সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১, ১৭ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জমি নিয়ে জটিলতার মাঝেই অমর্ত্য সেনের বাড়িতে মমতা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ জানুয়ারি, ২০২৩, ৬:৩২ পিএম

বোলপুরে পৌঁছেই নোবেলজয়ী অর্মত্য সেনের বাড়ি ‘প্রতীচী’তে গেলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কথা বললেন জমিজট নিয়ে। অর্মত্য সেনের বাড়িতে দাঁড়িয়েই মুখ্যমন্ত্রী জানালেন, জমি নিয়ে যে দাবি করা হচ্ছে বিশ্বভারতীর তরফে তা মিথ্যা। বললেন, ‘অর্মত্য সেনকে অপমান আমার গায়ে লেগেছে।’ পরিস্থিতি বিবেচনা করে অমর্ত্য সেনকে জেড প্লাস নিরাপত্তা দেয়ার কথা ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার দুপুরে কলকাতা বইমেলা উদ্বোধনের পর বোলপুর রওনা হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পৌঁছে প্রথমে একটি হাটে যান তিনি। সেখান থেকে সোজা পৌঁছে যান প্রতীচী অর্থাৎ অমর্ত্য সেনের বাসভবনে। বিশ্বভারতী যে জমি ফেরত চেয়ে নোবেলজয়ীকে চিঠি পাঠিয়েছে সেই জমি সংক্রান্ত কাগজপত্র নিয়ে সেখানে যান মমতা। নোবেলজয়ীর হাতে তুলে দেন জমির গুরুত্বপূর্ণ নথি। কাগজপত্র দেখিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্বভারতী মিথ্যা দাবি করছেন। পরিকল্পনামাফিক অমর্ত্য সেনকে অপমান করা হচ্ছে। এরপরই তিনি বলেন, “ওনার অপমান আমার গায়ে লেগেছে।”

এদিন অমর্ত্য সেনের বাড়িতে চা-সিঙাড়াও খান মুখ্যমন্ত্রী। বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন তারা। সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দেন নবতিপর নোবেলজয়ীকে জেড প্লাস নিরাপত্তার। অমর্ত্য সেনের বাড়ি থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে জমি ফেরানোর দাবি করেছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ, তার নথি তুলে ধরে দাবি করেন বিশ্বভারতী মিথ্যা কথা বলছে।

মমতা বলেন, “আমি এই কাগজ জোগাড় করেছি সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে। এটাই প্রমাণ যে অমর্ত্য দা যা বলছেন, সেটা ঠিক।” এরপরই নাম না করে তোপ দাগেন বিশ্বভারতীর উপাচার্যকে। খোঁচা দিয়ে বলেন, “বিশ্বভারতীতে ছাত্রদের সাসপেন্ড, শোকজ বন্ধ হোক। আমরা বিশ্বভারতীকে রবীন্দ্রনাথের চোখে দেখি, বেজেপিকরণের চোখে দেখি না।” এরপরই হুঙ্কার ছেড়ে বলেন, “অমর্ত্য সেন ও তার পরিবারকে যেন বিব্রত না করা হয়।” সূত্র: টাইমস নাউ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন