বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

কুষ্টিয়ায় চিকিৎসককে কুপিয়ে হত্যা, ইবি শিক্ষককে জখম

প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কুষ্টিয়া থেকে স্টাফ রিপোর্টার : কুষ্টিয়ায় মীর সানাউর রহমান (৫৫) নামে এক হোমিও চিকিৎসককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। এ সময় চিকিৎসকের সাথে থাকা কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক সাইফুজ্জামান গুরুতর আহত হন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯ টায় শহরতলীর বটতৈল এলাকার শিশির মাঠে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতি শুক্রবারের ন্যায় সকালেও হোমিও চিকিৎসক সানাউর রহমান শিশির মাঠ এলাকার নিজ চেম্বারে বিনামূল্য চিকিৎসা সেবা দিতে যান। রোগী দেখার জন্য মটরসাইকেলযোগে শিশির মাঠ দিয়ে যাচ্ছিলেন ডাক্তার সানাউর ও ইবি শিক্ষক সাইফুজ্জামান। এ সময় নির্জন মাঠে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা দূবৃত্তরা তাদের গতিরোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে।
হোমিও চিকিৎসকের মৃত্যু নিশ্চিত করে মোটরসাইকেল যোগে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। ধারালো অস্ত্রের কোপে গুরুতর আহত চিকিৎসক মাঠিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা আহত শিক্ষককে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সংবাদ পেয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ ঘটনস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।
দুপুর সোয়া একটার দিকে আহত শিক্ষককে সাইফুজ্জামানকে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।
কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাবুুদ্দিন চৌধুরী জানান, নিহতের পরিবার বা আশপাশের লোকজনদের সাথে কথা হচ্ছে, খুব শীঘ্রই হয় ঘটনার মোটিভ সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা দিতে পারব। এঘটনায় পুলিশ এখনও কাউকে আটক করতে পারেনি।
নিহত হোমিও চিকিৎসক মীর সানোয়ার রহমান শহরের পূর্ব মজমপুর এলাকার মৃত মীর বজলার রহমানের ছেলে। দীর্ঘ ১০ বছর আগে সাড়ে আট বিঘা জমি কিনে শিশিরপাড়া মাঠের কাছে তিনি একটি বাংলো বাড়ি নির্মাণ করেন। প্রতি শুক্রবার বিনা মূল্যে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন তিসি। শিক্ষক সাইফুজ্জামান তাঁর বন্ধু। বিনা মূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যাপারে তিনি সানাউরকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছিলেন। তাঁর বাড়ি কুষ্টিয়া শহরতলীর বোয়ালদহ গ্রামে। তিনি শহরের কালিশংকরপুরে ভাড়া বাড়িতে থাকেন।
সানাউর ও সাইফুজ্জামান বাউল তত্ত্বের অনুসারী বলে তাঁদের পরিচিত ব্যক্তিরা দাবি করেছেন। ঐ বাংলো বাড়ি চারজন যুবক দেখাশোনা করতো। সেখানে নিয়মিত বাউল গানের আসর বসতো।
বোমা বিস্ফোরণ কিশোর নিহত
কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কবুরহার্ট বাজারে নিজের বহনকরা বোমা বিস্ফোরণে নাইম হোসেন (১৫) নামের এক কিশোর নিহত ও তার অপর সঙ্গী হাফিজুর রহমান (১৫) গুরুতর আহত হয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, গতকাল সকাল ১০টার দিকে নাইম ও হাফিজ বোমাবহন করে কবুরহার্ট বাজারে পৌঁছালে হঠাৎ করে বিকট শব্দে বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এই বিস্ফোরনে ঘটনা স্থলেই নাইম হোসেন মারা যায়। সে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কবুরহার্ট সর্দার পাড়ার চাম্বার সর্দারের ছেলে। আহত হাফিজ একই গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। আহত হাফিজকে উদ্ধার করে এলাকাবাসী চিকিৎসার জন্য অন্যত্র নিয়ে গেছে।
কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাব্বুদ্দিন চৌধুরী এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন, নিহত নাইমের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কোথাথেকে এবং কি কারণে এ বোমা আনা হচ্ছিল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন