মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১১ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

লিবিয়ায় জাতিসংঘ সমর্থিত জাতীয় সরকার গঠনের উদ্যোগ প্রত্যাখ্যান

প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : লিবিয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত পার্লামেন্ট তাদের ত্রিপলিভিত্তিক প্রতিদ্বন্দ্বী কর্তৃপক্ষের সাথে জাতীয় ঐকমত্যের সরকার গঠন সংক্রান্ত জাতিসংঘের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। এর ফলে লিবিয়ায় রাজনৈতিক বিভক্তির অবসান ঘটিয়ে ঐকমত্যের জাতীয় সরকার গঠনের জাতিসংঘ উদ্যোগ চরমভাবে বাধাগ্রস্ত হলো। একই সাথে লিবীয় পার্লামেন্টের এই সিদ্ধান্ত দেশটিতে ঘাঁটি গেড়ে বসা ইসলামী স্টেট বা আইএস জিহাদিদের মোকাবেলার সুযোগও নষ্ট হলো বলে মনে করা হচ্ছে।
পার্লামেন্ট সদস্য আবু বকর বেইরা জানিয়েছেন, লিবীয় পার্লামেন্টের গত সোমবারের অধিবেশনে জাতিসংঘের উদ্যোগের ব্যাপারে ভোটাভুটির সময় ১০৪ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। ভোটাভুটিতে ৮৯ জন সদস্য জাতিসংঘ প্রণীত মন্ত্রিসভার প্রস্তাবের বিরুদ্ধে ভোট দিয়ে প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করে। জাতিসংঘ সমর্থিত লিবিয়ার প্রেসিডেন্সিয়াল পরিষদ এই মন্ত্রিসভা গঠন করেছিল। তিনি জানান, এই পরিষদ আগামী ১০ দিন সময়সীমার মধ্যে একটি নতুন ও ছোট আকারের মন্ত্রিসভা গঠন করতে ব্যর্থ হলে পরিষদের কার্যকারিতা থাকবে না। অর্থাৎ পরিষদ নিজে নিজেই ভেঙে যাবে। আবু বকর বেইরার বক্তব্য দেয়ার আগে লিবীয় পার্লামেন্টের অপর একজন সদস্য জানিয়েছিলেন, সোমবারের অধিবেশনে উপস্থিত মোট ১৪০ জন সদস্যের মধ্যে ৯০ জন সদস্য জাতিংঘের উদ্যোগের বিপক্ষে ভোট দেয়। লিবিয়ার রাজনীতি পরস্পর বিরোধী দুটি পার্লামেন্টে বিভক্ত হয়ে পড়ার কারণে সেখানে ইসলামী স্টেটের জিহাদিরা তাদের অবস্থান শক্ত করে নেয়ার সুযোগ পায়। প্রকৃতপক্ষে এই আইএস যোদ্ধাদের মোকাবেলা করার জন্যই জাতিসংঘ লিবিয়ায় জাতীয় মতৈক্যের সরকার গঠনের উদ্যোগ নেয়। দেশটিতে বিভক্ত রাজনীতির কারণে আইএস জিহাদিদের তৎপরতা বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি তাদের সমর্থিত স্থানীয় জিহাদি সংগঠনের তৎপরতাও বেড়ে গেছে।
বার্তাসংস্থা এএফপি’র অপর এক খবরে বলা হয়, দীর্ঘদিনের রক্তপাত বন্ধ করতে একটি বিতর্কিত চুক্তির অধীনে সরকার গঠনের ঘোষণা দিয়েছে লিবিয়ার জাতিসংঘ-সমর্থিত ঐকমত্যের সরকার। এ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে জাতিসংঘের দূত মার্টিন কোলবার এক টুইটার বার্তায় বলেছেন, আমি লিবিয়ার জনগণ এবং প্রেসিডেন্সি কাউন্সিলকে অভিনন্দন জানাই। ঐকমত্যের সরকারের নেতৃত্বে রয়েছেন ব্যবসায়ী ফায়েজ আল-সাররাজ। সরকার গঠনের কথা ফেসবুকে প্রকাশ করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। পরস্পর বিরোধী এই দুটি খবরের ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এপি, এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Dipu Sardar ২৮ অক্টোবর, ২০১৯, ৮:২৫ এএম says : 0
লিবিয়ার এখনকার পরিস্থিতি কেমন।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন