ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আইএস টার্গেটে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকার

প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : জেহাদি সংগঠন আইএস হুমকিকে মালয়েশিয়ার জন্য খুবই বাস্তব বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। দেশটির আঞ্চলিক উইং থেকে সংগঠিত আইএসের একটি ভিডিওতে হামলার হুমকি দেয়া হয়। আইএসের কয়েকজন সমর্থকদের আটকের কয়েক ঘণ্টা পরই দেশটিতে আক্রমণ করতে পারে বলে হুমকি দেয় সংগঠনটি। মালয়েশিয়ার জেহাদি সংগঠন কাটিবা নুসান্ত্রার লোগো সম্বলিত ওই ভিডিওটা পোস্ট করা হয়েছে বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছে। এই হুমকি খুবই বাস্তব এবং বিষয়টিকে দেশটির সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে বলে একটি সম্মেলনে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। তিনি আরো বলেন, বিশ্বজুড়ে চ্যালেঞ্জে মুখে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মালয়েশিয়া এই ধরনের বিপদ থেকে দূরে আছে বলেও জানান তিনি।
এদিকে, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ও হাউজ অব কমন্সের স্পিকার জন বারকাউকে হুমকি দিয়েছে আইএস। একটি ভিডিওতে এই হুমকি দেয়া হয়েছে। দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট জানিয়েছে, ১৭ মিনিটের ওই ভিডিওতে গত নভেম্বরে প্যারিসে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলাকারীদের কয়েকজনকে দেখা গেছে। এর মধ্যে রয়েছে ওই হামলার মূলহোতা আবদেল হামিদ আবাউদ। আবাউদকে ওই হামলার কয়েকদিন পরেই ফরাসি পুলিশ হত্যা করে। উল্লেখ্য, নভেম্বরে প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে ১৩০ জন নিহত হন। ওই ভিডিওতে বেশ কিছু মানুষের শিরñেদ ও ফাঁসি কার্যকর করতে দেখা যায়। এসব ব্যক্তিকে আইসিস ধর্মত্যাগী আখ্যা দিয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, আবদেল হামিদ আবাউদ বলছে, বিশ্বব্যাপী তোমাদের হত্যা করা বন্ধ করবো না আমরা। তাতে তোমরা ট্যুরিস্ট হিসেবে অথবা ব্যবসায়ী কোন সফরেই থাক না কেন।
ভিডিওর একটি অংশে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাউজ অব কমন্সের স্পিকার জন বারকাউয়ের মুখ দেখানো হয়। লন্ডনের বিভিন্ন ছবি দেখানো হয় এতে। এর মধ্যে রয়েছে সেন্ট পলস ক্যাথেড্রাল, টাওয়ার ব্রিজ। প্যারিস হামলার পর ফ্রান্সের প্রতি সংহতি প্রকাশ করা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের ফুটেজ। এ সময় স্ক্রিনে লেখা ওঠে যে-ই কাফেরদের পক্ষ অবলম্বন করবে তারাই আমাদের তরোবারির টার্গেটে পড়বে। ওই ভিডিওতে প্যারিস হামলাকারীদের আরও যাদের দেখানো হয় তার মধ্যে রয়েছে আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী বিলাল হাদফি। সে প্যারিস হামলার সময় স্টেডি ডি ফ্রান্স-এ হামলা করেছিল। আরেকজন হলো সামি আমিমুর। সে এ হামলার সময় সবচেয়ে হৃদয় বিদারক স্থান বাটাক্লাঁ হলে হামলা চালিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দিয়েছিল। তবে ওই ভিডিওটি কবে, কখন ধারণ করা হয়েছে তা স্পষ্ট নয়। এতে যেমন আছে প্যারিস হামলার আগের কথা, তেমনি আছে হামলার পরের বিষয়। এতে আরও দেখানো হয়েছে, প্যারিসে হামলা চালানোর পর মানুষ কিভাবে প্রাণপণে সেখান থেকে পালাচ্ছে। ভিডিওর পরের দিকে দেখানো হয়েছে হাদফি, আমিমুর ও আবাউদ শিরচ্ছেদ করছে। গুলি করে হত্যা করছে মানুষ। এর একটি দৃশ্যে আইএস নিয়ন্ত্রিত সিরিয়ার রাকা এলাকার একটি মানবাধিকার এক কর্মীর শিরñেদ করতে দেখা যায়। ব্রিটিশ সরকারের এক মুখপাত্র বলেছেন, তারা আইএসর এই প্রচারণামূলক ভিডিও নিয়ে পরীক্ষা চালিয়ে দেখছে।
অন্যদিকে, মালয়েশিয়া পুলিশ জানায়, গত রোববার সারা দেশে হামলার পরিকল্পনার সন্দেহে ৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। সন্দেহভাজন জেহাদিদের কাছ থেকে বুলেট, জেহাদি বই, পতাকা ও প্রচারণামূলক ভিডিও বহন করতে দেখা যায়। দশ দিন আগে মালয়েশিয়ায় কুয়াালালামপুরে জেহাদি সংগঠনটি আত্মঘাতী হামলার পরিকল্পনা করছে সন্দেহে তাদের আটক করা হয়। রয়টার্স, দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন