বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মানহানির মামলায় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে নোটিশ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০০ এএম

ইসলামাবাদ হাইকোর্ট (আইএইচসি) মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) খাজা আসিফের বিরুদ্ধে ১০ বিলিয়ন রুপির ক্ষতিপূরণের মামলায় জেরা করার অধিকার বাতিল চেয়ে নোটিশ জারি করেছে।
আইএইচসি প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতিতে জেরা করার অধিকার অপসারণের দায়রা আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আসিফের করা আবেদনের শুনানি করে। আদালত ট্রায়াল কোর্টকে শুনানি শুরু করতে বাধা দেন। পিএমএল-এন নেতার আইনজীবী দাবি করেছেন যে, ট্রায়াল কোর্টের বিচারক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের বিবৃতিতে জেরা করার অধিকার সরিয়ে দিয়েছেন। তারা যোগ করেছেন যে, ২০১২ সালে মামলা করা হলেও প্রশ্নগুলো ২০২১ সালে তৈরি করা হয়েছিল।

‘আপনি কি বলছেন যে ইমরান খান স্থগিত করেছিলেন?’ প্রধান বিচারপতি আতহার মিনাল্লাহ প্রশ্ন রেখে বলেন, মানহানির মামলা দুই মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি হওয়া উচিত ছিল। আসিফের আইনজীবী বলেন, উভয় পক্ষই মুলতবি গ্রহণ করেছে। আইএইচসি প্রধানমন্ত্রীর কাছে উত্তর চেয়েছে এবং শুনানি ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত মুলতবি করেছে।
পিএমএল-এন নেতা মঙ্গলবার নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আইএইচসিতে একটি আবেদন করেছেন এবং প্রধানমন্ত্রী ইমরান এবং দায়রা আদালতের বিচারককে বিবাদী হিসাবে মনোনীত করেছেন। আসিফ আবেদনে আবেদন করেছেন যে, প্রধানমন্ত্রী ইমরানের বক্তব্য তার আইনজীবীর অনুপস্থিতিতে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রেকর্ড করেছেন।

গত মাসে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান আসিফের বিরুদ্ধে দায়ের করা ১০ বিলিয়ন রুপির মানহানির মামলায় তার বক্তব্য রেকর্ড করার জন্য তার অফিস থেকে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে একটি জেলা ও দায়রা আদালতে হাজির হন। প্রধানমন্ত্রী অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ আদনানের কাছে শওকত খানম মেমোরিয়াল ট্রাস্ট (এসকেএমটি) তহবিলে অ-স্বচ্ছতা, অর্থ পাচার এবং বেনামী কোম্পানির ব্যবহারের অভিযোগের জন্য পিএমএল-এন নেতার বিরুদ্ধে একটি হলফনামা জমা দিয়েছিলেন।

নথিতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান আদালতকে জানান যে, ১ আগস্ট, ২০১২ তারিখে, আসিফ, পাঞ্জাব হাউসে আয়োজিত একটি সংবাদ সম্মেলনে ভাষণ দেয়ার সময় অভিযোগ করেছিলেন যে, তিনি (প্রধানমন্ত্রী ইমরান) অর্থ পাচারে জড়িত ছিলেন বা কমিশনের অনুমোদন দিয়েছিলেন। পরে একই দিন সন্ধ্যায় একটি বেসরকারি টিভি অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগের পুনরাবৃত্তি করেন। সূত্র : ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন