ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ট্রাম্পের ধমকেই কুপোকাত ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০১ এএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ধমকেই কুপোকাত হয়ে গেছে ভারত। নিষেধাজ্ঞা সত্তে¡ও ট্রাম্পের হুমকির পর ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন রফতানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। তবে যে সব দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেশি সেই সব দেশেই এই প্রতিষেধক পাঠানো হবে বলে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। স¤প্রতি করোনা ভাইরাসে কার্যকরী ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন সরবরাহের জন্যে ভারতকে অনুরোধ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের রফতানির উপরে ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। আর তাই ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার ভারতকে হুমকি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প বলেন, যদি ভারত ওই অতি প্রয়োজনীয় হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ওষুধের সরবরাহের ব্যবস্থা না করে তবে এর যথাযোগ্য উত্তর দেয়া হবে। এরপরই মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, করোনা মহামারির প্রভাব দেখে ভারত সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে আন্তর্জাতিক বিশ্বের সংহতি ও সহযোগিতা বজায় রাখবে দেশ। করোনা ভাইরাস থেকে নিরাময়ে সক্ষম প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করা হবে অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোতেও। টিওআই।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Mrinmayee Karmakar ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২:০৬ এএম says : 0
আগে নিজের দেশের মানুষ বাঁচুক। তারপর অন্য কোন দেশের কথা ভাবা উচিৎ । পর্যাপ্ত পরিমাণ ওষুধ রেখে তারপর ভাবনা।
Total Reply(0)
Syed Wasif Ali ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২:০৭ এএম says : 0
কি জামানা এলো সাহায্য সহযোগিতা চাওয়ার বিষয়টি পর্যন্ত হুমকি প্রতিশোধ হুংকারের সুরে বলে।
Total Reply(0)
Shibu Roy ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২:০৮ এএম says : 0
যদি সবকিছু ঠিক রেখে পাঠাতে পারে ভবিষ্যতে ভারতের উপকার হবে।
Total Reply(0)
Abdullahi Kafi ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২:০৮ এএম says : 0
হুমকির ভয়ে সিদ্ধান্ত না নেওয়ায় ভালো। বরং বাস্তবতার নিরিখে রপ্তানি সম্ভব হলে অবশ্যই দেওয়া হোক। কারণ মানুষ বাঁচবে।
Total Reply(0)
Maniru Zaman ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২:০৯ এএম says : 0
নিজের দেশ আগে, পরে দেশের জন‍্য পরে চিন্তা করা যাবে, আর যদি এ নিয়ে আমেরিকা হুমকি দেয়, তা হলে এটা ফাকা আওয়াজ বলে ধরে নিতে হবে।
Total Reply(0)
Mohammad Alam ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৬:৪৩ এএম says : 0
না দিয়ে কি করবে! মোদি সরকারের হাত পা বাঁন্ধা ট্রাম্পের কাছে। কিছু আগে ট্রাম্পকে নমস্তে ট্রাম্প দিল। এখন স্বার্থ রক্ষা করতে শুধু ঔষধ নয়, আরও অনেক কিছু দাবি করলেও দিতে হবে।
Total Reply(0)
Jahid Pramanik ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৭:৫১ এএম says : 0
ট্রাম্প দন্তহীন বাঘ। ইরানকে এই হুমকি দিএ দেখুক।
Total Reply(0)
Salahuddin shah ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৮:৪০ এএম says : 0
ওষুধ রপ্তানিতে ভারতের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল, এসব ক্ষেত্রে একটি রাষ্ট্রকে সার্বজনীন হতে হয়। ট্রাম্প সরকারের হুমকি যথার্থ হয়েছে বলে মনে হয়।
Total Reply(0)
Asif ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৪:৪২ পিএম says : 0
সোমবারের হুমকির সুর বুধবার এসে নরম হয়ে গেল। বরং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমর্থনে দাঁড়িয়ে এদিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রশংসা করেন হাইড্রোঅক্সিক্লোরোকুইন রফতানির বিষয়ে ভারতের সিদ্ধান্তের। একই সঙ্গে বাহবা জানান করোনা মোকাবিলায় ভারতের ভূমিকার। ফক্স নিউজ-কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘আমি কয়েক লাখ ডোজ কিনেছি। তা প্রায় ২৯ মিলিয়নের বেশি তো হবেই। আর এর বেশিরভাগটাই আসে ভারত থেকে। প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছি রফতানির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা ওঠাবেন কি না। উনি সত্যিই খুব ভালো। কী জানেন তো ভারত রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল দেশের আক্রান্তদের চিকিত্‌সার কথা মাথায় রেখে।’ এক উচ্চ পদস্থ সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘চিনের সঙ্গে আমাদের তুলনা করা হোক এটা আমরা চাই না। সারা বিশ্ব এখন প্যানডেমিকের কবলে। এমন সময়ে আমাদের কর্তব্য থেকে যায় বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার মতো দেশের প্রতি যারা ভারতীয় ওষুধের উপর নির্ভরশীল।’ একদিকে যেখানে হাইড্রোঅক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেছেন ট্রাম্প সেখানেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO-এর বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ আনলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁর অভিযোগ, চিনের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করছে হু।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন