রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অনলাইন গেমের প্রচারণায় মক্কার ইমাম, সমালোচনার ঝড়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৭:৫৮ পিএম

সউদী আরবের মক্কা নগরীর পবিত্র গ্র্যান্ড মসজিদের সাবেক ইমাম আদেল আল কালবানি একটি অনলাইন গেমের প্রচারণায় অংশ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন। রিয়াদ সিজন ২০২১-এর উৎসবের ‘কমব্যাট ফিল্ড’ নামের ভার্চ্যুয়াল গেমের প্রচারণার জন্য নির্মিত ভিডিওতে তাকে অন্য তারকাদের সঙ্গে দেখা যায়।

এই ঘটনার পর সউদী আরব, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আদেল আল কালবানিকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। এমনকি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় চলছে। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে আমিরাতভিত্তক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ।

এক প্রতিবেদনে গালফ নিউজ বলছে, ভার্চ্যুয়াল গেমের প্রচারণার জন্য নির্মিত ভিডিওতে ৬২ বছর বয়সী আল কালবানিকে সামরিক পোশাকে যুদ্ধের নেতৃত্ব দিতে দেখা গেছে। এ সময় তার পেছনে বেশ কয়েকজন সহযোগীকেও দেখা যায়।

গত ১৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সউদী আরবের জেনারেল এন্টারটেইনমেন্ট অথরিটির (জিইএ) চেয়ারম্যান তুর্কি আল শেখ টুইটারে সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন। টুইটারে প্রকাশের পর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে প্রচারণামূলক এই ভিডিওটি ৯০ লাখেরও বেশি বার দেখা হয়েছে।

মক্কার পবিত্র গ্র্যান্ড মসজিদের সাবেক ইমাম আদেল আল কালবানিও এই ভিডিওটি শেয়ার দিয়েছেন। সেখানে ক্যাপশনে তিনি লেখেন, ‘আপনি কি মনে করেন, আমি হলিউডে যেতে পারবো?’

এর কমেন্টে জিইএ’র চেয়ারম্যান তুর্কি আল শেখ লেখেন, ‘হে প্রিয়, আমি মনে করি আপনি যেকোনো কিছুতেই এগিয়ে যাবেন।’

ভিডিওতে শিল্পী, ফুটবল তারকাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদেরও দেখা যায়। শিল্পী খালেদ আব্দুল রহমান, সউদী আরবের ফুটবল দলের গোলরক্ষক মোহাম্মদ আল দেয়া, সাবেক খেলোয়াড় সাইদ আল ওয়াইরানসহ অনেককে জাপানি গেমের যুদ্ধের দৃশ্যে দেখা যায়। এতে প্রধান নেতা হিসেবে অনেক সহযোগীসহ আদেল আল কালবানি ভিডিওতে উঠে এসেছেন।

এদিকে, অনলাইন গেমের প্রচারণার জন্য নির্মিত ভিডিওতে অংশ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন আল কালবানি। অনেকে তাকে ‘মূর্খ’ বলে অবিহিত করে বলছেন, আল কালবানি যা করেছেন তা ইসলাম পরিপন্থি। এমনকি অনেকে তাকে ‘দুর্নীতির সহযোগী’ হিসেবেও অভিযুক্ত করেছেন।
উল্লেখ্য, ‘কমব্যাট ফিল্ড’ ভার্চ্যুয়াল গেমটি রিয়াদের বার্ষিক বিনোদন উৎসবের প্রধান আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে। গত ২৩ অক্টোবর এই বিনোদন উৎসব শুরু হয় এবং আগামী বছরের ১৬ মার্চ পর্যন্ত তা চলবে। উৎসবে যুগ যুগ ধরে নানা উপায়ে চলে আসা লড়াই, যুদ্ধ, তরবারি, তীর, ধনুক ও ড্রোনের ব্যবহার দর্শকরা দেখার সুযোগ পাবেন। সূত্র : গালফ নিউজ

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন