ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

গণস্বাস্থ্যের করোনা টেস্টিং কিট হস্তান্তর

অনুষ্ঠানে আসেননি সরকারের কোনও প্রতিনিধি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০৩ এএম

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের টেস্টিং কিট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আসেননি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্য অধিদফতরের কোনও প্রতিনিধি। আসেননি ওষুধ প্রশাসনের কোনও কর্মকর্তাও। যদিও এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গণস্বাস্থ্যের টেস্টিং কিট চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানান, স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, তিনিও কোনও উত্তর দেননি। ফলে এখন তারা এসব কিট নিজ উদ্যোগে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের কাছে পৌঁছে দেবেন।

গতকাল শনিবার ওই অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধির কাছে কিট হস্তান্তর করা হয়। বেলা ১২টার দিকে ধানমন্ডিতে গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে কিট হস্তান্তর অনুষ্ঠান হয়। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মার্কিন সংস্থা সিডিসি’র কাছে কিট হস্তান্তর করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র ট্রাস্টের সভাপতি অধ্যাপক আলতাফুন্নেসা। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে কিট পরীক্ষা ও মতামতের জন্য নমুনা পাঠানো হবে।

গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী অনুষ্ঠানে বলেন, এই কিট তৈরিতে ওষুধ প্রশাসনের ডিজিও আমাদের সাহায্য করেছেন। গতকাল তারা হঠাৎ আমাদের জানালেন যে আজ আসতে পারবেন না। তাই আমাদের দুঃখ যে, আপনাদের সামনে হস্তান্তর করতে পারছি না। তবে তারা কাল এটা নিয়ে বসবেন। জানি কেন তারা আজ আসেননি। স্বাস্থ্যমন্ত্রীকেও আমরা এই অনুষ্ঠানে আসার কথা বলেছিলাম। কিন্তু কোনও উত্তর পাইনি। যদিও তিনি এখন কারণে-অকারণে অনেক বেশি ব্যস্ত আছেন।

তিনি আরও বলেন, আজ আমরা সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) দিয়ে দেবো। বাকিদের কাল সরকারিভাবে সবার অফিসে পৌঁছে দেবো। আর্মি প্যাথলজি ল্যাবরেটরিকে আমন্ত্রণ করা হয়, কিন্তু তারা অনুমতি পাননি বলে আসতে পারবেন না। কাল তাদের যার যত দরকার দেওয়া হবে।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আমরা আশা করছি সরকার এ কিট যাচাই বাছাই করে খুব দ্রুত অনুমোদন দেবে। অনুমোদন প্রাপ্তির সঙ্গে সঙ্গে উৎপাদন শুরু করবো। পর্যায়ক্রমে এক লাখ কিট দেওয়া সম্ভব হবে। তিনি বলেন, আমাদের উদ্ভাবন নিয়ে দুই-চার জনের মনে প্রশ্ন, এটা দিয়ে কাজ হবে কিনা। সেইদিনকার ওরস্যালাইন আজকের যুগান্তকারী অবদান। আমরা মনে করি, এরই ধারাবাহিকতায় আজ আপনাদের কাছে এই কিট প্রকাশ করতে যাচ্ছি। এটা খুব সহজে কাজ করবে, এটা পৃথিবীর বিরাট পরিবর্তন আনতে পারে। চিকিৎসা ব্যবস্থাকে সহজলভ্য করবে। জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আমাদের এই উদ্যোগ, উদ্ভাবনে অনেকে সাহায্য করেছেন। তাদের অনেকে স্বাস্থ্যের সঙ্গে জড়িত না। প্রধানমন্ত্রীর দফতর, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, চীনের রাষ্ট্রদূত, এনবিআর, ইউএস-বাংলাসহ অনেকে আমাদের এই উদ্ভাবনে সাহায্য করেছেন। তারা আমলাতান্ত্রিকতার বাইরে এসে আমাদের উদ্ভাবনীতে সাহায্য করেছেন। তবে এখনও আমাদের যাত্রাপথে অনেক বাধা রয়ে গেছে। যেতে হবে অনেক দূর।

অনুষ্ঠানে কিটের উদ্ভাবক ড. বিজন কুমার শীল বলেন, গত দুই মাস ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছি। আমাদের পুরো টিম পরিশ্রম করেছে। সবকিছুর পরে আমরা বলতে পারি যে সফল হয়েছি। আশা করছি আমরা আগামীকাল থেকে উৎপাদনে চলে যাবো। আমরা দুই ধরনের কিট ডেভেলপ করেছি। করোনাভাইরাসের এন্টিজেন ডিটেকশন আর এন্টিবডি ডিটেকশন। এর ফলে শতভাগ রোগ শনাক্ত করতে পেরেছি। আমাদের কিটে টেস্ট করতে সর্বোচ্চ পাঁচ মিনিট সময় লাগে। কাল ডিজি হেলথের সঙ্গে আমাদের মিটিং আছে। অনুমতি পেলে কিট উৎপাদনে চলে যাবো।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Oisheya Orshi ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৫ এএম says : 0
সব ভুলে দয়া করে সরকার এই ব্যাপারে সহযোগিতা করুন। বাচার আশা গরিব বড়লোক সবার আছে। আর্মির ভেন্টিলেটর ও এই কীট ব্যবহার করে সহজেই অনেকটা করোনা যুদ্ধ জয় করা যেত। সাধারণ মানুষ যা বোঝে আশা করতেই পারি প্রশাসনের উপর পর্যায়ের লোক আরো বেশি বোঝেন। তাই সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত টা নিন প্লিজ
Total Reply(0)
Jannatul Ferdous Mou ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৫ এএম says : 0
আজব! এটা কোন ধরনের অজুহাত, শুক্রবার হওয়ায় ল্যাব বন্ধ! উন্নত দেশগুলো দিন-রাত ২৪ ঘন্টা কাজ করে হিমশিম খাচ্ছে, সেখানে জাহেদ মালেকের বাংলাদেশ শুক্রবার উদযাপন করেছে! কতৃপক্ষের খামখেয়ালির জন্য আজ দেশের এই অবস্থা! PPE উচ্চারণ করতে না পারা ব্যাক্তি যখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী তখন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে বর্তমান পরিস্থিতির চেয়ে বেশী কিছু আশা করা কেবল বোকামি ছাড়া আর কিছুই নাহ্!
Total Reply(0)
Faisal Aziz ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৬ এএম says : 0
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ যা বলছেন,,বুঝাই যাচ্ছে এই কিট অনুমোদন পাবে না।লে ভাই বিদেশ থেকে কিট আমদানি কর,সাথে কোটি কোটি টাকা মারতে পারবি।কিট আবিষ্কার করায় চোরদের মনে খুব কষ্ট,তারা গভীর ভাবে ব্যাথিত,তাদের অন্তর এ রক্তখরন ঘটছে।
Total Reply(0)
Arif Khan Sobuj ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৬ এএম says : 0
এই কীট সরকার অনুমোদন দিবে না ,,, কারন যদি দেয় তাহলে তো লক্ষ মানুষের জীবন বেঁচে যাবে ,,, ,,,, জীবন নিয়ে রাজনীতি আর করা হবে না,,,, জাফোরোল্লার কিট হস্তান্তরের সময় কেন সরকারী প্রতিনীধি উপস্থিত ছিলেন না ,,, আর পুকুর চুরির একটা বিষয় ও তো আছে!
Total Reply(0)
Khan Mirza Hasan ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৭ এএম says : 0
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলছেন, ''আমাদের উদ্ভাবিত টেস্ট কিটগুলো পরীক্ষায় ৯০ শতাংশ পর্যন্ত সাফল্য পাওয়া গেছে। পিসিআর টেস্টের ক্ষেত্রেও তো কিছু ভুল পাওয়া যায়! কিন্তু এটাও সত্য যে এটা নির্ভুল আসার জন্য একজন রোগীর শরীরে পর্যাপ্ত এন্টিবডি তৈরি হতে হবে, যদি তৈরি না হয় তাহলে ফলস নেগেটিভ আসবে। RT-PCR এর বিকল্প কিছু এখনো পৃথিবীতে আসে নাই।
Total Reply(0)
Manik Sorkar ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩৭ এএম says : 0
হাজারো জাফরোল্লারা নিরবে দেশের জন্য কাজ করে যায় অনেক সময় নিজের জীবনটাও দেশের জন্য বিলিয়ে দেয় কিন্তু নাম হয় চালচোরদের। দাপিয়ে বেড়ায় চালচুরেরা। ফায়দা নেয় চালচুরেরা। সেলুট এমন হাজারো জাফরোল্লাদেরকে যাদের কারণে দেশটা আজো ভালো চলছে। ধিক সেই চালচোরদের যারা চুরিই করে যাবে।
Total Reply(0)
Omar faruk ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ৩:৩৫ এএম says : 0
শনিবারের কিট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে কিটগুলো নিয়ে পরিক্ষা-নিরীক্ষা করে দ্রুত সিদ্ধান্ত দিলে যদি কিছুটা মডিফাই করার প্রয়োজন হতো তাহলে তা দ্রুত করতে পারতো। আশাকরি প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট সকলের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। ধন্যবাদ
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন