ঢাকা শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

তনু’র দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত বোর্ডের প্রধান ডা. কেপিকে প্রাণনাশের হুমকি!

প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সাদিক মামুন, কুমিল্লা থেকে : কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. কামদা প্রসাদ সাহা ওরফে কেপি সাহাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই চিকিৎসক। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ও ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের সদস্য সোহাগী জাহান তনু হত্যার দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত বোর্ডের প্রধান এবং ময়নাতদন্ত ঘিরে নানাভাবে আলোচিত-সমালোচিত চিকিৎসক ডা. কেপি সাহা গতকাল (মঙ্গলবার) দুপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার কক্ষে চিঠির বিষয়টি সাংবাদিকদের অবগত করেন।
দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত বোর্ডের প্রধান ডা. কেপি সাহা চিঠির বিষয়ে বলেন, মঙ্গলবার সকালে অফিসে আসার পর ডাকযোগে পাঠানো হতে লেখা দুই পাতার চিঠিটি পান। তিনি চিঠিটি খুলে পড়েন এবং তাতে তনু হত্যা মামলার বিষয়ে তাকে ও তার পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকির কথা উল্লেখ করা হয়। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে তনু হত্যা মামলা নিয়ে ডা. কেপি সাহা ধূম্রজাল সৃষ্টি করছেন। যা তার জন্য ভয়াবহ হবে। সহজ মামলাটিকে পেঁচিয়ে পেঁচিয়ে জটিল করার চেষ্টা থেকে বিরত থাকার কথাও বলা হয় চিঠিতে। অন্যথায় ডা. কেপি সাহা ও তার ছেলে মেয়ে ধ্বংস হয়ে যাবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। চিঠিতে মামলাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা না করতে এবং একটি সত্য ঘটনাকে আড়াল করে সরকারের আজ্ঞাবহ হয়ে কাজ না করার কথাও বলা হয়।
ডা. কেপি সাহা বলেন, চিঠিতে তাকে হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে- তনু হত্যার প্রথম ময়নাতদন্ত সঠিক ছিল না। তনু’র মা-বাবার কথাই সঠিক। তিনি বলেন, ‘চিঠিতে হোক, ফোনে হোক বা সরাসরি কেউ কাউকে হুমকি দিলে বিচলিত হওয়াটাই স্বাভাবিক। আমিও মানুষ, তাই বিচলিত হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে আমি ভীত নই। আমি নিয়মের মধ্যে থেকেই কাজ করে যাচ্ছি। চিঠির বিষয়ে সন্ধ্যার মধ্যেই জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে কোতয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরি করবো।’
এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে ডা. কামদা প্রসাদ সাহা ওরফে কেপি সাহার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের মেডিকেল বোর্ড তনুর লাশের দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের বিষয়ে বৈঠক করেছেন। এ প্রসঙ্গে ডা. কেপি সাহা জানান, ‘সকালে মেডিকেল বোর্ডের সভা হয়েছে। সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ প্রিন্সিপাল ও আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে তনু’র ডিএনএ রিপোর্ট প্রাপ্তির জন্য আদালতে আবেদন করা হবে। আবেদন সম্ভবত বৃহস্পতিবারের মধ্যে করা হতে পারে। তারপর ডিএনএ রিপোর্ট পাওয়ার পর সবকিছু বিশ্লেষণ করে দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের রিপোর্ট দেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন