ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সেলফি উন্মাদনা : যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ১৯ মিনিটে একটি ঠোঁট অপারেশন

প্রকাশের সময় : ৭ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : এখন সেলফি উন্মাদনার যুগ। উন্মাদনা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, মানুষ তার মুখের আকার-আকৃতি পরিবর্তন করতেও দ্বিধা করছে না। চেহারার নিখুঁত সেলফি তুলতে অনেকেই ঠোঁটের গঠন পরিবর্তন ও আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে অস্ত্রোপচারে ঝুঁকে পড়ছে। ঠোঁট সুন্দর দেখালে গোটা চেহারাই আকর্ষণীয় হয়ে উঠেÑ এই ধারণা থেকে মানুষ প্লাস্টিক সার্জনদের কাছে ভিড় করছে। মিডিয়ার খবর অনুযায়ী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৫ সালে ঠোঁট অস্ত্রোপচারে রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী সেখানে প্রতি ১৯ মিনিটে একটি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। আমেরিকান সোসাইটি অব প্লাস্টিক সার্জনস’র (এএসপিএস) এক জরিপে এ চিত্র উঠে এসেছে। এতে দেখা যায় যে ২০১৫ সালে মোট ২৭ হাজার ৪৪৯ জন তাদের ঠোঁট ইমপ্লান্ট করেছেন। তাদের মধ্যে নারী ও পুরুষ উভয়ই রয়েছে। সিএনবিসির খবরে বলা হয়, এই সংখ্যা ২০০০ সাল থেকে ৪৮ শতাংশ বেশী। এএসপিএসের ডেভিড সং বলেন, আমরা এখন সেলফি যুগে বাস করছি এবং আমরা প্রতিনিয়ত সোসাল মিডিয়ায় নিজেদের ছবি দেখছি। এই কারণে আমাদের ঠোঁট কেমন দেখাচ্ছে সেটি নিয়ে মানুষ এখন অনেক সচেতন।
ব্রিটেনের একটি কসমেটিক ডেন্টিসট্রি প্রতিষ্ঠান দাবী করছে যে সেলফি মানুষের হাসির ধরণও পাল্টে দিচ্ছে। সুন্দর হাসির জন্য লোকজন চিকিৎসকদের শরণাপন্ন হচ্ছে। এটাকে বলা হয় ‘সেলফি স্মাইল’। লোকজন এখন নতুন সেলফি স্মাইল পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।
ক্লিনিক্যাল ডাইরেক্টর ও কসমেটিক ডেন্টিস্ট টিম ব্রাডস্টক-স্মিথ বলেন, অন্যের কাছে যারা সেলফি পাঠায় এমন রোগীর সংখ্যা গত ৫ বছরে ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা চিকিৎসকদের কাছে আসে বিশেষ উদ্বেগ নিয়ে যে তাদের সামনের দাঁতগুলো ভালো দেখাচ্ছে কি না তা জানতে। অথচ বাস্তবে তাদের সামনের দাঁত তেমন খারাপ দেখায় না। কিন্তু খুঁতখুঁতে ভাব নিয়ে চিকিৎসকের কাছে আসে এর প্রতিকারের জন্য।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও’র প্লাস্টিক সার্জন রবার্ট হাউজার ব্যাখ্যা করে বলেন, একজন রোগী চেহারার চামড়া বা চোখের পাতা সার্জারির মতো নাটকীয় অপারেশনে নিজেকে সমর্পণ করতে হয়তো প্রস্তুত নয়, তবে ঠোঁটের আকার-আকৃতি পরিবর্তনে যেহেতু অনেক উপায় আছে সেজন্য লোকজন সহজেই এতে রাজী হয়ে যায়। বরং কি করলে তাদের ঠোঁট সুন্দর দেখাবে চিকিৎসকদের কাছে জানতে চায় এবং সেভাবে ঠোঁট অপারেশনে রাজী হয়।
এএসপিএস জাতীয় পর্যায়ে এক হাজার মহিলার উপর একটি জরিপ পরিচালনা করেছে। এতে দেখা যায় যে, সেলিব্রিটিদের মধ্যে হলিউডের অভিনেত্রী জেনিফার লরেন্সের সরু ও রহস্যময় হাসির ঠোঁট মহিলাদের মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয়। তারা নিজেদের ঠোঁটও তেমন করতে অস্ত্রোপচার করেন। অনেকে তাদের ঠোঁট প্রসারিত ও সংকুচিত করেন যাতে মোবাইল ফোনের স্ক্রিনে তাদের মুখ আকর্ষণীয় দেখায়। সূত্র : এনডিটিভি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন