ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ইসলামী জীবন

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

প্র:- মাসবূক তাশাহ্হুদ পড়ার পর ইমামের সালাম ফিরানোর পূর্ব পর্যন্ত কী করবে?
উ:- তাশাহ্হুদ খুব ধীরে ধীরে পড়বে, যাতে ইমামের দোয়া-দরূদ শেষ হয়ে যায়। এরপরও সময় থাকলে শুধু তাশাহ্হুদ পড়তে থাকবে। অথবা চুপ করেও থাকা যায়। (আলমগীরী)
প্র:- মাসবূক কোন নামাযের দি¦তীয় রাকাতে ইমামের কিরাত পড়ার সময় শরীক হলে তাকে সানা পড়তে হবে কি?
উ:- ইমাম সশব্দে কিরাত পড়তে থাকলে সানা পড়া যাবে না। কিরাত শুনতে হবে। আর কিরাত চুপিসারে পড়তে থাকলে মাসবূক নামাযে শরীক হয়েই সানা পড়ে ফেলবে। নিজের অবশিষ্ট রাকাত আদায় করার শুরুতে আবার পড়বে। (কবীরী)
প্র:- মাসবূক যদি ইমামকে রুকূ বা সিজদাহর মধ্যে পায় তাহলেও কি সানা পড়বে?
উ:- এমতাবস্থায় সে যদি নিশ্চিত হয় যে, সে সানা পড়েও রুকূ বা সিজদায় শরীক হতে পারবে, তাহলে সানা পড়বে; আর না হয় সানা বাদ দিয়ে তাড়াতাড়ি ইমামের কাজে শামিল হবে।
প্র:- ইমামকে বসা অবস্থায় পেলে মাসবূক সানা পড়বে কি না?
উ:- সানা পড়বে না। তাড়াতাড়ি বৈঠকে মিলিত হবে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন