ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

লোহিত সাগরে সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা সউদি আরবের

প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : মিশরের সাথে যোগাযোগ সহজ করতে লোহিত সাগরের উপর দিয়ে একটি সেতু তৈরির পরিকল্পনা করছে সউদি আরব। এর ফলে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করেন সউদি বাদশাহ সালমান। খবরে বলা হয়, মিশর সফরকালে সেতু নির্মাণের এই ঘোষণা দিয়েছেন সউদি বাদশাহ সালমান। আর মিশরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি ঘোষণা দিয়েছেন, সেতুটির নাম হবে সউদি বাদশাহের নামে। বরাবরই সউদি আরব মিশরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবে পরিচিত। ২০১৩ সালে মিশরের ক্ষমতা বদলের পর সউদি আরব আর মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো মিশরে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার অনুদান দিয়েছে। বিশেষ করে শিয়া প্রভাব মোকাবেলায় ওই অঞ্চলে সুন্নি প্রধান দেশগুলোকে নিয়ে যে জোট করার চেষ্টা করছে সউদি আরব, মিশর সেখানে তাদের সহযোগী বলে তারা মনে করে। সিরিয়ার বাশার আল আসাদ প্রসঙ্গে মিশরের নীরবতা আর ইয়েমেনে সউদি হামলায় সমর্থন নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কিছুটা দূরত্বও তৈরি হয়েছে। কিন্তু মিশরের কাছ থেকে আরো সমর্থন চায় সউদি আরব। মিশরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি বলছেন, এই ঐতিহাসিক পদক্ষেপের মাধ্যমে শুধু দুইটি দেশটি নয়, দুইটি মহাদেশ, এশিয়া আর আফ্রিকাও যুক্ত হবে। বিস্তারিত কোনো তথ্য এখনো জানানো না হলেও, সেতুটি বানাতে চার বিলিয়ন ডলার খরচ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর আগেও অবশ্য লোহিত সাগরের উপর দিয়ে একাধিকবার সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবতার কারণে সেসব উদ্যোগ আলোর মুখ দেখেনি। সউদি বাদশাহর পাঁচদিনের এই সফরে দুই দেশের মধ্যে আরো কয়েকটি চুক্তি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর আগেও লোহিত সাগরের উপর সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয় কিন্তু তা নানা কারণে আটকে যায়। এবার সউদি বাদশার মিশর সফরের মধ্যে দিয়ে লোহিত সাগরে সেতু নির্মাণের বিষয়টি নিশ্চিত হলো। এর আগে সেতুটির নির্মাণ ব্যয় নিয়ে একটি হিসাবও করা হয়েছিল। সে হিসাব অনুযায়ী, সেতুটির প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছিল ৩ থেকে ৪ কোটি ডলার। তবে নতুন হিসাব অনুযায়ী সেতুটির ব্যয় কত হবে তা নিয়ে কিছু জানা যায়নি। বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Aminul Islam ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ১১:৩৩ এএম says : 0
Good plan
Total Reply(0)
সেলিম ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ১১:৩৪ এএম says : 0
মুসলীম দেশগুলোর উচিত নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধি করা।
Total Reply(0)
Polash ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ৪:০০ পিএম says : 0
মুসলীম দেশগুলোর উচিত নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধি করা
Total Reply(0)
Polash ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ৪:০১ পিএম says : 0
Very Good plan
Total Reply(0)
ANAWAR ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ৫:১৮ পিএম says : 0
I THINK FIRST NEED TO HELP MUSLIM IN AFRICA AND MYANMAR, WHERE EVER IN THE WORLD
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন