ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভেনেজুয়েলায় মানবিক সংকট চরমে, উত্তপ্ত হচ্ছে রাজনীতি

প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ভেনেজুয়েলার রাজনীতি ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠতে পারে। এমনই আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটির অর্থনৈতিক মন্দা ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি-এসব মিলিয়ে মানবিক সঙ্কট চরমে পৌঁছেছে। ওষুধের অভাবে হাসপাতালগুলোতে রোগীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। গুরুতর রোগীরা মারা যাচ্ছে প্রয়োজনীয় ওষুধের অভাবে। এসব নিয়ে বিক্ষোভ হচ্ছে দেশব্যাপী। এ অবস্থায় বিরোধী জোটের একটি বড় অংশ সরকার প্রস্তাবিত আলোচনায় অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। বিরোধীদের একটি অংশ ভ্যাটিকানের মধ্যস্থতায় প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সঙ্গে সংলাপে রাজি হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর তাদের বড় অংশটি এ আলোচনা প্রত্যাখ্যান করেছে।
এর আগে পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে বৈঠকের পর ডেমোক্রেটিক ইউনিটি কোয়ালিশনের নেতা জেসাস টরেলবা সমাজতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট মাদুরোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে সম্মত হন। কিন্তু গত মঙ্গলবার দু’বারের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হেনরিক ক্যাপরিলস বলেন, ভেনেজুয়েলায় কোন সংলাপ হবে না। তিনি বলেন, শয়তানের দল পোপ ফ্রান্সিসের সদিচ্ছার অপব্যবহার করতে চায়।
সোমবার টরেলবার নেতৃত্বে বিরোধীদের একটি অংশ মাদুরোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি হয়েছিলো। টরেলবা বলেন, সংলাপের অর্থ এই নয় যে, এতে সরকারের কৌশলগত বিজয় হবে। এটা দেশে সকলের মঙ্গলের জন্যই একটি উদ্যোগ। ভ্যাটিকানের দূতের সঙ্গে কারাকাসে বৈঠকের পর তিনি এ কথা বলেন।
সংলাপের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক এজেন্ডাও ঘোষণা করা হয়নি। বিরোধীরা চাচ্ছে গণভোটের মাধ্যমে মাদুরোকে অপসারণ করতে। এদিকে সরকারও বিরোধীদের শঠতা, সহিংসতা ও অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার জন্য দায়ি করছে।
ভেনেজুয়েলায় বিরোধীরা সংসদে সংখ্যগরিষ্ঠ। মঙ্গলবার তারা সংসদে এক বিতর্কে মাদুরোর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক বিচারের দাবি তোলে। দেশটিতে বর্তমানে অর্থনীতি একেবারে ভেঙে পড়েছে, খাদ্যের সঙ্কট দেখা দিয়েছে এবং দ্রব্যমূল্যের ব্যাপক ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে। এসবের প্রতিবাদে বুধবার সারাদেশে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়।
এ অবস্থায় মাদুরো সোমবার ব্যক্তিগতভাবে পোপ ফ্রান্সিসের সাথে সাক্ষাত করেন। পোপ তাকে সরকার ও বিরোধীদের মধ্যে সংলাপ অনুষ্ঠানের আহ্বান জানান। ভ্যাটিকানের দূত জানান, উভয় পক্ষই জাতীয় সঙ্কট নিয়ে পোপের সঙ্গে আলোচনা করে। আগামী ৩০ অক্টোবর ভেনেজুয়েলার মার্গারিটা দ্বীপে আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মুক্ত আলোচনার কথা বলা হয়েছে।
দেশটিতে বর্তমান সরকার ও বিরোধীদের মধ্যে দ্বন্দ্বের কারণে উত্তপ্ত অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৪ সালে সরকার বিরোধী আন্দোলনে ৪৩ জন নিহত হয়েছিলো। সোমবার শিক্ষার্থীদের একটি দল জানায়, পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর সান ক্রিস্টোবালে পুলিশ ও সরকার বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষে ২৭ জন আহত হয়েছে।
এদিকে, মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ সংস্থাগুলো জানিয়েছে, ভেনেজুয়েলায় ‘মানবিক সঙ্কট’ দেখা দিয়েছে। দেশটির হাসপাতালগুলোতে ওষুধের অপর্যাপ্ততার কারণে বহু মানুষ মারা যাচ্ছে এবং অনেক রোগী চরম কষ্টে রয়েছে। আল জাজিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন