শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইউপি’র সহিংসতা বিচ্ছিন্ন ঘটনা -সংসদে আইনমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : একই দলে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার কারণে কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে কিছু সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে বলে মন্তব্য করেছেন সংসদ কাজে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। সোমবার দশম জাতীয় সংসদের একাদশতম অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।
আইনমন্ত্রী জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২০১৬ অত্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে অসহিষ্ণুতা ও একই দলে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকা ইত্যাদি কারণে কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে কিছু সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে।
আইনমন্ত্রী জানান, এবারের নির্বাচনে প্রতিটি উপজেলায় নির্বাচনী শিডিউল ঘোষণার পর থেকেই ১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আচরণবিধি প্রতিপালনের বিষয়ে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে দায়িত্ব পালন করেছেন। কোনো কোনো উপজেলায় প্রয়োজন অনুযায়ী অধিকসংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেটও নিয়োগ করা হয়েছিল।
তিনি জানান, ৩ ধাপের নির্বাচনের আগে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে দ্বিতীয় দফায় আরো একটি সভা করে তাদের অধিকতর সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেয়া হয়।
নির্বাচনে যেন মহিলা ও সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী নির্বিঘেœ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন এবং নির্বাচন-পরবর্তী সময়ে তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে বিশেষ নজর রাখার জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দেয়া হয়।
এনআইডি সংশোধনে দুর্ভোগ সঠিক নয়
জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) বিভিন্ন ভুল সংশোধন করতে জনদুর্ভোগের অভিযোগের সঙ্গে একমত নন মন্ত্রী। সংসদ কাজে দায়িত্বপ্রাপ্ত আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, অসৎ উদ্দেশ্য হাসিলকারীরাই সচরাচর এ ধরনের অভিযোগ করে থাকেন
মো. আবদুল্লাহ’র টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান।
সংসদে দেয়া মন্ত্রীর তথ্যানুযায়ী, জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের প্রক্রিয়ার শুরুর দিকে শুধু ঢাকার জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগে সংশোধনের আবেদন গ্রহণ করে তা নিষ্পত্তি করা হতো। ক্রমান্বয়ে আবেদনকারীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় ইতোমধ্যে এ সেবা বিকেন্দ্রীকরণ করা হয়েছে।
মন্ত্রী জানান, বর্তমানে সারাদেশে ৫১৫টি উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে আবেদন জমা নিয়ে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে। এজন্য আবেদনকারীকে অর্থ ও সময় ব্যয় করে ঢাকায় না এসে নিজ নিজ উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিস থেকে সেবা গ্রহণ করতে পারছেন। উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে সরাসরি আবেদন করার বিষয়টি বহুল প্রচার করা হয়েছে।
আনিসুল হক জানান, ঢাকা থেকে শুধু জাতীয় পরিচয়পত্র প্রস্তুত করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে প্রেরণ করা হচ্ছে। হারিয়ে যাওয়া কার্ড এবং বানানগত ছোটখাটো ভুল (মাইনর) সংশোধনের আবেদন অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে নিষ্পত্তি করা হচ্ছে।
অনেকে নিজ নাম, বাবা ও মা’র নাম সম্পূর্ণ পরিবর্তন, বয়স ১০-৩০ বছর পরিবর্তন করার আবেদন করেন। যার জন্য প্রয়োজনীয় দলিলপত্র প্রয়োজন হয়। অনেক ক্ষেত্রে সরেজমিন তদন্ত দরকার হয়। এতে স্বাভাবিকভাবে একটু বেশি সময় প্রয়োজন। অনেকে অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করতে (অন্যের জমি ক্রয়-বিক্রয়, ভুয়া নামে ব্যাংক হিসাব খোলা, ভুয়া পাসপোর্ট করা, মোবাইল সিম ক্রয়, ফৌজদারি মামলা থেকে রেহাই পাওয়া ইত্যাদি) তার আইডি কার্ডের সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। ফলে কিছুটা দেরি হতে পারে। অসৎ উদ্দেশ্য হাসিলকারী ব্যক্তিরাই সচরাচর এ ধরনের অভিযোগ করে থাকেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন