ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

প্রজন্ম ’৭১-এর আলোচনা সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ভারত-বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থার যৌথ পরিচালনায় চলছে দেশ
স্টাফ রিপোর্টার : ভারত-বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থার যৌথ প্রযোজনায় বর্তমানে বাংলাদেশ চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। গতকাল (শুক্রবার) দুপুরে জাতীয়  প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ’৭১ আয়োজিত রাজনীতির অস্থিরতা ও গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, গণতন্ত্রের জন্য ভারতের সাথে আমাদের বন্ধুত্ব অপরিহার্য ও গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা আশা করব, বাংলাদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার পুনঃ প্রতিষ্ঠিত করার জন্য একটি বৃহৎ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে ভারত সে আচরণ করবে। তারা কোনো বিশেষ ব্যক্তি কিংবা দল নয়, বাংলাদেশের জনগণের সাথে বন্ধুত্ব করবে। বাংলাদেশের জনগণও সেটাই চায়।
তিনি আরো বলেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় যেমন সিনেমা বানানো হচ্ছে, তেমনি দুই দেশের যৌথ প্রযোজনায় আজ বাংলাদেশ চলছে। যৌথ প্রযোজনায় দুই দেশের গোয়েন্দাদের পরিচালনায় চলছে। দেশের বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সম্পর্কে গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, বিচার বিভাগকে আগে নিশ্চিত করতে হবে, তারা স্বাধীনভাবে কাজ করবেন, না আইন মন্ত্রী ও কামরুলের ফোনের অপেক্ষায় থাকবেন। এ সময়ে তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে  বলেন, কিছু করলেও  হাসিনা সরকার  আমাদের  জেলে নিবে, না করলেও নিবে, তাই আসুন কিছু করে বা কিছু বলেই জেলে যাই।
গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, ৭১ সালে জামায়াত বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিল ঠিকই  কিন্তু  এ দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বাংলাদেশের অস্তিত্বকে স্বীকার করেই তারা রাজনীতি করছে। জামায়াতকে নিষিদ্ধ করলেই দেশের সমস্যার সমাধান হবে না বলে মন্তব্য করে গয়েশ্বর বলেন, আপনি (সরকার) কি গ্যারান্টি দিতে পারেন। জামায়াতকে নিষিদ্ধ করলেই দেশের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। উপজেলা, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট ডাকাতি হবে না। তাহলে আসুন আমরা সবাই মিলে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করি। আমরা জানি আপনারা সে গ্যারান্টি দিতে পারেন না। সংগঠনের সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দ আশিফা আশরাফ পাপিয়া, ঢাকা বিভাগীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, আহসান হাবিব লিংকন, মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ফরিদ উদ্দিন, সুমু ফারহানা প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন