শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক সংবাদ

প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হলে ন্যাটো জোটে যোগদান ঠেকাব

ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে এরদোগানের হুমকি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০২২, ১২:০৪ এএম

আপত্তি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার মাত্র দুই দিনের মাথায় সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদান নিয়ে হুঁশিয়ারি জানালেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। তিনি বলেছেন, দেশ দুটি যদি তার প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয় তাহলে এখনও আঙ্কারা ন্যাটো জোটে দেশ দুটির যোগদান ঠেকিয়ে দিতে পারবে।
স্পেনের মাদ্রিদে ন্যাটো সম্মেলনে জোট মিত্রদের এরদোয়ান বলেছেন, নরডিক দেশ দুটির সঙ্গে দশ দফার চুক্তি তুরস্কের জন্য একটি জয় এবং এতে সব সংবেদনশীলতা চিহ্নিত হয়েছে। সুইডেন ও ফিনল্যান্ড তুরস্কের নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দি গোষ্ঠী বা নেটওয়ার্কের নির্বাসিত ধর্মীয় নেতাকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি মেনে নেওয়া তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। ২০১৬ সালে তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থান চেষ্টার জন্য এই নেতাকে অভিযুক্ত করেছে আঙ্কারা। কিন্তু’ এরদোয়ান হুঁশিয়ারি জানিয়ে বলেছেন, নরডিক দেশ দুটি যদি তাদের প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হয় তাহলে তুরস্কের পার্লামেন্ট মঙ্গলবার সমঝোতায় পৌঁছা চুক্তি অনুস্বাক্ষরে অস্বীকৃতি জানাতে পারে। ন্যাটোতে কোনো নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত করতে হলে জোটের সব মিত্রদের সম্মতি প্রয়োজন। এর ফলে সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের ক্ষেত্রে তুরস্কের কার্যত ভেটো ক্ষমতা রয়েছে।
এরদোয়ান বলেন, আমাদের পার্লামেন্টে যদি চুক্তি পাস না হয় তাহলে এই চুক্তি কাজে আসবে না। প্রথমত, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডকে তাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে। যা ইতোমধ্যে চুক্তিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। কিন্তু’ তারা যদি এগুলো পূরণ না করে তখন চুক্তিটিকে আমাদের পার্লামেন্টে পাঠানোর কোনও পথ থাকবে না। তুর্কি প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন, সুইডেন তুরস্কের কাছে ৭৩ জন ‘সন্ত্রাসীকে’ ফিরিয়ে দিতে রাজি হয়েছে এবং কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) আর্থিক ও কর্মী সংগ্রহ কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবে। পিকেকে তুরস্কসহ যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সন্ত্রাসী তালিকাভুক্ত সংগঠন। তুরস্ক সিরীয় কুর্দিদের পিপল’স প্রটেকশন ইউনিটস (ওয়াইপিজি)-কে পিকেকের শাখা হিসেবে মনে করে। সমঝোতা স্মারক প্রত্যর্পণের সুনির্দিষ্ট সংখ্যা উল্লেখ করা হয়নি। এতে বলা হয়েছে, ইউরোপীয় কনভেশন অনুসারে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন তুরস্কের সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীদের তথ্য নিবিড়ভাবে যাচাই করবে ও আমলে নেবে। বুধবার তুরস্কের আইনমন্ত্রী বেকির বোজডাগ দাবি করেছেন, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডকে পিকেকের সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজন ৩৩ জনের নথি দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার এই বিষয়ে এরদোয়ানের কাছে জানতে চান সাংবাদিকরা। এসময় তিন জানান, আগে প্রত্যর্পণের জন্য ৬০ জনের তালিকা ছিল, এখন তা বেড়ে হয়েছে ৭৩ জনে। এরদোয়ান বলেন, আমাদের বৈঠক ও আলোচনা থেকে যে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আমরা বুঝতে পারছি তা হলো সুইডেন আমাদের ৭৩ জনকে ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তারা ফেরত পাঠাক বা না পাঠাক, আমরা চুক্তি অনুসরণ করব এবং আমাদের সিদ্ধান্ত নেব। মাদ্রিদে যোগ দেওয়া সুইডেনের প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনও প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি। সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Kamal Chowdhury ২ জুলাই, ২০২২, ৭:৩৩ এএম says : 0
যুদ্ধ নয় শান্তি চাই। ন্যাটো মুক্ত বিশ্ব চাই। ”বিশ্ব শান্তি রক্ষাও বিশ্ব যুদ্ধ ঠেকানোর জন্য ন্যাটো ভেংগে ফেলা এখন সময়ের দাবী। *ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের সরকার যদি তাদের দেশে ইউক্রেনের মতো পরিনতি দেখতে চায় তাহলে তারা ন্যাটোতে যোগ দিক ৷ *তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ সন্নিকটে। ফিনল্যান্ড,সুইডেন,বৃটেন পোল্যান্ড পারমাণবিক বোমা হজম করে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটবে।
Total Reply(0)
Md Abul Hayat ২ জুলাই, ২০২২, ৭:৩৪ এএম says : 0
Turkey has taken the right decision in appropriate time. We are eagerly waiting for the result.
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন