ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

কর্পোরেট

পরীক্ষা বাধ্যতামূলক পেট্রোলিয়াম পণ্য আমদানিতে

প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কর্পোরেট রিপোর্ট : বাংলাদেশ ব্যাংক প্যারাফিন জাতীয় পদার্থসহ অন্যান্য পেট্রোলিয়ামজাত পণ্য আমদানিতে এলসি খোলার সময় আমদানিকারকরা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) থেকে লাইসেন্স গ্রহণ করেছেন কিনা সেটি বাধ্যতামূলকভাবে পরীক্ষা করতে বৈদেশিক মুদ্রায় লেনদেনে নিয়োজিত অথরাইজড ডিলার ব্যাংকগুলোকে আবারও নির্দেশ দিয়েছে। সোমবার বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। নতুন সার্কুলারে ব্যাংকগুলো কর্তৃক পেট্রোলিয়াম পণ্য আমদানিতে বিইআরসির লাইসেন্স পরীক্ষা না করাকে অনাকাক্সিক্ষত বলে উল্লেখ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একই সঙ্গে আমদানি নীতির আলোকে এইচএস হেডিং নং-২৭.০৯, ২৭.১০, ২৭.১১, ২৭.১২ ও ২৭.১৩-এর অন্তর্ভুক্ত পেট্রোলিয়াম জাত পণ্য আমদানির নিমিত্তে এলসি স্থাপনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আমদানিকারক বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন, ২০০৩ অনুসারে বিইআরসি হতে লাইসেন্স প্রাপ্ত কি-না তা বাধ্যতামূলকভাবে পরীক্ষা করার জন্য সংশ্লিষ্ট অনুমোদিত ডিলার শাখাসমূহকে পুনঃনির্দেশনা দিতে ব্যাংকগুলোকে পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। জানা গেছে, সম্প্রতি অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলো এ বিষয়ক নির্দেশনা সঠিকভাবে পরিপালন করছে না মর্মে অভিযোগ করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে চিঠি পাঠায় বিইআরসি। চিঠিতে বলা হয়, সম্প্রতি পেট্রোলিয়াম জাতীয় পণ্য আমদানির সময় বিইআরসির লাইসেন্স পরীক্ষা করা বাধ্যতামূলক করে সংশ্লিষ্ট তফসীলি ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপরও আমদানিকারকদের কাছে বিইআরসির লাইসেন্স রয়েছে কিনা সেটি যাচাই না করেই ব্যাংকগুলো এলসি খুলছে। ফলে আমদানিকৃত মালামাল বন্দরে পৌঁছালে বিইআরসির লাইসেন্স ছাড়া কাস্টমস কর্তৃপক্ষ থেকে মালামাল খালাস করতে না পারায় আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো ডেমারেজ এড়ানোর জন্য দ্রুত মাল খালাসের জন্য বিইআরসিকে চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। ফলে আমদানিকারকদের লাইসেন্স প্রাপ্তির পূর্বশর্তসমূহ প্রতিপালন তরা দুরূহ হয়ে পড়ে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন