সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জীর্ণ অস্ত্রের দাম ৯ কোটি!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

একটা সাধারণ ‘কোল্ট.৪৫’ আগ্নেয়াস্ত্রের দাম যদি হয় কয়েক কোটি টাকা, অবাক হবেন? তা-ও আবার সেই আগ্নেয়াস্ত্রটি বহু ব্যবহারে জীর্ণ। সুঠাম ইস্পাতের তৈরি আগ্নেয়াস্ত্রের জায়গায় জায়গায় পাল্টা আঘাতের চিহ্ন। কোথাও ক্ষয়ে গিয়েছে কোথাও বা রয়ে গিয়েছে ঘসে যাওয়া দাগ। হাতলের কাঠের পালিশও রংচটা। আগ্নেয়াস্ত্রটি সম্প্রতি ১০ লাখ ডলারে নিলামে কেনা হয়েছে। বাংলাদেশী মুদ্রায় যা সাড়ে ৮ কোটি টাকারও বেশি।

আগ্নেয়াস্ত্রটির বয়স ১০০ বছরের আশপাশে। এটির রেকর্ড দামের কারণ, তার পুরনো মালিক। আল কাপোন। আল কাপোনের খ্যাতি বা বলা ভাল কুখ্যাতি এই যে, তিনি বিশ্বের ভয়ঙ্করতম গ্যাংস্টারদের অন্যতম। তিনি ছিলেন ধনকুবের। স্রেফ তার সঙ্গে সহযোগিতা না করায় একসঙ্গে শতাধিক মানুষকে খুন করেছেন। আবার কোটি ডলারের সম্পত্তির প্রতিটি পাই আনা বিলাসিতা, উপভোগ, সম্ভোগে ব্যয় করেছেন। ভাল সিগার, ঝকঝকে স্যুট, কেতাদুরস্ত খাবার দাবার আর সুন্দরী নারীসঙ্গ- কাপোন কিছুই বাদ রাখেননি। বিলাসপ্রেমী কাপোন একটি প্রাসাদোপম বাড়িও কিনেছিলেন ফ্লোরিডার ছবির মতো সাজানো সৈকত মায়ামিতে। সেই বাড়িও সম্প্রতি ১ কোটি ১৪ লাখ পাউন্ডে বিক্রি হয়েছে। তবে জীবনের শেষ ১১টা বছর তাঁকে কাটাতে হয় দ্বীপান্তরে। আলকাটারেজের কারাগারে। এক কামরার ছোট্ট একটা সেলে। যেখানে ঘুমনোর জায়গার পাশেই শৌচের স্থানও। পেট ভরানোর জন্য শুধুই জেলের খাবার। ১৯৩৯ সালে সিফিলিসে আক্রান্ত হন কাপোন। অসুস্থ গ্যাংস্টারকে জেল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। তার আট বছর পর মাত্র ৪৮ বছর বয়সে মায়ামির বাড়িতে মারা যান এক সময়ের ভয়ঙ্কর গ্যাংস্টার।
কাপোনের বিপুল আর্থিক সম্পদ নিয়ে নানা কাহিনি চালু ছিল। তবে সেই বিপুল সম্পদ তিনি কোথায় রেখেছেন, তা একমাত্র তিনিই জানতেন। তবে কাপোনের নামও যে একটি ‘সম্পদ’, তার প্রমাণ পাওয়া গেল ওই নিলামে। যেখানে তার একটি পুরনো পিস্তল নিলামকারীদের থেকে ১০ লাখ ডলার দিয়ে কিনে নেন সংগ্রাহকরা। সূত্র : রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন