শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অভ্যুত্থানের গুঞ্জন উড়িয়ে ফের জনসমক্ষে শি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

চীনে কি গৃহযুদ্ধ? প্রবল প্রতাপশালী প্রেসিডেন্ট কি কোণঠাসা? গত কয়েক দিন এমনই নানা আশঙ্কার খবর ভেসে উঠছিল আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে। সেসব খবর উড়িয়ে এবার সবার সামনে হাজির হলেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের মিটিংয়ের পর এই প্রথম জনসমক্ষে এলেন তিনি। কমিউনিস্ট পার্টি অব চায়না এবং চীন সরকারের সাফল্য নিয়ে একটি প্রদর্শনী আয়োজন করা হয়েছে। সেখানেই দেখা গেছে চীনের প্রেসিডেন্টকে। এর আগে গুঞ্জন শুরু হয়েছিল যে, নিজের দেশেই সেনার একটি অংশের হাতে গৃহবন্দি হয়েছিলেন শিং জিনপিং। চীনে সেনা অভ্যুত্থানের গুঞ্জনও শুরু হয়েছিল। যদিও মঙ্গলবারের ওই অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার লি কেকিয়াং এবং একাধিক উচ্চপদস্থ ব্যক্তির সঙ্গে দেখা যায় শি জিনপিং-কে। ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চীনের প্রেসিডেন্ট। সেখানে সমাজতন্ত্রের বিজয়ের কথা, তার আমলে চীনের উন্নতির কথা বলেছেন জিংপিং। চীনের সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা যায়, চীনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘দল এবং রাষ্ট্র ঐতিহাসিক সাফল্য পেয়েছে, নানা ঐতিহাসিক বদলের মধ্যে দিয়ে এগিয়েছে।’ এ সাফল্যকে আরো বেশি করে প্রচার করার কথাও বলেছেন তিনি।

চীনের সরকার হোক বা দল, দুই জায়গাতেই বর্তমানে শি জিনপিংয়ের কর্তৃত্ব অবিসংবাদিত। তার আমেল চীনের অর্থনৈতিক উন্নতির কথাও বারবার ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে। ফলে এসসিও-এর সামিট থেকে ফেরার পর বেশ কিছু দিন তাকে জনসমক্ষে না দেখতে পাওয়ায় বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম প্রশ্ন তোলে। আন্তর্জাতিক নানা ক্ষেত্রেও বারবার প্রশ্ন তোলা হয়। তখনই গুঞ্জন ছড়ায় যে চীনের সেনার একটি অংশ বিদ্রোহ ঘোষণা করেছে, তাদেরই হাতে বন্দি হয়েছেন শি জিনপিং। টুইটারে ট্রেন্ড হতে থাকে হ্যাশট্যাগ চায়নাক্যু। এমনকি চীনের সেনার জেনারেল লি কুয়োমিং-এর নামও ভেসে বেড়াতে থাকে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে। মঙ্গলবারের অনুষ্ঠানের পর সেইসব গুঞ্জনে অবশ্যই পানি পড়েছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, উজবেকিস্তানের সমরকন্দে এসসিও সামিটের পরে সাত দিনের জন্য কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছিল চীনের প্রেসিডেন্টকে। তারপর তিন দিন বাড়িতে থাকার নিয়ম। কোভিড ঠেকাতে এ নিয়ম প্রচার করেছেন খোদ শি জিনপিং। বিদেশ থেকে ফেরায় নিজেও সেই নিয়মই মেনেছেন। তাই তাকে বেশ কিছুদিন জনসমক্ষে দেখা যায়নি বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। সূত্র : আল-জাজিরা।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন