ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২০ জুন বাস ও ২২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট

প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে ২২ জুন থেকে। তবে এটি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত। আজ (বুধবার) দুপুর দেড়টায় রেল ভবনের সম্মেলন কক্ষ যমুনায় রেলপথ মন্ত্রী মজিবুল হক ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ের প্রস্তুুতি এবং টিকিট বিক্রি কার্যক্রম বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন। অন্যদিকে দূরপাল্লার বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ২০ জুন সোমবার থেকে। রেল সূত্রে জানা গেছে, ২২ জুন থেকে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরুর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। ঈদের সম্ভাব্য তারিখ আগামী ৬ জুলাই ধরে টিকিট বিক্রির এই পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। রেলের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, এবার অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে যাত্রার ১০ দিন আগে থেকে। গত কয়েক বছর ঈদযাত্রা শুরুর পাঁচ দিন আগে থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রির কার্যক্রম চলে আসছে। রেলওয়ে সূত্র জানায়, রেলের পরিচালন বিভাগের করা সময়সূচি অনুসারে ২২ জুন বিক্রি হবে ১ জুলাইয়ের অগ্রিম টিকিট। ২৩ জুন পাওয়া যাবে ২ জুলাইয়ের টিকিট। একইভাবে ৩, ৪ ও ৫ জুলাই ট্রেন ভ্রমণের অগ্রিম টিকিট বিক্রি হবে যথাক্রমে ২৪, ২৫ ও ২৬ জুন। ভুক্তভোগিদের মতে, পাঁচ দিন আগে থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করলে যাত্রীদের বিকল্প ব্যবস্থা থাকে না। এ জন্য ৭ কিংবা ১০ দিন আগে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির পক্ষে মত দেন একাধিক কর্মকর্তা। গতকাল পর্যন্ত ১০ দিন আগে টিকিট বিক্রির মতোই চূড়ান্ত হয়ে ছিল বলে সূত্র জানায়।
ঈদ উপলক্ষে যাত্রীদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েকটি রুটে ঈদ স্পেশাল ট্রেন পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যে সব রুটে ঈদ স্পেশাল ট্রেন চলাচল করবে সেগুলো হলো- ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা  রুটে ঈদের আগের তিন দিন এবং ঈদের পরের দ্বিতীয় দিন থেকে সাতদিন পর্যন্ত দুই জোড়া ট্রেন চলাচল করবে। চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম রুটে ঈদের আগের তিন দিন এবং ঈদের পরের দ্বিতীয় দিন থেকে সাতদিন পর্যন্ত দুই জোড়া ট্রেন চলাচল করবে। পার্বতীপুর-ঢাকা-পার্বতীপুর রুটে ঈদের আগে তিনদিন এবং ঈদের পরে দ্বিতীয় দিন থেকে সাতদিন পর্যন্ত একজোড়া টেন চলাচল করবে। ঢাকা-খুলনা-ঢাকা রুটে ঈদের আগে তিন দিন এবং ঈদের পরের দ্বিতীয় দিন থেকে সাত দিন পর্যন্ত এক জোড়া ট্রেন চলাচল করবে। এছাড়া ভৈরব-কিশোরগঞ্জ-ভৈরব রুটে এক জোড়া, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে এক জোড়া এবং ঈদের দিন সোলাকিয়া নামক একটি স্পেশাল ট্রেন কিশোরগঞ্জ রুটে চলাচল করবে। গত ১১ জুন সকালে রেলভবনে অনুষ্ঠিত এক সভায় ঈদের স্পেশাল ট্রেন পরিচালনের বিষয়ে প্রাথমিকভাবে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
অন্যদিকে, ঢাকার বাস মালিক সমিতিগুলো জানিয়েছে, ঈদ উপলক্ষে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি। তবে বাস মালিকদের একাধিক সংগঠন থাকার কারণে সবাই একসঙ্গে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করে না। বড় কোম্পানিগুলো অগ্রিম টিকিট বিক্রি করে। মহাখালী ও সায়েদাবাদ টার্মিনাল থেকে যে সব বাস ছেড়ে যায়, সেগুলোর বেশিরভাগেরই অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হয় না।
বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের এক নেতা বলেন, অগ্রিম টিকিট বিক্রির সব প্রস্তুতি চলছে। আগামী শুক্রবার বিক্রি শুরুর একটা পরিকল্পনা ছিল। তবে তা পিছিয়ে সোম বা মঙ্গলবার থেকে শুরু হতে পারে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন