ঢাকা, শনিবার , ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সিদ্ধিরগঞ্জে ছাত্রলীগের হামলায় নারী এসআইসহ দুই পুলিশ আহত

প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আসামি ছিনতাইয়ের চেষ্টা
সিদ্ধিরগঞ্জ (নাঃগঞ্জ) সংবাদদাতা : সিদ্ধিরগঞ্জে ইভটিজিংয়ের আসামি ছিনিয়ে নিতে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এতে এক নারী উপ-পরিদর্শকসহ দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।
গতকাল (সোমবার) দুপুর ১২টার দিকে থানার পূর্ব নিমাইকাশারি এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্তের ঘটনায় ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদককে আটক করার পর ওই হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় পুলিশ ছাত্রলীগের নেতাসহ সাতজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলোÑ ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব (২৫), সাধারণ সম্পাদক আল মামুন (২৩), ছাত্রলীগ কর্মী জাহাঙ্গীর আলম সাকিব (২৪), মনোয়ার আহমেদ তামিম (২৪), কিবরিয়া সাকিফ (২৪), সাইফুল ইসলাম রাহুল (১৯) ও বাবু (২০)। আটকের খবর পেয়ে তাদের সহযোগী অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সামনের শিমরাইল-নারায়ণগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে। এতে ২০-২৫ মিনিট সড়কটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।
আহত উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুমনা পারভীন জানান, ‘সিদ্ধিরগঞ্জের এক কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্তের (ইভিটিজিং) অপরাধে নোমান (১৮) নামে এক বখাটের খোঁজ করতে গেলে তার ভাই ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদাক আল মামুনসহ বেশ কয়েকজন বাধা দেয় ও পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তিনি (এসআই সুমনা পারভীন) ও কনস্টেবল জুলকারনাইন আহত হয়। পরে পুলিশের আরেকটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয় এবং ছাত্রলীগের সাত নেতা-কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ইভটিজিংয়ের অভিযোগ তদন্ত করতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। আহত দুই পুলিশ সদস্যকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সাত নেতা-কর্মীকে আটক করে থানায় আনার পর ছাত্রলীগের ৫০-৬০ জন নেতা-কর্মী সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সামনে জড়ো হয়। এসময় তারা আটককৃতদের মুক্তির দাবিতে শিমরাইল-নারায়ণগঞ্জ সড়ক বন্ধ করে দিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। একপর্যায়ে তাদের শান্ত করে পুলিশ।
এদিকে বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনা নিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকে বসেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান ও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আলী আকবর। বৈঠকটি চলে প্রায় দেড় ঘণ্টা। এরপর এসআই সুমনা পারভীন বাদি হয়ে পুলিশের কাজে বাধা প্রদান করার অভিযোগে ৩ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। বৈঠক শেষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মতিয়ার রহমান সাংবাদিকদের জানান, বাকি ৬ জনের বিরুদ্ধে যাচাই-বাছাই শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন