ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ইসলামী জীবন

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

আল্লামা মুফতী উবায়দুর রহমান খান নদভী | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৮:৪১ পিএম

প্রশ্ন : আমি আমার স্ত্রীকে বিভিন্ন পারিপার্শ্বিক কারণে প্রায় চার বছর আগে ডিভোর্স দেই। কিন্তু আমার স্ত্রী বা তার পক্ষের কেউই ব্যাপারটা এখনো জানেন না। এখন আমি ঢাকায় থাকি আর আমার স্ত্রী চট্টগ্রাম থাকে। সে সবসময়ই আমাকে প্রশ্ন করে, কবে তাকে আমার কাছে নিয়ে আসব। আমারও ইচ্ছা তাকে নিয়ে আসার। আমার প্রশ্ন হচ্ছেÑ ইসলামিক বিধান অনুযায়ী আমাদের ডিভোর্স কি কার্যকর হয়েছে, যদি হয়ে থাকে তাহলে তাকে ফিরিয়ে আনার ইসলামিক বিধান কী?
উত্তর : স্ত্রীকে তালাক দেয়ার ক্ষেত্রে বিষয়টি তার জানা জরুরি নয়। আপনি যদি দিয়ে থাকেন, তা হলে এক তালাক বা অধিক তালাক যাই দিয়ে থাকেন সময়ের ভেতর পুনরায় মিলিত না হওয়ায় আপনাদের তালাক কার্যকর হয়ে গেছে। এখন বড় ফকিহ বা বিজ্ঞ মুফতি যেভাবে পরামর্শ দেন, সেভাবে শরিয়তের শর্ত পূরণ করেই আপনারা পুনরায় বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারবেন। আপনি চার বছর আগে কিভাবে তালাক দিয়েছিলেন, মনে মনে, মুখে না কাগজে? চার বছর স্ত্রীকে না জানিয়ে দূরে রইলেন কোন যুক্তি দেখিয়ে? সরল স্ত্রী কবে আসবেন, কবে তাকে নেবেন, এ জিজ্ঞাসা চার বছর ধরে করে চলল, তখন আপনার জবাব কী ছিল? আপনার গোটা বিষয়টিই বুঝতে যে কারো কষ্ট হবে। নিজে একজন বিজ্ঞ মুফতির কাছে হাজির হয়ে সময় নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করে মাসয়ালা জেনে নিন। এক কথায় আপনার উত্তর দেয়া সমীচীন নয়।
প্রশ্ন : কোনো স্ত্রী যদি অন্যায়ভাবে প্রায় সময় স্বামীর গায়ে হাত তোলে, অর্থাৎ স্বামীকে মারধর করে। সে ক্ষেত্রে স্বামীর করণীয় কি?
উত্তর : অন্যায়ভাবে কেন, ন্যায়ভাবেও তো স্ত্রী স্বামীর গায়ে হাত তুলতে পারে না। এমন কোনো সমস্যা হলে স্ত্রী অভিভাবকদের বলবে, নিকটজনদের সহায়তা নেবে, প্রয়োজনে আইনের আশ্রয় নেবে। কোনো কারণেই স্ত্রী স্বামীকে মারধর করতে পারবে না। স্বামীও সম্পর্ক, কর্তৃত্ব, বয়স ইত্যাদি বিবেচনায় স্ত্রীকে প্রয়োজনে সুসহ শাসন করতে পারলেও মারধর করতে পারে না। পিতা যেমন সন্তানদের পরিমিত শাসনে রাখেন, স্বামীও সম্ভাব্যক্ষেত্রে স্ত্রীকে এ পর্যায়ের শাসন করতে পারে। মারধর কোনো সময়ই করতে পারে না। 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন