সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লুডো খেলতে খেলতেই প্রেম! ভালোবাসার টানে পাকিস্তানের পথে ভারতের বিবাহিতা নারী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:৩২ পিএম

প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে, কে কোথা ধরা পড়ে, কে জানে...। শতক পেরিয়েও কবির লেখনী আজও বাস্তব। অনলাইন গেমেও ফুটল প্রেমের ফুল। লুডোর মতো আপাত নিরামিষ খেলাও হয়ে গেল লাভ গেম।

লুডো খেলতে খেলতেই প্রতিপক্ষের প্রেমে পড়ে গেলেন এক বিবাহিতা রমণী। তীব্র সে ভালোবাসার আকর্ষণে সংসার-সন্তান-স্বামী ছেড়ে সীমান্ত পার যেতেও রাজি প্রেমিকা। রাজস্থানে এমনই ঘটনায় চাঞ্চল্য। জানা গিয়েছে, পাকিস্তানি যুবকের প্রেমে ঘরছাড়া ওই মহিলা রাজস্থানের ধৌলপুরের বাসিন্দা। নাম শিবানী। বছর খানেক ধরে অনলাইনে লুডো খেলার নেশায় মজেছিলেন তিনি। লুডো খেলতে খেলতেই মাসখানেক আগে আলি নামের এক যুবকের সঙ্গে পরিচয় হয় তার।

খেলতে খেলতেই ক্রমশ বাড়ে ঘনিষ্ঠতা। খেলার পাশাপাশি চলতে থাকে চ্যাটিংও। শীঘ্রই নম্বর আদানপ্রদানের পর ফোন-হোয়াটসঅ্যাপেও কথা, ভিডিও কল চলতে থাকে। একসময় শিবানির সঙ্গে দেখা করতে চায় আলি। পাকিস্তানে আসার আমন্ত্রণ জানায় ও রাস্তাও বলে দেয়। যুবকের কথা মতোই তিনি স্বামী-সন্তান ফেলে প্রেমিকের ডাকে ঘর ছেড়ে অমৃতসর পাড়ি দেন।

অমৃতসরের জালিনওয়ালাবাগ পৌঁছে পাকিস্তান যাওয়ার বাসের খোঁজ খবর নিতে শুরু করেন শিবানি। স্থানীয়দের জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়েই পুলিশের নজর পড়ে তাঁর উপর। জেরা করতেই শিবানি স্বীকার করে সে বাড়ি ছেড়ে পাকিস্তানে পালাচ্ছে। পুলিশ মহিলাকর্মীর কাছে শিবানী জানিয়েছেন, তার পুরুষ বন্ধু আলির তার এক বন্ধুকে আটারি পাঠানোর কথা বলেছিল। আলির পরামর্শেই বাড়ি থেকে পালিয়ে পাকিস্তানের বাস ধরতে অমৃতসর এসেছিল। এখান থেকেই আলির বন্ধুর তাকে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে পাকিস্তানি প্রেমিক আলির নির্দিষ্ট ঠিকানা শিবানি জানেন না বলেই পুলিশকে জানিয়েছেন।

সম্প্রতি রাজমিস্ত্রির সঙ্গে দুই গৃহবধূর পরকীয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় বাংলায়। প্রসঙ্গত, শীতের পোশাক কিনতে যাওয়ার নাম করে গত ১৫ ডিসেম্বর বাড়ি থেকে বার হয়েছিলেন কর্মকার পরিবারের দুই বউ। তাঁদের সঙ্গে ছিল ছোট বউয়ের সন্তানও। কিন্তু, এরপর তারা আর বাড়ি ফেরেননি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে পেশায় রাজমিস্ত্রী সুভাষ ও শেখর নামে মুর্শিদাবাদের দুই শ্রমিকের সঙ্গে পালিয়েছেন তারা। মাস ছয়েক আগে কর্মকার বাড়িতে রাজমিস্ত্রীর কাজ করতে এসেছিলেন তাঁরা। ধরা পড়ার পরও দুই গৃহবধূর অকপট স্বীকারোক্তি তারা পুরনো সংসারে আর ফিরতে চান না। বরং, নতুন প্রেমিকদের সঙ্গেই বাঁধতে চান স্বপ্নের ঘর। সূত্র: টিওআই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন