এবং যুক্তরাষ্ট্রের দ্বারা অবরুদ্ধ আফগানিস্তানের সম্পদ সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছিল।

আমির খান মুত্তাকি বলেন, তার সরকার এবং আন্তর্জাতিক সহায়তার সরকারি স্বীকৃতি দেশের অর্থনীতির পুনরুদ্ধারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, তালেবান দখলের পর যুক্তরাষ্ট্রের রিজার্ভ হিমায়িত করা আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, আমেরিকায় অবরুদ্ধ অর্থ আফগানিস্তানের উন্নয়নের জন্য অন্যান্য রাজ্য থেকে পাঠানো হয়েছিল। মুত্তাকি জানান, বুধবার সংবাদ সম্মেলনে তুর্কি কর্তৃপক্ষ এই বিষয়গুলো সামনে এনেছিল। তিনি বলেন, ‘আসল প্রশ্ন হল, এই টাকা কেন অবরুদ্ধ করা হয়েছিল? আফগানিস্তানের নাগরিকরা কী করেছিল?’ কিন্তু তারা প্রায় ৪ কোটি আফগান জনগণকে তাদের মৌলিক প্রয়োজনীয়তার অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছে।

নতুন সরকারের স্বীকৃতির বিষয়ে মুত্তাকি বলেন, ‘যেমনটি আমরা সাম্প্রতিক দিনগুলোতে আমাদের সভায় বলেছি, দোহায় মার্কিন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকে এবং তুরস্কে আমাদের সভায়, বিশ্বে এই জাতীয় রাজ্যগুলো প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, যার মধ্যে কয়েকটি শক্তি, অভ্যুত্থানের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছে অথবা নির্বাচনের মাধ্যমে, যেখানে একজন ব্যক্তি বা পরিবার প্রভাবশালী। কেন এগুলো স্বীকৃত কিন্তু আফগানিস্তানের সরকার কেন স্বীকৃতি পাচ্ছে না?’

পরিস্থিতি আফগানিস্তানের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে জানিয়ে মুত্তাকি বলেন, ‘এটি আফগানদের অধিকারের উপরে দখলদারিত্ব।’ তিনি উল্লেখ করেন যে, বিশ্বজুড়ে পাঠানো মানবিক সহায়তা বিতরণ করা হয়েছে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইইউ প্রতিনিধিদলের সাথে পূর্ব বৈঠকে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ১০০ কোটি ডলারেরও বেশি মানবিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল এবং জেনেভা সম্মেলনে সাহায্যের পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়েছিল বলে উল্লেখ করে মুত্তাকি বলেন, ‘এটি আমাদের সাথে বিশ্বের দেশগুলোর সহযোগিতা প্রকাশ করে। আমাদের সাথে সম্পর্ক দিন দিন উন্নত হচ্ছে। এটা ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।’

মুত্তাকি যুক্তি দিয়েছিলেন যে, ‘আইএসআইএস সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হুমকির বিষয়ে তালেবান প্রশাসনের সাথে দেশে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে এবং সেই অর্থে কোন হুমকি নেই।’ তিনি বলেন, ‘তারা মসজিদ ও রাস্তায় হামলা চালাচ্ছে। আপনি সম্মত হবেন যে, সমস্ত মসজিদ এবং রাস্তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সহজ কাজ নয়। আফগানিস্তানে তাদের কোনো জায়গা নেই। এভাবে আফগান সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি হচ্ছে। এই প্রচারটি দায়েশ/আইএসআইএস -এর জন্যও কাজ করে।’ সূত্র: ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন